এশিয়া

মিয়ানমারে আরও ১১ বিক্ষোভকারীর মৃত্যু

নেপিডো, ০৮ এপ্রিল – জান্তা সরকারের সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে শিকারের রাইফেল ও আগুনবোমা নিয়ে প্রতিরোধ গড়ে তোলার চেষ্টা করছে মিয়ানমারের জনগণ। মিয়ানমারের উত্তরপশ্চিমাঞ্চলীয় তেজ শহরে এই আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণের ঘটনা ঘটে।

ওই বিক্ষোভকারীদের দমনে নিরাপত্তাবাহিনীর অভিযানে ১১ জন নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার স্থানীয় গণমাধ্যমের প্রতিবেদনগুলো থেকে এ খবর পাওয়া গেছে।

আরও পড়ুন : মিয়ানমারে বিক্ষোভে গুলিতে নিহত বেড়ে ১৩

জানা গেছে, প্রথমে তেজ শহরে নিরাপত্তা বাহিনীর ছয় ট্রাক ভর্তি সেনা মোতায়েন করা হয়। বিক্ষোভকারীরা বন্দুক, ছুরি ও বোমা নিয়ে পাল্টা লড়াই শুরু করলে অতিরিক্ত আরও পাঁচ ট্রাক সেনা নিয়ে আসা হয়।

দুই পক্ষের মধ্যে লড়াই চলতে থাকে বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত। লড়াইয়ে অন্তত ১১ জন প্রতিবাদকারী নিহত ও ২০ জন আহত হন। সেনাদের মধ্যে কেউ মারা গেছেন কিনা তা নিয়ে প্রতিবেদনগুলোতে কিছু বলা হয়নি।

এদিনের হতাহতের ঘটনায় সামরিক জান্তা মিয়ানমারের ক্ষমতা দখল করার পর থেকে নিরাপত্তা বাহিনীর হাতে নিহত বেসামরিকের সংখ্যা ৬০০ ছাড়িয়ে গেছে বলে দাবি করেছে অ্যাসিসটেন্স অ্যাসোসিয়েশন ফর পলিটিক্যাল প্রিজনার্স (এএপিপি)। বুধবার সন্ধ্যা পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা ৫৯৮ জন ছিল বলে জানিয়েছিল তারা।

এর আগেরদিন বুধবারও তেজ শহরের নিকটবর্তী কালে শহরে একইরকম সংঘর্ষের ঘটনায় অন্তত ১২ জন নিহত হয় বলে সংবাদ মাধ্যম ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছে। সু চির সরকারকে ক্ষমতায় পুনর্বহালের দাবিতে বিক্ষোভরতদের ওপর নিরাপত্তা বাহিনী তাজা গুলি, গ্রেনেড ও মেশিনগান ব্যবহার করছে বলেও জানিয়েছে এএপিপি।

সূত্র : আরটিভি
এন এইচ, ০৮ এপ্রিল

Back to top button