ফুটবল

ফুটবল কোচদের সঙ্গে বৈঠক, যা বললেন সালাহউদ্দিন

ঢাকা, ০৩ এপ্রিল – নেপালে অনুষ্ঠিত ত্রিদেশীয় টুর্নামেন্টের ফাইনালে হেরে ট্রফি হাত ছাড়া হয় জামাল ভূঁইয়াদের। ১৬ বছর পর বিদেশের মাটিতে শিরোপা জয়ের খুব কাছ থেকে শূন্য হাতে দেশে ফিরতে হয়েছে লাল-সবুজের প্রতিনিধিদের। যার কারণে ফুটবল ভুক্তদের পাশাপাশি বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) কর্মকর্তাদের মনেও কষ্ট লেগেছে।

পুরো ম্যাচজুড়ে বাংলাদেশের শক্তি সামর্থ্য যা একটু দেখা মিলেছিল তাও ম্যাচের শেষ সময়ে। ততক্ষণে দুই গোল হজম করে পরাজয় প্রায় নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল। শেষ বাঁশি বাজার আগে বদলি হিসেবে মাঠে নামা মাহবুবুর রহমান সুফিলের গোলে ব্যবধান কমায় বাংলাদেশ। তবে পুরো ম্যাচে কোচ জেমি ডে’র একাদশ সাজানো নিয়ে বেশ আলোচনা সমালোচনার জন্ম দিয়েছে।

দলের বেশ কয়েকজন সিনিয়র প্লেয়ারকে উপরে বসিয়ে মোটামুটি তরুণ নির্ভর একটি একাদশ মাঠে নামান জেমি ডে। ফাইনালের মতো একটি মঞ্চে জেমির এমন সিদ্ধান্তে হতাশ হয়েছেন বাফুফে সভাপতি থেকে শুরু করে ফুটবল ভক্তরাও। জেমি পেশাদারিত্ব নিয়েও অনেকে প্রশ্ন তুলেছেন। সবগুলো বিষয়ের সমধান জানতে জরুরি ভিত্তিতে আজ দুপুরে বাফুফে ভবনে জেমিকে তলব করেন বাফুফে সভাপতি কাজী সালাহ্উদ্দিন।

আরও পড়ুন : বার্সাকে ৩ শর্ত মেসির

দীর্ঘ সময়ের বৈঠক শেষে গণমাধ্যমের মুখোমুখি হন বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের টানা চার বারের সভাপতি কাজী সালাহ্উদ্দিন। এসময় তিনি বলেন, ‘আমরা কোচের সঙ্গে বসেছিলাম কোন জায়গায় সমস্যা হয়েছে। আমার, আপনার, দেশবাসীর মন খারাপ। আশা করেছিলাম শিরোপাটা পাবো। সেটা নিয়েই আমরা আলোচনায় বসেছিলাম। সমাধানের জন্য বেশি সময় নিবো না। দ্রুত সময়ের মধ্যে আশা করি সমাধান করা হবে।’

একাদশে সিনিয়রদের বসিয়ে তরুণদের নেওয়ার কারণ হিসেবে কোচ জানিয়েছেন ফিটনেস সমস্যা, এ নিয়ে যুক্তি-তর্ক উপস্থাপন করা হয়েছে জানিয়ে সালাহ্উদ্দিন বলেন, ‘কোচ মনে করছেন তিনি তার সেরা একাদশ নামিয়েছেন। এটা নিয়ে আমরাও যুক্তি-তর্ক উপস্থাপন করেছি। তবে তার মতে অন্যদের ফিটনেসে সমস্যা ছিল। আমি বলবো এটা সেরা, আপনি বলবেন অন্যটা। আসলে বিষয়টা হচ্ছে ভিন্ন দৃষ্টিভঙ্গির। আমরা আমাদের পর্যবেক্ষণ জানিয়েছি। তিনিও নিজেরটা জানিয়েছেন।’

জেমি ডে বার বার ফেল করছেন, বিকল্প চিন্তা করেছেন কি না এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘বিকল্প চিন্তা হবে। একটা সময় ফেল এর স্টপেজ আছে। কবে, কখন এবং কীভাবে কারণ সঙ্গায়িত করতে হবে। এই সমস্যাটা আমি আসলে বোঝাতে পারছি না। সমস্যাটা সবাই দেখছে। তারা ভালো করতে না পারলে দ্রুতই যেকোনো সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।’

সূত্র : আমাদের সময়
এন এইচ, ০৩ এপ্রিল

Back to top button