বিচিত্রতা

কাউকে পছন্দ হলেই অজ্ঞান হয়ে যান এই নারী

পছন্দের মানুষকে দেখতে কার না ভালো লাগে। তবে সেই ভালো লাগার মানুষের মুখোমুখি দাঁড়িয়ে যদি কেউ অজ্ঞান হয়ে যায় তো পছন্দের মানুষের সামনে দাঁড়ানোই দুষ্কর।

অবাক হচ্ছেন? কিন্তু বাস্তবে এমনই এক বিরল রোগের দেখা মিলেছে ইংল্যান্ডের এক নারীর মাঝে। ওই নারী যদি ভালো লাগে এমন কোনো মানুষের মুখোমুখি হন, তবে সঙ্গে সঙ্গে অজ্ঞান হয়ে যান। মানুষটির চোখে চোখ রাখলেই জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন তিনি।

জানা গেছে, এটি আসলে মস্তিষ্কের একটি বিরল রোগ। আর সেই কারণেই তিনি সচরাচর কোনো পুরুষের চোখে চোখ রাখেন না।

আরও পড়ুন : ৬ দিন ধরে পার্টি করে বেড়ালেন মা, না খেয়ে প্রাণ গেল ছোট্ট শিশুর

ওই নারীর নাম ক্রিস্টি ব্রাউন। বিরল যে রোগে তিনি ভুগছেন তার নাম হলো- ক্যাটাপ্লেক্সি। ইংল্যান্ডের নর্থউইচের চেশায়ার অঞ্চলে থাকেন ৩২ বছর বয়সী ক্রিস্টি। তার দুটি সন্তানও আছে।

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, তিনি যে বিরল রোগে ভুগছেন তাতে রাগ, দুঃখ, ভয় এরকম নানা অনুভূতির জন্য মস্তিষ্কে কিছু বিক্রিয়া হয়। তাৎক্ষণিক ফলস্বরূপ শরীরের কয়েকটি পেশি অসাড় হয়ে যায়। আর সেই জন্যই খানিকটা সময়ের জন্য জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন তিনি।

নিজের এই পরিস্থিতি নিয়ে খুব লজ্জায় থাকেন ক্রিস্টি। তিনি বলেন, এটা খুব লজ্জাজনক। আমি শপিং করতে গিয়েছিলাম। সেখানেই একজনকে দেখে আমার ভালো লাগে। আর আমার পা কাঁপতে শুরু করে দেয়। আমার কাজিনকে ধরে না ফেললে পড়েই যেতাম!

তবে শুধু পছন্দের কাউকে দেখলেই যে ক্রিস্টির এমনটা হয়, তা নয়। তিনি রেগে গেলে বা ভয় পেলেও এমন হয়। উচ্চতাকেও ভয় পান ক্রিস্টি। তাই উঁচু কোনও ছাদ বা সিঁড়িতে উঠলেও তিনি অজ্ঞান হয়ে যান।

পাবলিক প্লেসে গেলে নিজেকে যতটা সম্ভব সংযত রাখার চেষ্টা করেন ক্রিস্টি। আর বেশিরভাগ সময়েই মাথা নিচু করে থাকেন যাতে কারও সঙ্গে তার চোখাচোখি না হয়।

এন এইচ, ২৭ মার্চ

Back to top button