Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শুক্রবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০১৯ , ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.3/5 (6 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)


আপডেট : ০৪-২৩-২০১৭

শাকিব-অপুর সংসার ভাঙার চেষ্টায় প্রশ্নবিদ্ধ পরিচালক!

শাকিব-অপুর সংসার ভাঙার চেষ্টায় প্রশ্নবিদ্ধ পরিচালক!

ঢাকা, ২৩ এপ্রিল- দীর্ঘ নয় বছরের আড়াল ভেঙে সন্তানসহ বিয়ের কথা প্রকাশ্যে আনেন চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস। তিনি জানান, ২০০৮ সালের ১৮ এপ্রিল ভালোবেসে বিয়ে করেছিলেন চিত্রনায়ক শাকিব খানকে। এই খবরে বিস্ময়ে চমকে গিয়েছিলো সারাদেশের চলচ্চিত্রের মানুষেরা। অপুর প্রতি সমবেদনায় শাকিবের বিবেক-মানসিকতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন। 

অনেক জল ঘোলা করে সেই বিয়ের কথা স্বীকার করেন শাকিব। স্বীকৃতি দেন স্ত্রী-পুত্রের। স্ত্রী অপু ও ছয় মাসের শিশুপুত্র আব্রাম খান জয়কে নিয়ে একসঙ্গে এবারের নববর্ষও উদযাপন করেন দেশের এক নম্বর নায়ক বলে খ্যাত শাকিব। কথা ছিলো গেল ১৮ এপ্রিল তারা প্রথমবারের মত প্রকাশ্যে বিয়েবার্ষিকীও পালন করবেন। কিন্তু সব চিত্র পাল্টে দিয়ে শাকিব ১৭ এপ্রিল ছুটলেন পাবনায়, ‘রংবাজ’ ছবির শুটিং করতে। যা শাকিব-অপুর দাম্পত্য জীবনের ভিত্তিকে দুর্বল প্রমাণ করেছে সবার কাছে।

এমনিতেই অপুকে মেনে নেয়ার স্পষ্টতা নিয়ে শুরু থেকেই গুঞ্জনের শিকার হয়েছেন শাকিব। স্পষ্ট করে অপুকে তিনি মেনে নেয়ার ঘোষণা কোথাও দেননি। পাশাপাশি অপুর অভিনয় করা নিয়ে আপত্তি তুলেও তিনি সমালোচনার জন্ম দেন। সেইসঙ্গে অপুর ঘোর আপত্তি থাকা সত্বেও বুবলীর সঙ্গে ছবি করার ব্যাপারে শাকিবের অত্যাধিক আগ্রহও ভাবিয়ে তুলেছে সবাইকে। যদিও শেষ পর্যন্ত কৌশলে শাকিব তার স্ত্রী অপুকে বশ করতে পেরেছেন বুবলী প্রসঙ্গে। যে বুবলীকে কেন্দ্র করে স্বামীর আদেশ অমান্য করে পুত্রসহ প্রকাশ্যে এলেন অপু সেই বুবলীকেই তিনি নিজের সবচেয়ে আপন মানুষ দাবি করে গণামাধ্যমে মন্তব্য করেছেন। 

সব হিসেব মিলিয়ে চলচ্চিত্রসংশ্লিষ্টরা বলছেন, শাকিব-অপুর সংসার চোখের দেখার তৃপ্তি নিয়ে টিকে আছে। তবে ভবিষ্যত কী হবে তা বলা মুশকিল। এই সংসারে ভাঙনটাও অস্বাভাবিক কিছু হবে না। যদিও সবাই ইন্ডাস্ট্রির স্বার্থে শাকিব-অপুর দাম্পত্যজীবন সুখী হওয়া উচিত বলে মনে করেন ও শুভকামনা জানিয়েছেন।

আর দুই তারকার সংসার ভাঙার যে আশংকা বা গুঞ্জন উঠেছে তার পেছনের নাটের গুরু হিসেবে উঠে আসছে তরুণ চিত্রপরিচালক শামীম আহমেদ রনির নাম। শাকিব-অপুর একসঙ্গে সুখে থাকাটা যেন ঠিক কোনো এক অজানা কারণে মেনে নিতে পারছেন না ‌‘বসগিরি’ ছবির পরিচালক। 

ইন্ডাস্ট্রিতে বলা হয়ে থাকে নানা ছল ছাতুরীতে শাকিবকে তিনি বশ করেছেন। সেই ছল ছাতুরীর একটা টোপ ধরা হচ্ছে বুবলীকেও। কোনো একটা গভীর ফাঁদে শাকিবকে আটকে রনি নিজের ইচ্ছে মতো নিয়ন্ত্রণ করছেন কিং খানকে। বেশ কিছু কারণেই এই ধারণা প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। 

তবে ধারণাটি মজবুত হয় যখন শাকিব অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি থাকার পরও পুরোপুরি সুস্থ না হয়ে হাসপাতাল ত্যাগ করে বুবলীকে নিয়ে নির্মিতব্য ‘রংবাজ’ ছবির মহরতে যোগ দেন। চলচ্চিত্রপাড়ার অনেকেই আলোচনায় আনেন তখন বিষয়টি। সবার প্রশ্ন, যে শাকিব সুস্থ অবস্থাতেই সাধারণত কোনো ছবির মহরতে যান না, ঠিকমত শুটিং স্পটে যান না সেই শাকিব কীসের টানে হাসপাতালে ভর্তি থাকা রোগী হয়েও মহরতের জন্য ছুটে যান! পুরোপুরি সুস্থ না হয়েও শাকিব কেন শুটিংয়ে অংশ নিলেন। মহরত এবং ছবির শুটিং টাইম চাইলেই তো পেছাতে পারতেন পরিচালক। তবে কেন এত তাড়াহুড়ো?

একে শরীর খারাপ। তার উপর নয় বছর লুকিয়ে রাখা বিয়ের খবর প্রকাশ্যে আসায় বিধ্বস্ত মানসিকতা। সবকিছু সামলে উঠতে শাকিবের প্রয়োজন ছিলো স্ত্রী-পুত্রের সান্নিধ্য। তা উপেক্ষা করে শাকিব ছুটে গেলেন বুবলীকে নিয়ে রনির সেটে, পাবনায়। এমনকি বিয়েবার্ষিকীও প্রাধান্য পেল না শাকিবের কাছে! অথচ বেশ কিছু গণমাধ্যমে শাকিব-অপু জানিয়েছিলেন, দুই পরিবারের লোকদের নিয়ে তারা প্রকাশ্যে আসার পর প্রথম বিয়েবার্ষিকী পুত্রের সঙ্গে হৈ চৈ করে কাটাবেন। কিন্তু শেষাবধি শাকিব দিনটি কাটালেন ‘রংবাজ’ ছবির সেটে। তার স্ত্রী-পুত্র রইলো ঢাকায়। নিজের জন্মের পর বাবা-মায়ের প্রকাশ্যে প্রথম বিয়েবার্ষিকীতে বাবা ও মাকে একসঙ্গে পেল না জয়। অথচ তার বাবা নিজেকে সুপারস্টার দাবি করেন যত্রতত্র। একজন সুপারস্টার চাইলে তো ভিনেদেশ থেকেও এক দিনের ছুটি নিয়ে স্ত্রী-পুত্রকে সময় দিয়ে যেতে পারতেন। আর শাকিব নিজেই ঢাকা থেকে দূরে সরে গেলেন। অপুর থেকে শাকিবের আলাদা হওয়া নিয়ে অনেক গুজব-গুঞ্জন। কেউ একজন চায় না শাকিব-অপুর একসঙ্গে থাকাটা। 

সেই একজনের হয়ে কাঠি নাড়ছেন পরিচালক রনি। সবকিছুকে উড়িয়ে দিয়ে, অস্থির একটা সময়ে তিনি শাকিবকে বাধ্য করেছেন অপু বিশ্বাসের কাছ থেকে আলাদা থাকতে। কিন্তু কেন? কী স্বার্থ রনির? উঠে আসছে অনেক জবাব। অপেক্ষা কেবল প্রমাণের। সেইসব ভাবনা-প্রমাণ সত্যি হলে ইন্ডাস্ট্রি আরও একটি বিরাট ধাক্কার মুখোমুখি হতে যাচ্ছে বলেই অভিমত চলচ্চিত্রসংশ্লিষ্টদের। 

ক্যারিয়ারে এখন পর্যন্ত তিনটি ছবি মুক্তি পেয়েছে রনির। তিনটি ছবিই সুপার ফ্লপ। কিন্তু অন্যের সংসারে ঝামেলা লাগানোর বিষয়ে তিনি সুপারহিট বলেই গণ্য হচ্ছেন। শুধু তাই নয়, নিজের সংসার জীবন নিয়েও বিতর্কের জন্ম দিয়েছেন রনি। তার স্ত্রী তমার অভিযোগ, তাকে ডিভোর্স না দিয়েই ‘সুবর্ণ’ নামের একটি মেয়ের সঙ্গে অবৈধ সম্পর্ক গড়ে তুুলেছেন রনি। সেই প্রেমিকাকে নিয়ে শারীরিক ও মানসিক অত্যাচার করেছেন তিনি তমার উপর। খুব শিগগিরই তমা শামীম আহমেদ রনির বিরুদ্ধে নারী নির্যাতনের মামলা করবেন বলে জানিয়েছেন।

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে