পশ্চিমবঙ্গ

নির্বাচিত বিধায়কদের বাইরেও কেউ মুখ্যমন্ত্রী হতে পারেন, দিলীপের মন্তব্যে জল্পনা

কলকাতা, ৩০ মার্চ – রাজ্যে বিজেপি ক্ষমতায় এলে নির্বাচিত বিধায়কদের থেকেই যে কেউ মুখ্যমন্ত্রী হবেন এমন কোনও কথা নেই। মঙ্গলবার সংবাদসংস্থা PTI-কে এমনটাই জানিয়েছেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। যা নিয়ে শুরু হয়েছে নতুন জল্পনা।

পশ্চিমবঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীর মুখ ছাড়াই নির্বাচনের ময়দানে নেমেছে বিজেপি। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে সামনে রেখে এখানে তৃণমূলের সঙ্গে টক্কর নিচ্ছে তারা। কিন্তু কে হবেন বিজেপির মুখ্যমন্ত্রী এই নিয়ে চর্চা চলছে সর্বত্র। একাধিক নাম উঠে এলেও কারও ক্ষেত্রেই শিলমোহর দেয়নি দলের নেতৃত্ব। এর মধ্যে নতুন সম্ভাবনা উসকে দিলেন দিলীপ ঘোষ।

আরও পড়ুন : ভোট প্রচারে ‘আক্রান্ত’ বিজেপি প্রার্থী অশোক ডিন্ডা, তৃণমূলের দাবি আদি-নব্য দ্বন্দ্ব

এদিন তিনি বলেন, ‘মুখ্যমন্ত্রী নির্বাচিত প্রতিনিধিদের থেকেই হতে হবে এমন কথা নেই। তার বাইরেও কেউ মুখ্যমন্ত্রী হতে পারেন।’ সংবিধান বিশেষজ্ঞদের মতে নির্বাচিত নন এমন ব্যক্তিকে মুখ্যমন্ত্রী করার ক্ষেত্রে ২টি পথ খোলা থাকে। প্রথমটি কাউকে মুখ্যমন্ত্রী করে ৬ মাসের মধ্যে তাঁকে নিরাপদ আসন থেকে উপনির্বাচনে জিতিয়ে আনা। আর দ্বিতীয়টি বিধান পরিষদ গঠন করে তার সদস্য করা মুখ্যমন্ত্রীকে। যেভাবে মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার পর বিধান পরিষদের সদস্য হয়েছেন আদিত্যনাথ।

বিজেপির মুখ্যমন্ত্রীর তালিকায় দিলীপবাবু-সহ রয়েছে প্রায় এক ডজন নাম। স্বপন দাশগুপ্ত, বাবুল সুপ্রিয়, তথাগত রায়রা ভোটে লড়ছেন। ভোটে না লড়লেও দৌড়ে অনেকটা এগিয়ে রয়েছেন মিঠুন চক্রবর্তী। শোনা গিয়েছে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় ও রামকৃষ্ণ মিশনের এক সন্ন্যাসীর নাম। কার ভাগ্যে শিকে ছেঁড়ে টের পাওয়া যাবে ২ মের পর।

সূত্র : হিন্দুস্থান টাইমস
এন এ/ ৩০ মার্চ

Back to top button