Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শনিবার, ৬ জুন, ২০২০ , ২৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

গড় রেটিং: 3.0/5 (4 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৮-১০-২০১৩

মিতা হকের যে বক্তব্য নিয়ে বিতর্কের ঝড়!


	মিতা হকের যে বক্তব্য নিয়ে বিতর্কের ঝড়!

ঢাকা, ১০ আগষ্ট- একাত্তর টিভিতে কী বলেছিলেন বরীন্দ্র সঙ্গীত শিল্পী মিতা হক? যে বক্তব্য নিয়ে সাইবার জগতে আলোচনার ঝড় বইছে। মিতা হকের সেই বক্তব্য আমরা পাঠকদের জন্য তুলে ধরলাম। এ নিয়ে সাইবার জগতে নানা মন্তব্য এসেছে। অযথা বিতর্ক এড়াতে সে প্রসঙ্গটি এড়িয়ে যাওয়া হয়েছে সচেতনভাবেই।

ওই আলোচনায় মিতা হক বলেন, ‘এই সরকারই একমাত্র দল যারা অসাম্প্রদায়িক রাষ্ট্রের কথা বলছে। আমাদের একটি আইডেন্টিটি ক্রাইসিস আছে। আমাদের দেশ বাংলাদেশ। এখানে বিভিন্ন ধরনের লোক বাস করে। এই দেশে শুধুমাত্র আদিবাসীরাই আদিবাসী কিন্তু বাংলাদেশি। বাকি সবাই কিন্তু আমরা বাঙালি। যারা, ঈদের দুইদিন পরে হরতাল ডেকেছে। তারা পরিচিত ধর্মীয় সংগঠন হিসেবে। আমি বলছি, আমাদের পরিস্কার একটি জায়গা, রেখা আছে। আমার ধর্মের চর্চা, ধর্মের কাজ সেভাবে করবো এবং আমার একটা কমন পরিচয় থাকবে (বাঙালি)।
 
তিনি বলেন, ‘আজকে তুমি (সঞ্চালক মিথিলা ফারজানা) আর আমি শাড়ি পড়ে বসেছি। মামুন ভাই (নাট্যব্যক্তিত্ব মামুনুর রশিদ), তারিক ভাই (নাট্যব্যক্তিত্ব তারিক আনাম) পাঞ্জাবি পড়ে বসেছে। কেউ দাড়ি-টুপি লাগিয়ে নেই। কেউ লম্বা সিঁদুর পড়েও নেই। কেউ হিন্দু, শিখ। আমাদের কমন পরিচয় আছে। ছেলেরা একরকম পোশাক পরবে, মেয়েরা একরকম পরবে।’
 
তিনি বলেন, ‘আমাদের না আইডেন্টি ক্রাইসিসটা এতো বাজে। আজকাল বাংলাদেশে রাস্তায় বেরিয়ে, কোনো ডাক্তারখানায় বা হাসপাতালে গিয়ে, যেখানে একটু লোকজনের সমাগম বেশি, যেখানে ওয়েটিং রুম আছে, লোকজন অপেক্ষা করছে, সেখানে দেখি যে, একমাত্র আমিই বাঙালি। আমি শাড়ি পড়ে গেছি আর আমার মাথায় ঘোমটা নেই। আজকাল তারা এইটুকু মুখ (নেকাব বা হিজাবের শুধু চোখ ছাড়া সম্পূর্ণ মুখ ঢাকা ) বের করে রাখছে। এতে তারা আর যাইহোক বাঙালি নয়।’
 
ওই টকশোতে তিনি বিএনপি-জামায়াতের সমালোচনা করে বলেন, ‘বিএনপি আর জামায়াত, ওদেরতো একটাই অস্ত্র মিথিলা; মিথ্যা কথা বলা, ইতিহাস বিকৃত করা। যারা হেফাজতে ইসলামের মঞ্চে গিয়ে শরবত খাওয়ান। তারা নতুন নতুন অশ্লীল সিডি তৈরি করে গ্রামগঞ্জে বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্রজেক্টর নিয়ে, ইলেক্ট্রিক যন্ত্র নিয়ে দেখিয়েছে। আমরা যারা বর্তমান সরকারের সমর্থক, কিছুটা হলেওতো সমর্থন আছে, কারণ তারা (ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ) মূল বিষয়ে একমত আমাদের সঙ্গে। তারা (আওয়ামী লীগ) অসাম্প্রদায়িক এবং যুদ্ধাপরাধীদের বিচার করবে। এক্ষেত্রে আমি অবশ্যই স্বীকার করবো আমি এ দলকে (আওয়ামী লীগ) সমর্থন করি। আমার ভয় নেই। তাদের ভালো কাজের প্রচার হয়নি। তাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা বানোয়াট ভিডিও ফিল্ম এবং ওয়াজ গ্রামগঞ্জে প্রচার হয়েছে।’
 
এ সময় অভিনেতা তারিক আনাম মিতা হকের বক্তব্যের প্রেক্ষিতে বলেন, ‘ওরা (বিএনপি-জামায়াত) পলেটিক্যাললি অগ্রসর হচ্ছে। তাহলে তোমরা যাকে (ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ) সমর্থন করছো তারা পলিটিক্যাললি অগ্রসর হয়নি কেন? এর জবাবে মিতা হক বলে ওঠেন ‘ওরা মেধাহীন।’
 
শুক্রবার রাত ৮টায় একাত্তর টিভিতে ‘সংস্কৃতিজনের রাজনীতি ভাবনা’ শীর্ষক এক টকশোতে মিতা হক বাঙালিয়ানা নিয়ে এমন মন্তব্য করেন। মিথিলা ফারজানার উপস্থাপনায় টকশোতে মিতা হক ছাড়াও আরও উপস্থিত ছিলেন নাট্যকার মামুনুর রশীদ ও অভিনেতা তারিক আনাম খান।

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে