সচেতনতা

শরীরের যেসব ক্ষতি করতে পারে অতিরিক্ত ঘুম

রাতের ঘুম সবার জন্য অনেক জরুরি। অনেকের ক্ষেত্রে দেখা যায় সকালে ঘুম সহজে কাটে না। সারাদনি চোখে ঘুম ঘুম ভাব থাকে। আর ঘুম ভাব থেকে সারাদিনের কাজেও ভুল করে ফেলেন। এখন প্রশ্ন হলো এই ঘুম ঘুম ভাব কীভাবে কাটাবেন।

পর্যাপ্ত ঘুমালে আপনি দিনের কাজগুলো করার শক্তি পাবেন।  বিশেষজ্ঞরা এই জন্য প্রতিদিন ৮ থেকে ৯ ঘন্টা ঘুমানোর পরামর্শ দেন। কিন্তু এর মানে এই নয় যে আপনি ঘন্টার পর ঘন্টা ঘুমিয়ে থাকবেন। অতিরিক্ত ঘুম আপনার শরীরের জন্য ক্ষতিকর হতে পারে। এমনকি স্বাস্থ্য নিয়ে ঝুঁকিতে পড়তে হতে পারে।

ডায়াবেটিসের ঝুঁকি বাড়ে
দীর্ঘ সময় ঘুমানোর ফলে  শারীরিক ক্রিয়াকলাপ কম হয়ে যায় এর ফলে রক্তে শর্করার মাত্রা বেড়ে যাওয়ার ঝুঁকি বেড়ে যায়। কয়েক বছর আগে টোকিও বিশ্ববিদ্যালয়ে গবেষনা করা হয়। সেখানে বলা হয়,  যে ব্যক্তি ৯ ঘন্টার বেশি ঘুমায় এমন ব্যক্তির শরীরে ডায়াবিটিসের ঝুঁকি বেশি।
হৃদরোগের ঝুঁকি বাড়ে
আমেরিকান জার্নাল অফ কার্ডিওলজির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দীর্ঘ সময়ের ঘুম বাম ভেন্ট্রিকুলারের ওজন বাড়িয়ে দিতে পারে, যা হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি বাড়ায়। আর একটি গবেষণায় দেখা গেছে যে দীর্ঘ সময় ঘুমানোর কারণে স্ট্রোকের ঝুঁকি ৪৬ শতাংশ বৃদ্ধি পায়। যেসব নারীরা ৯ থেকে ১১ ঘন্টা ঘুমান তাদের হৃদরোগ হওয়ার সম্ভাবনা ৩৮ শতাংশ বৃদ্ধি পায়।

ডিপ্রেশন বাড়ে
দীর্ঘ সময় ঘুমানোর ফলে আপনার মেজাজকে প্রভাবিত করতে পারে এবং এটি হতাশার দিকেও নিয়ে যেতে পারে। স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের মতে, দীর্ঘ ঘুম শারীরিক ক্রিয়াকলাপকে হ্রাস করে। আর এর প্রভাব মন মেজাজের ওপরেও পড়ে।

পিঠে ব্যথার সমস্যা

যারা চেয়ারে বসে ঘণ্টার পর ঘণ্টা কাজ করে তারা যদি দীর্ঘ সময় ধরে ঘুমায়, তাহলে তাদের পিঠে ব্যথা, ঘাড়, কাঁধে ব্যথার সমস্যা হতে পারে।  আর এর ফলে আপনার কাজের ওপরেও প্রভাব পড়তে পারে।

ওবেসিটি
ঘুমের পরও ক্লান্তি? মোটা হয়ে যাচ্ছেন না তো? ওবেসিটি থাকলে বা শরীরের মেদ জমলে সারাদিন ঘুম পায়। ঘুরেফিরে বারবার ক্লান্তি আসে।

এম ইউ

Back to top button