Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, সোমবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ , ১২ ফাল্গুন ১৪২৬

গড় রেটিং: 4.0/5 (2 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ১০-০৪-২০১২

হলমার্কের তানভীরসহ ২৭ জনের বিরুদ্ধে দুদকের মামলা


	হলমার্কের তানভীরসহ ২৭ জনের বিরুদ্ধে দুদকের মামলা

হলমার্ক গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তানভীর মাহমুদ ও সোনালী ব্যাংকের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক হুমায়ুন কবিরকে প্রধান আসামি করে মোট ২৭ জনের নামে মামলা দায়ের করছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। রমনা থানায় হলমার্ক কেলেঙ্কারীর ঘটনায় দুদক থেকে মোট ১১টি আলাদা মামলা দায়ের করা হয়। থানার ডিউটি অফিসার এসআই শাহজাহান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। ঘটনাটি রমনা থানাধীন হওয়ায় ওই মামলা সেখানে দায়ের করা হয়। মামলা নম্বর ৮ থেকে ১৮। মামলায় সোনালী ব্যাংকের ২০ জন ও হলমার্কের সাতজনকে আসামি করা হয়েছে। রাষ্ট্রায়ত্ব সোনালী ব্যাংকের রূপসী বাংলা (সাবেক শেরাটন) শাখা থেকে ভুয়া এলসির মাধ্যমে ঋণ জালিয়াতির ঘটনায় এ মামলা দায়ের করে দুদক। আজ দুপুরে ওই মামলা হয়। দুদকের প্রধান অনুসন্ধান কর্মকর্তা ও জ্যেষ্ঠ উপ-পরিচালক মীর জয়নুল আবেদীন শিবলীসহ অনুসন্ধান টিমের অপর ৫সদস্য রমনা থানায় বাদী হয়ে এসব মামলা দায়ের করেন। মামলায় প্রধান আসামি করা হয়েছে - হলমার্ক গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তানভীর মাহমুদ, তানভীরের স্ত্রী ও গ্রুপের চেয়ারম্যান জেসমিন ইসলাম, তানভীরের ভায়রা ও গ্রুপের জিএম তুষার আহমেদ, সোনালী ব্যাংকের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক হুমায়ুন কবির, ব্যাংকের রূপসী বাংলা শাখার সাবেক ডিজিএম একেএম আজিজুর রহমান, একই শাখার এসইও সাইফুল হাসান, ইও আবদুল মতিন, মেহেরুন্নেসা মেরী, জাহাঙ্গীর আলম, ব্যাংকের ডিএমডি মাইনুল হক, আতিকুর রহমান, জিএম নওশের আলী খন্দকার, মাহবুবুল হক, আনম মাসরুরুল হুদা সিরাজী, মোস্তাফিজুর রহমান, ননীগোপাল নাথ, মীর মহিদুর রহমান, মো. আবুল হাসান, শেখ আলতাফ হোসেন, ওয়াহিদ্দুজ্জামান, মো. শফিজউদ্দিন আহমেদ, কামরুল হোসেন খান, সবিতা সিরাজ, ভগবতী মজুমদার, মীর জাকারিয়া, খুরশীদ আলম, জিয়াউর রহমান ও শহিদুল ইসলাম।এদিকে জানা গেছে, এজাহারের উল্লেখ রয়েছে, ভুয়া এলসির মাধ্যমে সোনালী ব্যাংকের রূপসী বাংলা শাখা থেকে ফান্ডেড ১ হাজার ৫৬৮ কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছে হলমার্ক গ্রুপ। ব্যাংকটির কর্মকর্তাদের যোগসাজশে বিপুল পরিমাণ টাকা আত্মসাৎ করে গ্রুপটি। আত্মসাতের ঘটনায় হলমার্কের ৬ এবং সোনালী ব্যাংকের ২১ ব্যক্তি জড়িত থাকার কথা উল্লেখ করা হয়েছে এজাহারে।
সোনালী ব্যাংকের রূপসী বাংলা হোটেল (সাবেক শেরাটন) শাখা থেকে হলমার্ক কর্তৃক স্বীকৃত বিলের বিপরীতে পরিশোধ করা হয়েছে (ফান্ডেড) সেই পরিমাণ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ অনুসন্ধানে প্রমাণীত হওয়ায় এ মামলা করে দুদক। রূপসী বাংলা শাখা থেকে হলমার্ক গ্রুপসহ ৬টি কোম্পানি আত্মসাৎ করেছে মোট ৩ হাজার ৫৪৭ কোটি টাকা। এর মধ্যে হলমার্ক এককভাবে আত্মসাৎ করেছে ২ হাজার ৬৮৬ কোটি ১৪ লাখ টাকা। অনুসন্ধান কমিটি সোমবার সংশ্লিষ্ট মহাপরিচালকের কাছে রিপোর্ট দেন। মঙ্গলবার কশিনের কাছে রিপোর্ট জমা দেয়ার পর তা নিয়ে আলোচনা হয়। কমিশন রিপোর্ট পর্যালোচনা করে ১১ মামলার অনুমোদন প্রদান করে। আজ কমিশনের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী মামলা দায়ের করে দুদক।
দুদক চেয়ারম্যান বুধবার বলেছিলেন, রূপসী বাংলা শাখা থেকে ‘নন ফান্ডেড’ ১ হাজার ৫৬৮ কোটি টাকা আত্মসাতের বিষয় উঠে এসেছে প্রতিবেদনে। সেই আলোকে মামলাগুলোর অনুমোদন দেয়া হয়েছে। অনুসন্ধান অব্যাহত থাকবে। ২৬টি ব্যাংকের ৬১টি শাখার সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদেরও বক্তব্য নেয়া হবে। পরে পর্যায়ক্রমে সোনালী ব্যাংকের রূপসী বাংলা শাখা থেকে জালিয়াতির মাধ্যমে টাকা নেয়া অপর চারটি প্রতিষ্ঠানসহ অনুসন্ধানে বের হয়ে আসা অন্য ব্যক্তিদের বিরুদ্ধেও মামলা করা হবে।

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে