Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, মঙ্গলবার, ২ জুন, ২০২০ , ১৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

গড় রেটিং: 3.0/5 (14 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৯-০৩-২০১২

কাপাসিয়া উপনির্বাচনে মনোনয়ন দাখিলের শেষ দিন সোমবার

কাপাসিয়া উপনির্বাচনে মনোনয়ন দাখিলের শেষ দিন সোমবার
গাজীপুর-৪ (কাপাসিয়া) আসনের উপনির্বাচনে মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন সোমবার। রোববার পর্যন্ত আওয়ামী লীগ, সিপিবি ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মনোনয়ন দাখিল করেছেন।
নির্বাচন কমিশন সুত্র জানিয়েছে, রোববার আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী সিমিন হোসেন রিমি, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী হিসেবে রিমির চাচা অ্যাডভোকেট আফসার উদ্দিন খান, সিপিবি মনোনীত প্রার্থী অ্যাডভোকেট আসাদুল্লাহ বাদল মনোনয়ন দাখিল করেছেন। এ আসনে মোট ১১ জন মনোনয়নপত্র নিয়েছেন।
সোমবার উপজেলা নির্বাচন অফিসে মনোয়নপত্র দাখিল করার প্রস্তুতি নিয়েছেন জাতীয় পার্টির কাপাসিয়া উপজেলা সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তফা। তিনি জাতীয় পার্টি থেকে মনোনয়ন চেয়েছিলেন। কিন্তু জাতীয় পার্টি নির্বাচনে অংশ নেওয়া থেকে বিরত থাকায় স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবেই মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন তিনি।
গাজীপুর-৪ আসনে তফসিল ঘোষণা করা হয় ২৩ আগস্ট। ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, মনোনয়ন পত্র জমা দেওয়ার শেষ তারিখ ৩ সেপ্টেম্বর, মনোনয়নপত্র বাছাই ৫ সেপ্টেম্বর, প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ১৩ সেপ্টেম্বর এবং নির্বাচন ৩০ সেপ্টেম্বর।
নির্বাচনে রিটার্নিং কর্মকর্তা থাকবেন মিহির সরওয়ার মুর্শেদ, সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা থাকবেন হাসানুজ্জামান। সম্ভাব্য ভোট কেন্দ্র ১০২ এবং সম্ভাব্য ভোট কক্ষ ৪৭২।
জাতীয় সংসদের ১৯৭ (গাজীপুর- ৪) নম্বর আসনের মোট ভোটার সংখ্যা ২ লাখ ১১ হাজার ৮৮৪। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১ লাখ ৩৯৫ ও মহিলা ভোটার ১ লাখ ১১ হাজার ৪৮৯।
গত ৭ জুলাই গাজীপুর-৪ আসনের আওয়ামী লীগ দলীয় সংসদ সদস্য তানজিম আহমেদ সোহেল তাজের পদত্যাগপত্র গ্রহণ করেন স্পিকার অ্যাডভোকেট আবদুল হামিদ। স্পিকারের কার্যালয়ে সশরীরে উপস্থিত হয়ে পদত্যাগপত্র জমা দেন তিনি।
এর আগে যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থানকালে গত ২৩ এপ্রিল সোহেল তাজ তার ব্যক্তিগত সহকারীর মাধ্যমে পদত্যাগপত্র স্পিকারের কাছে জমা দেন। কিন্তু কার্যপ্রণালী বিধি না মেনে পদত্যাগপত্র জমা দেওয়ায় স্পিকার তখন তা গ্রহণ করেননি। স্পিকার তখন বলেছিলেন- যথাযথ নিয়ম মেনে পদত্যাগপত্র জমা দিলে তা গ্রহণ করা হবে।
২০০৮ সালের নির্বাচনে গাজীপুর-৪ আসন থেকে ১ লাখ ১০ হাজার ৬৮২ ভোট পেয়ে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দিন আহমেদের ছেলে তানজিম আহমেদ (সোহেল তাজ)। তার নিকটতম বিএনপির প্রার্থী মোহাম্মদ আবদুল মুজিদ পান ৬৪ হাজার ৪৬৬ ভোট।
২০০৯ সালের ৬ জানুয়ারি শেখ হাসিনার মন্ত্রিসভায় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব নিলেও ২০০৯ সালের ৩১ মে তিনি মন্ত্রিসভা থেকে পদত্যাগ করেন। তবে সে সময় রাষ্ট্রপতি তা ‘গ্রহণ করেননি’ বলে সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়।ওই পদত্যাগপত্র জমা দেওয়ার তিন বছর পরও সোহেল তাজের ব্যাংক হিসাবে প্রতিমন্ত্রীর বেতন-ভাতা জমা হতে থাকায় গত ১৭ এপ্রিল মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে একটি চিঠি দেন তিনি।
পাশাপাশি তিনি পদত্যাগ সংক্রান্ত  প্রজ্ঞাপন জারিরও আবেদন জানান। সেই সময় থেকে তার ব্যক্তিগত হিসাবে পাঠানো বেতন-ভাতার যাবতীয় অর্থ ফেরত নেওয়ারও অনুরোধ জানানো হয় ওই চিঠিতে।

গাজীপুর

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে