রূপচর্চা

সুন্দর ঠোঁটের মিষ্টি হাসি

ঘরে বাইরে বইছে শীতের হাওয়া। এসময়ে ঠোঁট ফাটার উপদ্রব বাড়ে। তাই প্রয়োজন হয় বাড়তি যত্নের। তাছাড়া ঠোঁট সুন্দর তো হাসিও সুন্দর। কিন্তু ঠোঁট যদি সুন্দর না হয় তাহলে আপনার হাসি খানিকটা ম্লান হয়ে যেতে পারে। সাধারণত নিম্নমানের লিপস্টিক ও লিপবাম ব্যবহার, অতিরিক্ত চা-কফি পান, ধুমপান, ঠোঁটের সঠিক যত্ন না নেয়া ঠোঁট অসুন্দর কারণ হয়ে দাঁড়ায়।
এছাড়া ঠোঁটের আদ্রতা কমে গেলে এবং অধিক সময় রোদে থাকলে নারী ও পুরুষ উভয়েরেই ঠোঁটের চামড়া ফেটে যায় ও ঠোঁটের রং কালো হয়ে যায়। কিন্তু ঘরোয়া উপায়ে একটু যত্ন নিলে ঠোঁট কালো ও ফেটে যাওয়ার হাত থেকে রক্ষা করা সম্ভব।
ঠোঁটের যত্নে করণীয়
  • রঙিন সবজি, ফলমূল ও ভিটামিন ‘সি’ জাতীয় খাবার বেশি করে খেতে হবে। ঠোঁটের আদ্রতা ধরে রাখতে বেশি বেশি পানি পান করতে হবে এবং ঘুমাতে যাওয়ার আগে ঠোঁটে গ্লিসারিন লাগাতে হবে।
  • চা-কফি ও ধুমপানের অভ্যাস থাকলে তা ছেড়ে দেয়ায় ভালো। অতিরিক্ত তাপের কারণে ঠোঁট কালো হয়ে যায়। তাই খাবার খাওয়ার সময় ঠাণ্ডা করে খাওয়া ভালো।
  • নিয়মিত লিপব্রাশ দিয়ে ঠোঁট আলতো করে পরিস্কার করুন। রোদে বের হওয়ার সময় সঙ্গে ছাতা নিতে ভুলবেন না।
  • ঠোঁট বেশি কালো হলে লেবুর রসের সঙ্গে মধু মিশিয়ে ঠোঁটে ম্যাসাজ করতে পারেন। এছাড়া কমলার খোসা মধুর সঙ্গে মিশিয়ে ঠোঁটে ম্যাসেজ করলে কালো দাগ দূর হবে।
  • গোলাপের পাপড়ির সঙ্গে গ্লিসারিন মিশিয়ে ঠোঁটে ম্যাসেজ করলেও দাগ দূর হয়ে যাবে।
  • নিয়মিত নারিকেল তেল ও লেবুর রস একসঙ্গে মিশিয়ে ঠোঁটে লাগালে ঠোঁট তার নিজের রঙ ধরে রাখতে পারবে।
  • কাঁচা দুধে তুলা ভিজিয়ে ঠোঁটে ১০ মিনিট ম্যাসেজ করুন। এতে ঠোঁটের কালো দাগ দূর হবে সেইসঙ্গে ঠোঁট হবে কোমল ও মসৃণ।
  • প্রতিদিন ৫ মিনিট শশা ঠোঁটে ম্যাসেজ করলে ঠোঁট তার হারানো সৌন্দর্য ফিরে পাবে সেই সঙ্গে ঠোঁট হবে আকর্ষণীয়।

এস ‍সি

Back to top button