Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, মঙ্গলবার, ২১ জানুয়ারি, ২০২০ , ৮ মাঘ ১৪২৬

গড় রেটিং: 1.6/5 (38 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৯-২১-২০১২

হলমার্কের জিএম তুষারের অলৌকিক উত্থান


	হলমার্কের জিএম তুষারের অলৌকিক উত্থান

তুষার। পুরো নাম তুষার আহমেদ। হলমার্ক গ্রুপের জিএম। সম্পর্কে হলমার্ক গ্রুপের এমডি তানভীর মাহমুদ তফসীরের ভায়রা। হলমার্কের টাকায় ফুলে-ফেঁপে উঠেছেন। মিরপুরের দারুস সালাম থানার আনন্দনগর, বর্ধনবাড়ী, গোলার টেক এলাকায় আকাশছোঁয়া ভবন, অর্ধডজন ফ্ল্যাট ও প্লটের পর জমি। এলাকায় তিনি ঘোষণা দিয়েছেন, ওই এলাকায় ১শ’টি বাড়ি বানাবেন। তুষার আহমেদের অলৌকিক উত্থানে হতবাক মহল্লাবাসীর হিসাব মিলেছে হলমার্ক কেলেঙ্কারি ফাঁস হয়ে যাওয়ার পর। ছ’মাস আগের একটি ঘটনা এখনও এলাকাবাসীর মুখে মুখে। তুষার আহমেদের প্রথম সন্তানের প্রথম জন্মদিনে দাওয়াতে এসেছিলেন ৫ হাজার অতিথি। সে অনুষ্ঠানে সরকারের একজন উপদেষ্টা  এবং সোনালী ব্যাংক পরিচালনা পর্ষদের এক সদস্যকে উপস্থিত দেখে হিসাব মেলাতে পারছিলেন না এলাকার মানুষ। মিরপুর দারুস সালাম থানার বর্ধনবাড়ী এলাকার মানুষের কাছে অতিপরিচিত তুষার বেড়ে উঠেছেন ওই এলাকাতেই। এখানেই কারমাইকেল সড়কে দু’রুমের একটি টিনশেড ঘরে ভাড়া থাকতেন তুষারের পিতা। বর্ধনবাড়ী এলাকার সিদ্ধান্ত হাইস্কুলে এসএসসি পর্যন্ত পড়াশোনা করেছেন তুষার।
তুষারদের আদি বাড়ি মানিকগঞ্জ জেলার সিঙ্গাইর উপজেলায়। পিতা মমিন মিয়া চাকরি করতেন একটি দৈনিক পত্রিকায় প্রুপ রিডার হিসেবে। বছর খানেক ধরে অবসরে গেছেন। একটি সূত্র জানিয়েছে, সোনালী ব্যাংক থেকে হলমার্ক গ্রুপের বিশাল অঙ্কের অর্থ হাতিয়ে নেয়ার পেছনে কলকাঠি নেড়েছেন তুষারও। তুষারের পিতা মমিন মিয়া যে প্রতিষ্ঠানে চাকরি করতেন ওই প্রতিষ্ঠানের এক বড় কর্মকর্তা এখন সোনালী ব্যাংক পরিচালনা পর্ষদের প্রভাবশালী সদস্য, তার সঙ্গে দহরম-মহরম সম্পর্ক তুষারের পরিবারের। সোনালী ব্যাংক থেকে হলমার্কের টাকা পেতে ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদে বিশেষ প্রভাব খাটান ওই সদস্য।
২০০৯ সালে সোনালী ব্যাংক থেকে হলমার্ক গ্রুপ বিশাল অঙ্কের অর্থ হাতিয়ে নেয়ার পর থেকে তানভীরের মতোই রাতারাতি ফুলে-ফেঁপে ওঠেন তানভীরের ভায়রা হলমার্ক গ্রুপের জিএম তুষার আহমেদ। তানভীরও অনেকটা নির্ভরশীল হয়ে পড়েন তার ওপর। জমি দখল থেকে শুরু করে সন্ত্রাসী লালন, নানা প্রকার ঝামেলা থেকে তানভীরকে রক্ষা করে  ডিবি পুলিশের একটি চৌকস টিমের সদস্য তুষারের বড় ভাই। কোন ঝামেলা বাঁধলেই তানভীর পরিবার নিয়ে ওঠেন তুষারের আনন্দনগর এলাকার বাড়িতে।
মিরপুরের বর্ধনবাড়ী এলাকার তিন ব্যবসায়ী বন্ধু জানালেন, তারা পাঁচ বন্ধু মিলে এলাকায় টুকটাক জমি কেনা-বেচার কারবার করতেন, হঠাৎ করে তুষার অঢেল টাকার মালিক বনে যাওয়ায় তাদের সে ব্যবসা এখন বন্ধ। তাদের চেয়ে দ্বিগুণ দামে জমি কিনে নিয়েছেন তুষার। তুষারের বাড়িতে ক্ষমতাসীন দলের প্রভাবশালী ও পরিচিত নামী মিডিয়া ব্যক্তিদের আসা-যাওয়ায় তাকে কিছু বলার সাহস নেই তাদের।
দারুস সালাম থানার আনন্দনগরে নতুন আলিশান এক ভবনের মালিক তুষার আহমেদ। এখনও নির্মাণ সম্পন্ন হয়নি বাড়িটির। নির্মাণ হয়েছে ছ’তলা পর্যন্ত। উপরতলা সাজানো হয়েছে বিশেষভাবে অনুষ্ঠান আয়োজন করতে। পুরো ছ’তলা বাড়িতে থাকেন নিজেরাই। শূন্য পড়ে থাকা ফ্লোরগুলোও ভাড়া দেয়া হয়নি। বর্ধনবাড়ী এলাকায় উঠছে আরেকটি বহুতল ভবন। নির্মাণাধীন ওই ভবনের পাশের বাড়ির মালিক জানালেন, তুষার আহমেদ একদিন গল্পে গল্পে বলছিলেন নতুন এ ভবন হবে ১২ তলা।  মিরপুর এলাকায় ৬টি ফ্ল্যাটের মালিক তুষার আহমেদ। ফ্ল্যাট ছাড়াও আছে একাধিক জমির প্লট। বর্ধনবাড়ী এলাকার  মাদ্‌রাসা সংলগ্ন ৭ কাঠা জমির মালিক তিনি। এছাড়াও হরিরামপুর মহল্লায় আছে ৭ কাঠা ও ৬ কাঠার দু’টি প্লট। সমপ্রতি গোলার টেক এলাকায় দারুস সালাম থানা থেকে ৫শ’ গজ উত্তরে দেড় কোটি টাকা দিয়ে কিনে নিয়েছেন ৫ কাঠা জমি। ওই এলাকার মুরুব্বীরা জানিয়েছেন, হলমার্কের এমডি তানভীরের সোনালী ব্যাংক থেকে হাতিয়ে নেয়া টাকাই তুষারের টাকা। হলমার্ক গ্রুপ ব্যাংকের টাকা ফেরত না দিলেও তুষারের জমি কেনা চলছেই, চলতি সপ্তাহেও তুষার  গোলার টেক এলাকায় একটি জমির বায়না করেছেন। এলাকায় চলছেন দাপটের সঙ্গে। দামি গাড়ির ধুলা উড়িয়ে এলাকা থেকে বের হন- আবার ঢোকেন, অবাক দৃষ্টিতে তাকিয়ে দেখেন মহল্লার মানুষ।

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে