Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, বৃহস্পতিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০ , ৯ আশ্বিন ১৪২৭

গড় রেটিং: 3.0/5 (7 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৯-২৮-২০১২

হতাশা বাড়ায় ধমনীর রোগের ঝুঁকি 

হতাশা বাড়ায় ধমনীর রোগের ঝুঁকি 

মারাত্মকভাবে হৃদরোগে আক্রান্ত অনেকের ফুসফুসে তরল পদার্থ জমে। এসব মানুষ মাঝে মাঝে শ্বাসরুদ্ধ হয়ে মারা যাচ্ছেন। এ ধরনের অনুভূতির সম্মুখীন হন। বৃটিশ হার্ট ফাউন্ডেশনের এক গবেষণায় এ তথ্য জানানো হয়েছে।
বৃটিশ হার্ট ফাউন্ডেশনের গবেষক ড. মাইক ন্যাপটন বলেন, হৃদরোগে আক্রান্ত অনেক লোক বিভিন্ন ওষুধের কারণে হার্টস্ট্রোক থেকে বেঁচে যান কিন্তু এটা তাদের বিভিন্ন সমস্যায় ফেলে দেয়, যা তারা জানেন না। এর ফলে মানুষের ।

ফুসফুসে তরল পদার্থ জমতে পারে-যা মানুষকে মাঝে মাঝে শ্বাসরুদ্ধ করে দেয়, এমনকি ওই সময় চেয়ার কিংবা বিছানায় শুয়ে থাকলে ওঠার শক্তিও পান না তারা।
মানুষের হৃদযন্ত্রের কোষগুলো পুনরুৎপাদন করা যায় না। স্টেমসেল গবেষণার মাধ্যমে এ বিষয়ে গবেষণা করলে উল্লেখযোগ্য আগ্রগতি হতে পারে বলে মন্তব্য করেন মাইক ন্যাপটন।
গবেষণায় দেখা যায়, ৮০ শতাংশ মানুষ হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার পর এর প্রভাব সম্পর্কে অসচেতন। বৃটেনে হৃদরোগে আক্রান্ত মোট সাড়ে সাত লাখ মানুষ রয়েছেন। এসব মানুষের হৃদযন্ত্র ও শরীরের সবস্থানে স্বাভাবিকভাবে রক্ত চলাচল করতে পারে না, যা হার্টস্ট্রোকের অন্যতম কারণ।

দুই হাজার ১৭০ জনের ওপর গবেষণা চালিয়ে দেখা যায়, তাদের মধ্যে ৩৩ শতাংশ মনে করেন, হার্টস্ট্রোকে হৃদযন্ত্র বন্ধ হয়ে যায়। অন্যদিকে অবিশ্বাস্য হলেও সত্য যে, ৩৩ শতাংশ মনে করেন, হৃদযন্ত্রে সমস্যা হলেও তা নিজে নিজে ঠিক হয়ে যায়।

 

সচেতনতা

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে