রূপচর্চা

পাঁচ উপায়ে কপালের ফুসকুড়ি ও দাগ দূর

কৈশোরকালে মুখ ও কপালের ফুসকুড়ি অথবা দাগ সাধারণ একটি সমস্যা। যেকোনো আবহাওয়ায় কিংবা যেকোনো কারণে ত্বকের এই সমস্যা দেখা দিতে পারে। ঘরোয়া কিছু পদ্ধতিতে যত্ন নিয়ে আপনি ত্বকের এই সমস্যা থেকে রক্ষা পেতে পারেন। আজকের আয়োজনে থাকছে কপালের ফুসকুড়ি ও দাগ দূর করতে কার্যকর এমনই পাঁচটি ঘরোয়া ফেসপ্যাক, যার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে অনলাইন বিউটি সাইট ‘ডাই হেলথ রেমেডি ডটকম’-এ। চলুন, একনজর দেখে আসি।

ফেসপ্যাক-১
যা যা লাগবে : মধু ও দারুচিনি গুঁড়া (তিন টুকরো)।
যেভাবে ব্যবহার করবেন

মধু ও দারুচিনি কপালের দাগ দূর করতে বেশ কার্যকর। একটি পাত্রে মধুর সঙ্গে দারুচিনি গুঁড়া মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে নিন। ভালো করে মিশিয়ে রাতে ঘুমানোর আগে কপালে লাগিয়ে শুয়ে পড়ুন। সকালে উঠে কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন।

ফেসপ্যাক-২
যা যা লাগবে : টমেটো ও লেবুর রস।
যেভাবে ব্যবহার করবেন
একটি পাত্রে দুটি টমেটো থেঁতলে নিয়ে কয়েক ফোঁটা লেবুর রস মিশিয়ে পেস্ট করে নিন। কপালে লাগিয়ে ১৫ মিনিট রেখে কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন।

ফেসপ্যাক-৩
যা যা লাগবে : ময়দা ও ভিনেগার।
যেভাবে ব্যবহার করবেন
ময়দা ত্বককে প্রাকৃতিকভাবে পরিষ্কার করার পাশাপাশি সতেজতা ও উজ্জ্বলতা ধরে রাখতে সাহায্য করে। এক টেবিল চামচ ময়দার সঙ্গে এক টেবিল চামচ ভিনেগার মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে নিন। কপালে লাগিয়ে শুকানো পর্যন্ত রেখে ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

ফেসপ্যাক-৪
যা যা লাগবে : বেকিং সোডা ও পানি।
যেভাবে ব্যবহার করবেন

বেকিং সোডা ত্বকের ফুসকুড়ির সমস্যা ও দাগ দূর করতে সাহায্য করে। এক টেবিল চামচ বেকিং সোডার সঙ্গে এক চা চামচ পানি দিয়ে পেস্ট তৈরি করে কপালে লাগিয়ে রাখুন। ২০ মিনিট রেখে ঠান্ডা পানি দিয়ে মুখে ধুয়ে ফেলুন।

ফেসপ্যাক-৫
যা যা লাগবে : পেঁপের রস ও লেবুর রস।
যেভাবে ব্যবহার করবেন

এক টেবিল চামচ পেঁপের রসের সঙ্গে কয়েক ফোঁটা লেবুর রস মিশিয়ে কপালে লাগিয়ে ১০ মিনিট রেখে দিন। নিয়মিত এই প্যাক ব্যবহারে কিছুদিনের মধ্যেই উজ্জ্বল ও দাগহীন ত্বক ফিরে পাবেন।

এস সি

Back to top button