রূপচর্চা

বেছে নিন আপনার ত্বকের উপযোগী সঠিক ময়েশ্চারাইজার!

ত্বকের জন্য, বিশেষ করে শুষ্ক ত্বকের ক্ষেত্রে প্রতিদিনের অত্যন্ত দরকারী একটি প্রসাধনী হচ্ছে ময়েশ্চারাইজার। তবে সব ময়েশ্চারাইজার কিন্তু সব ত্বকের জন্যে নয়। ত্বকের উপযোগী ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার না করে অন্যকোন প্রসাধনীকে বেছে নিলে সেটা হয়ে পড়তে পারে আপনার ত্বকের জন্য প্রচন্ড ক্ষতিকারক। ভাবছেন কি করে বাজারের এত-শত ময়েশ্চারাইজারের ভেতরে বাছবেন নিজের উপযোগী ময়েশ্চারাইজারকে? দেখে নিন আপনার ত্বকের জন্য সঠিক ময়েশ্চারাইজার বেছে নেওয়ার পদ্ধতি।

১. উপাদান দেখে নিন
বাইরে থেকে অনেক বেশি চকমকে দেখতে হলেও ময়েশ্চারাইজার অবশ্যই প্রাকৃতিক কোন দ্রব্য না। আর তাই সেটা থেকে চোখ বন্ধ করে সুফল পাওয়ার কথাও ভাবা উচিত নয়। এর চাইতে বরং গায়ের সেই চকমকে প্যাকেটে লেখা উপাদানগুলোর নাম পড়ে নিন আপনি। আর বাছুন কোনটি নিবেন নিজের ত্বকের জন্য। এক্ষেত্রে খুব বেশি সংবেদনশীল ত্বক হলে বাছুন সুগন্ধী ও তেল মুক্ত ময়েম্চারাইজার (হাউ স্টাফ ওয়ার্কস)। শুষ্ক ত্বকের জন্য অবশ্যই তৈলাক্ত কিন্তু আঠালো নয় এমন ময়েশ্চারাইজার বাছুন।

২. মৌসুমের কথা মাথায় রাখুন
এটা কিন্তু সত্যি যে কোন প্রসাধনী যত ভালোই হোক, মৌসুমভেদে সেটার ব্যবহারে ভিন্নতা আসে। আর তাই মৌসুমের দিখে খেয়াল রেখেই ময়েশ্চারাইজার কিনুন। গরমকালে হালকা আর শীতকালে একটু ভারী কোন ময়েশ্চারাইজারের দিকে যান। তবে হঠাত্ করেই যদি দেখেন যে আপনার ত্বক তৈলাক্ত হয়ে যাচ্ছে তাহলে আঠালো ধরনের ময়েশ্চারাইজার এড়িয়ে চলুন।

৩. ভিটামিন ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের তালিকা দেখুন
বিভিন্ন রকম ভিটামিন আর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট আমাদের শরীরের কোষগুলোকে নানারকমভাবে প্রভাবিত করে। এক্ষেত্রে ভিটামিন এ ত্বকের কোঁচকানো ভাব, বলিরেখা ইত্যাদি দূর করে। এছাড়াও সিনথেটিক হাউড্রোক্সি অ্যাসিড ত্বকের নতুন কোষ বৃদ্ধি, ভিটামিন সি কোলাজেন বৃদ্ধিসহ নানারকম ছোটখাটো সাহায্য করে দেয় আপনার ত্বকের। কমিয়ে দেয় ত্বকের বয়স। সুস্থ ও সতেজ থাকতে সাহায্য করে ত্বককে। আর তাই ময়েশ্চারাইজার কেনার সময় ভিটামিনের তালিকাটাও দেখে নেওয়াটা জরুরী।

৪. নিজের ত্বককে জানা
ময়েশ্চারাইজার কেনার আগে প্রথমেই নিজের ত্বকের ধরণকে চিনে নিন। মোট ১৬ টি ভাগ হয় ত্বকের। এদেরকে মোটমাট চারটি ধারায় বিভক্ত করেছেন বিশেষজ্ঞরা।

ক. শুষ্ক অথবা তৈলাক্ত
খ. উজ্জ্বল অথবা অনুজ্জ্বল
গ. ভাঁজ পড়া বা শক্ত
ঘ. সংবেদনশীল অথবা প্রতিরোধী (এবিসি নিউজ)

এই বিভাগগুলোর ওপর ভিত্তি করে বাছাই করুন কোন ময়েশ্চারাইজারটি আপনার জন্য। সাধারন ত্বকের জন্যে পানি প্রধান ও আঠালো নয় এমন ময়েশ্চারাইজার বাছুন। আর শুষ্ক ত্বকের ক্ষেত্রে ভারী তেল প্রধান ও খনিজ তেল প্রধান প্রসাধনী বাছুন।

৫. চারটি ধাপ মেনে চলা
যেকোন ময়েশ্চারাইজার বাছাই করার ক্ষেত্রে মোট চারটি ব্যাপারকে মাথায় রাখা উচিত।

ক. গন্ধ
খ. অনুভূতি
গ. প্রতিক্রিয়া
ঘ. মূল্য

প্রথমেই বাছুন গন্ধ নেই এমন কোন ময়েশ্চারাইজার। এছাড়াও নিজেকে প্রশ্ন করে দেখুন। আঠালো কোন অনুভূতি কি সারাদিন ত্বকের ওপর নিয়ে ঘুরে বেড়াতে ভালো লাগবে আপনার? তাই সেদিকটাও খেয়ালে রাখুন। মাথায় রাখুন যাতে করে কোনরকম জ্বালাপোড়া, চুলকানি বা প্রতিক্রিয়া না হয় প্রসাধনী থেকে। আর দামের ব্যাপারটা তো মাথায় অবশ্যই রাখতে হবে।

এস সি

Back to top button