জাতীয়

দ্বাদশ অধিবেশনও সংক্ষিপ্ত হচ্ছে

ঢাকা, ০১ এপ্রিল – নভেল করোনাভাইরাসের প্রবল ঊর্ধ্বগতির মধ্যেই আজ বসছে একাদশ জাতীয় সংসদের দ্বাদশ অধিবেশন। সকাল ১১টায় শুরু হবে এ অধিবেশন। তবে করোনা পরিস্থিতির কারণে কার্যউপদেষ্টা কমিটির সভা হচ্ছে না। জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে পরামর্শ করে অধিবেশনের মেয়াদ ঠিক করবেন। তবে এবারও সংক্ষিপ্ত হবে সংসদের এ অধিবেশন।

সংসদের নির্ভরযোগ্য সূত্র জানিয়েছে, অধিবেশনের মেয়াদ ৮ থেকে কমিয়ে মাত্র ৩ কার্যদিবস নির্ধারণ করা হয়েছে। সংক্ষিপ্ত এ অধিবেশনে পাসের অপেক্ষায় রয়েছে ১০টি বিল।

প্রাপ্ত তথ্য মতে, করোনা প্রতিষেধক টিকা (ভ্যাকসিন) নিয়েও দেশের অনেক মানুষ এ রোগে আক্রান্ত হচ্ছেন মারাও যাচ্ছেন। তাই অধিবেশনকে ঘিরে জরুরি সতর্কতা জারি করা হয়েছে। বাড়তি নিরাপত্তার জন্য টিকা গ্রহণকারীসহ অধিবেশনে অংশগ্রহণকারী সবার জন্য করোনার পরীক্ষা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। পরীক্ষায় নেগেটিভ সনদপ্রাপ্তরা অধিবেশনে অংশ নিতে পারবেন। এই সনদের মেয়াদ থাকবে ৪৮ ঘণ্টা।

আরও পড়ুন : বিএনপির রাজনৈতিক-সাংগঠনিক কার্যক্রম স্থগিত

এদিকে, আজকের এই সংসদ অধিবেশন নির্বিঘ্ন করতে কিছু নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে ঢাকা মেট্টোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)। ডিএমপি কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে ৩১ মার্চ রাত ১২টা থেকে সংসদ এলাকায় সব ধরনের অস্ত্র, বিস্ফোরক দ্রব্য, অন্যান্য ক্ষতিকারক ও দূষণীয় দ্রব্য বহন এবং যেকোনো ধরনের সমাবেশ, মিছিল, শোভাযাত্রা, বিক্ষোভ প্রদর্শন নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

এ ছাড়া চলমান করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের কারণে অধিবেশন কভার করতে সংসদে ঢুকতে পারবেন না সাংবাদিকরা। তবে অধিবেশন চলার সময় ছাড়া অন্য যেকোনো সময় সেখানে সাংবাদিকদের প্রবেশে কোনো বাধা নেই। সংসদের গণসংযোগ অধিশাখার পরিচালক মো. তারিক মাহমুদ স্বাক্ষরিত একপত্রে এ তথ্য জানানো হয়।

চিঠিতে বলা হয়, বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় একাদশ জাতীয় সংসদের দ্বাদশ অধিবেশন শুরু হবে। জাতীয় সংসদে উপস্থিত থেকে এত দিন সংসদ অধিবেশনের সংবাদ সংগ্রহ করেছেন। বর্তমানে করোনা পরিস্থিতিতে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে দ্বাদশ অধিবেশনে জাতীয় সংসদ সচিবালয় সাংবাদিকদের কার্ড ইস্যু করছে না।

বাংলাদেশ টেলিভিশন বা সংসদ বাংলাদেশ টেলিভিশন বা বাংলাদেশ বেতার থেকে ফিড নিয়ে জাতীয় সংসদের কার্যক্রম কাভার করার অনুরোধ জানানো হয়েছে।

সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানান, গতকাল বুধবার ৫২ জন করোনায় মারা যান। দিন দিন পরিস্থিতি খারাপ হচ্ছে। সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতা থাকায় দ্বাদশ অধিবেশন আজ বৃহস্পতিবার শুরু হচ্ছে। এর আগে সংসদের একাদশ ও শীতকালীন অধিবেশন ১৮ জানুয়ারি শুরু হয়েছিল। এটি শেষ হয় ২ ফেব্রুয়ারি। এই অধিবেশনের কার্যদিবস ছিল ১২টি। সংবিধান অনুযায়ী একটি অধিবেশন শেষ হওয়ার ৬০ দিনের মধ্যে আরেকটি অধিবেশন বসতে হয়।

এদিকে, সাধারণত কার্যউপদেষ্টা কমিটির বৈঠকে অধিবেশনের মেয়াদ ঠিক করা হলেও করোনা মহামারির কারণে গত পাঁচটি অধিবেশনের মতো এবারও ওই কমিটির বৈঠক হচ্ছে না। সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে আলাপ করে স্পিকার অধিবেশনের মেয়াদ ও কার্যসূচি চূড়ান্ত করবেন। তবে জুন মাসের প্রথম সপ্তাহে বাজেট অধিবেশন থাকায় এই অধিবেশন আগামী সপ্তাহেই শেষ হবে বলে আশা করা হচ্ছে। এই অধিবেশন চলাকালে সংসদ ভবনে প্রবেশের ক্ষেত্রে করোনা নেগেটিভ সনদ বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। আর অধিবেশন কক্ষে প্রবেশের ক্ষেত্রে করোনা নেগেটিভ সনদের মেয়াদ থাকবে ৪৮ ঘণ্টা। এরপর আবারও টেস্ট (নমুনা পরীক্ষা) করাতে হবে। করোনা টিকা গ্রহণকারীদেরও টেস্ট করাতে হবে। টিকা গ্রহণকারী সিলেট-৩ আসনের সংসদ সদস্য মাহমুদ-উস সামাদ চৌধুরীর করোনায় মৃত্যু এবং অনেকেই আক্রান্ত হওয়ায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো জানায়, টিকার প্রথম ডোজ নেওয়ার পরও করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালের (সিএমএইচ) আইসিইউতে চিকিৎসাধীন আছেন আইন বিচার ও সংসদবিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সভাপতি এবং সাবেক আইনমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আবদুল মতিন খসরু। টিকা নেওয়ার প্রায় দুই মাস পর করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন হবিগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য আবদুল মজিদ খান। টিকা নেওয়ার দেড় মাস পর করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন রাজবাড়ী-১ আসনের সংসদ সদস্য কাজী কেরামত আলী (৬৭), তার স্ত্রী রেবেকা সুলতানা সাজু (৬২) ও মেয়ে কানিজ ফাতিমা চৈতী (৪০)। সুনামগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ ও তার স্ত্রী বর্তমানে করোনায় আক্রান্ত। এছাড়া চলতি মাসে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন খুলনা-২ আসনের সংসদ সদস্য শেখ সালাহউদ্দিন জুয়েল, ফেনী-২ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য নিজাম উদ্দিন হাজারী এবং মৌলভীবাজার-২ (কুলাউড়া) আসনের সংসদ সদস্য সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমদ।

জানতে চাইলে জাতীয় সংসদের হুইপ পঞ্চানন বিশ্বাস জানান, গত ৫টি অধিবেশনের মতো এবারের অধিবেশনও স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে পরিচালনা করা হবে। প্রতিটি কার্যদিবসে ৭০-৮০ জন সংসদ সদস্যের উপস্থিতি নিশ্চিত করা হবে। তবে নতুন নির্দেশনার কারণে অধিবেশনে যোগ দিতে একাধিকবার টেস্ট করানোর প্রয়োজন পড়বে।

তিনি আরো জানান, করোনা ঝুঁকি এড়াতে আগের অধিবেশনগুলোর মতো মাঝখানে গ্যাপ দিয়ে দিয়ে আসন বিন্যাস করা থাকবে। সংসদ অধিবেশন চলাকালে দায়িত্বরত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের করোনাভাইরাস পরীক্ষা করাতে হবে।

এদিকে সংসদ অধিবেশনকে সামনে রেখে জাতীয় সংসদের মেডিকেল সেন্টারের দ্বিতীয় তলায় করোনাভাইরাসের নমুনা পরীক্ষার (করোনা টেস্ট) কার্যক্রম শুরু হয়েছে। কিন্তু সেখানে চলছে চরম অব্যবস্থাপনা। গত সোমবার সংসদ মেডিকেল সেন্টারে গিয়ে ছোট্ট ঘরে অর্ধশতাধিক মানুষের ভিড় দেখা যায়। সেখানে সকাল ১০টা থেকে করোনা টেস্ট শুরু হয়েছে। মন্ত্রী, এমপি থেকে শুরু করে সংসদের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা সেখানে নমুনা দিচ্ছেন। কিন্তু সেখানে কোনো শৃঙ্খলা নেই বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

মেডিকেল সেন্টারের পরিচালক ডা. মাহমুদা খানম সিদ্দীকা এ প্রসঙ্গে বলেন, সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী নমুনা নেওয়া হচ্ছে। এই নমুনা পরীক্ষার ফল ৪৮ ঘণ্টা কার্যকর থাকবে। অধিবেশন শেষ না হওয়া পর্যন্ত নমুনা সংগ্রহ চলবে।

সেখানে কথা হয় সাবেক হুইপ শহীদুজ্জামান সরকার ও সংসদ সদস্য মো. আক্তারুজ্জামান বাবুর সঙ্গে। তারা জানান, আগে অধিবেশনের আগে একবার নমুনা পরীক্ষা করালেই হতো। নতুন নির্দেশনার কারণে এই অধিবেশনে একাধিকবার করাতে হবে।

পাসের অপেক্ষায় আছে ১০টি বিল : সংসদের দ্বাদশ অধিবেশনে পাসের অপেক্ষায় রয়েছে ১০টি বিল। এর মধ্যে একটি বিল পুরোনো ও ৯টি নতুন। ‘আয়োডিনযুক্ত লবণ বিল-২০২১’ নামের বিলটি গত ২১ জানুয়ারি সংসদে উত্থাপনের পর শিল্প মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতে পাঠানো হয়েছে। আর সংসদে উত্থাপনের অপেক্ষা থাকা বিলগুলো হচ্ছে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র কল্যাণ ট্রাস্ট বিল-২০২১, বাংলাদেশ হাউস বিল্ডিং ফাইন্যান্স করর্পোরেশন (অ্যামেন্ডমেন্ট) বিল-২০২১, ব্যাংকার বহি সাক্ষ্য বিল-২০২১, বাংলাদেশ টুর অপারেটর ও টুর গাইড (নিবন্ধন ও পরিচালনা) বিল-২০২১, মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ বিল-২০২১, শিশু দিবাযত্ন কেন্দ্র বিল-২০২১, মেডিকেল ডিগ্রি (রিপেল) বিল-২০২১, মেডিকেল কলেজ (গভর্নিং বডিস) (রিপেল) বিল-২০২১ এবং হজ ও ওমরাহ ব্যবস্থাপনা বিল-২০২১।

উল্লেখ্য, বিল পাস ছাড়াও এই অধিবেশনে স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তি (সুবর্ণজয়ন্তী) উপলক্ষে সাধারণ আলোচনা হতে পারে। অধিবেশনের প্রথম দিনে সংসদ সদস্য মাহমুদ-উস সামাদ চৌধুরীর মৃত্যুতে সংসদে শোক প্রস্তাব নিয়ে আলোচনা শেষে অধিবেশন মূলতবি করা হবে। অধিবেশনটি ৫ এপ্রিল পর্যন্ত চলতে পারে।

সূত্র : প্রতিদিনের সংবাদ
এন এইচ, ০১ এপ্রিল

Back to top button