জাতীয়

স্বাধীনতার মাসে রেমিট্যান্স এসেছে ১৯১ কোটি ডলার

ঢাকা, ০১ এপ্রিল – করোনা মহামারির মধ্যেও রেকর্ড পরিমাণ রেমিট্যান্স দেশে পাঠিয়েছেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা। সদ্যসমাপ্ত মার্চে প্রবাসীরা ১৯১ কোটি মার্কিন ডলারের (১.৯১ বিলিয়ন) রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন, যা টাকার হিসাবে প্রায় ১৬ হাজার কোটি টাকা। যা আগের বছরের একই মাসের (মার্চ, ২০২০) চেয়ে ৩৫ দশমিক ১০ শতাংশ বেশি। অর্থাৎ গত বছরের মার্চ মাসে ১২৭ কোটি ডলার রেমিট্যান্স এসেছিল দেশে। বাংলাদেশ ব্যাংকের হালনাগাদ প্রতিবেদনে এসব চিত্র উঠে এসেছে।

করোনা মহামারির মধ্যেও রেকর্ড সংখ্যক রেমিট্যান্স আসাকে ইতিবাচক হিসেবে দেখছেন বিশিষ্টজনরা। তারা বলছেন, অনেকে মহামারির কারণে একবারের জন্য দেশে চলে এসেছেন। এতে তাদের জমানো টাকাও সঙ্গে এসেছে। সরকারের নগদ প্রণোদনা দেয়ার কারণেও রেমিট্যান্সপ্রবাহ বেড়েছে।

আরও পড়ুন : করোনা আক্রান্ত বিএনপি নেতারা কেমন আছেন?

চলতি অর্থবছরের আট মাসে (জুলাই-মার্চে) প্রবাসীরা দেশে রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন এক হাজার ৮৬০ কোটি ৩৮ লাখ ডলার বা এক লাখ ৫৮ হাজার কোটি টাকা। রেমিট্যান্সপ্রবাহ চাঙ্গা থাকায় ইতিবাচক অবস্থায় রয়েছে রিজার্ভ। সবশেষ ১৬ মার্চ পর্যন্ত বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ ৪৩ দশমিক ০৯ বিলিয়ন বা চার হাজার ৩০৯ কোটি ডলার।

সদ্য বিদায়ী মার্চ মাসে রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন পাঁচ বাণিজ্যিক ব্যাংকের মাধ্যমে রেমিট্যান্স এসেছে ৪৪ কোটি ১৩ লাখ ডলার আর বেসরকারি ব্যাংকের মাধ্যমে এসেছে ১৪৩ কোটি ১৭ লাখ ডলার। বিদেশি ব্যাংকগুলোর মাধ্যমে এসেছে এক কোটি মার্কিন ডলার এবং একটি বিশেষায়িত ব্যাংকের মাধ্যমে তিন কোটি ২৯ লাখ ডলারের রেমিট্যান্স এসেছে।

সূত্র : জাগো নিউজ
এন এইচ, ০১ এপ্রিল

Back to top button