Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, মঙ্গলবার, ২১ জানুয়ারি, ২০২০ , ৮ মাঘ ১৪২৬

গড় রেটিং: 4.0/5 (5 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৯-০১-২০১২

অবৈধ অস্ত্র : সীমান্তের তিনগুন বেশি দামে বিক্রি হচ্ছে রাজধানীতে

অবৈধ অস্ত্র : সীমান্তের তিনগুন বেশি দামে বিক্রি হচ্ছে রাজধানীতে
সীমান্তের তিনগুন বেশি দামে রাজধানীতে বিক্রি হচ্ছে অবৈধ অস্ত্র। রাজধানীতে সন্ত্রাসীদের প্রথম পছন্দ অস্ত্রের তালিকায় রয়েছে সেভেন পয়েন্ট সিক্স ফাইভ বিদেশী পিস্তল।
সম্প্রতি ঢাকা মহানগর পুলিশের হাতে অস্ত্রসহ এক সন্ত্রাসী আটকের পর এই তথ্য জানা গেছে। রাজধানী ছাড়াও এর অদূরে গাজীপুর ও নরসিংদীতে অস্ত্র ব্যবসায়ীরা সক্রিয় বলে প্রাপ্ত সূত্র থেকে নিশ্চিত হওয়া গেছে।  
রাজধানীর মিরপুরে শেয়ার ব্যবসায়ী জিয়া হায়দার খুনের ঘটনার মূল কিলার জিতু ওরফে ইমরানকে ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে হাজির করা হয়। পরে এক জিজ্ঞাসাবাদে জিতু জানায়, ২০১১ সালের দিকে সে অস্ত্র কেনার জন্য উদ্যোগী হয়। সে জানায়, তার প্রথম পছন্দ ছিল নাইন এমএম। এরপর সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করে সেভেন পয়েন্ট সিক্স ফাইভ পছন্দ করি।
সে জানায়, অস্ত্র কেনার জন্য যোগাযোগ হয় গাজীপুরের অস্ত্র ব্যবসায়ী আলীর সঙ্গে। পরে তার এলাকার যুবদল নেতা মিলনের কাছ থেকে ৬৫ হাজার টাকায় সে ওই অস্ত্র কেনে। বর্তমানে সন্ত্রাসীদের এই অস্ত্রই বেশি পছন্দ। কেননা এটি আকারে ছোট এবং কার্যকরী।
সৌদি কূটনৈতিক খালাফকে এই সেভেন পয়েন্ট সিক্স ফাইভ অস্ত্র দিয়েই গুলি করে হত্যা করা হয়েছিল বলে জানিয়েছিল ডিবি কর্মকর্তারা।
এছাড়া জিতুর দেওয়া তথ্য মোতাবেক এই অস্ত্র ব্যবসায়ীদের গ্রেফতারে ডিবির টিম কাজ করছে বলে জানিয়েছেন ডিবি পুলিশের পশ্চিম জোনের উপ-পুলিশ কমিশনার মশিউর রহমান।
জিতু জানায়, “৬৫ হাজার টাকায় অস্ত্র ও তার সঙ্গে ৫ টি গুলিও পাই”।
এক অনুসন্ধানে দেখা যায়, সীমান্তের গ্রাম গুলোতে যে টাকায় অস্ত্র কেনা বেচা হয় তার দ্বিগুন আবার কখনো তিনগুন বেশি দামে রাজধানীতে অস্ত্র বিক্রি হচ্ছে। আর এ কারণে সীমান্তের গ্রামের অসহায় লোকজন অস্ত্র কেনা বেচা কিংবা বাহনের সাথে জািড়য়ে পড়ছে।
জিতুর দেওয়া  তথ্যের উপর ভিত্তি করে অনুসন্ধানে আরো জানায়, সীমান্তে এখন সেভেন পয়েন্ট সিক্স ফাইভ খুব বেশি। রাজধানীর বাজারে ৬০/৬৫ হাজারের টাকায় বিক্রি হলে সীমান্তে এর দাম ২০ থেকে ২৫ হাজার টাকা।  আর নাইন এমএম পিস্তল বিক্রি হয় ৩০ থেকে ৩৫ হাজার টাকার মধ্যে। তবে সেভেন পয়েন্ট সিক্স ফাইভ থেকে অধিকতর কার্যকরী নাইন এমএম।  বড় ও ওজনে ভারি হওয়ার কারণে সব সন্ত্রাসী এটি পছন্দ করেনা।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, রাজধানীতে অস্ত্র আসে মূলত উত্তরাঞ্চলের বিভিন্ন সীমান্ত পথে। রাজশাহী ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ সীমান্ত দিয়ে ছোট এই অস্ত্রগুলো আসে। এই দুই জেলার সীমান্ত পথ পেরিয়ে ফল ও সবজির ট্রাক এবং ট্রেনে করে এই সকল অস্ত্রগুলো পৌঁছে যায় রাজধানী শহরে। সম্প্রতি সেভেন পয়েন্ট সিক্স ফাইভ অস্ত্রসহ রাজশাহীতে গ্রেফতারের ঘটনা রয়েছে।
র‌্যাব-৫ এর হাতে অস্ত্রসহ গ্রেফতার হওয়া চাঁপাইনবাবগঞ্জের জহুরুল ইসলাম জানায়, সীমান্ত এলাকা দিয়ে বর্তমানে অস্ত্র বেশি আসছে। এই সকল অস্ত্রগুলো স্থানীয় চক্রের মাধ্যমে অপর একটি সিন্ডিকেট চক্র রাজধানীতে নিয়ে আসছে। সীমান্ত এলাকা দূর্গম ও দরিদ্র লোকজনের বসবাস হওয়ার কারণে টাকার লোভে ঝুঁকি থাকলেও  তারা এই সকল ব্যবসায় উৎসাহী হয় এবং তারা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে রাজধানীতে নিয়ে আসে।
জহুরুল র‌্যাবের কাছে জানায়, অস্ত্র আনা নেওয়ার কাজে তারা ট্রেনটিকে স্বাচ্ছন্দ বোধ করে। এতে ঝুঁকি কম থাকে। ট্রেন থেকে নামার পর তাদের নির্দিষ্ট লোকজন এসে সেটি নিয়ে যায়। ফিরতি ট্রেনে তারা এলাকায় চলে আসে।
সে আরো জানায়, একটি রিভালবার সীমান্তের ওপারে ৮/১০ হাজার টাকায় কিনতে পাওয়া যায়। এগুলো দেশে নিয়ে আসলে এসে চাঁপাইনবাগঞ্জে ২০/ ২৫ হাজার টাকা দাম পড়ে। প্রতিটি রিভলবারে গড়ে ১০/১৫ হাজার টাকা লাভ হয়।
রাজশাহীর যে সীমান্ত দিয়ে রাজধানীতে অস্ত্র আসে সেগুলো হলো , চারঘাটের ইউসুফপুর, টাঙ্গন, বাঘার মীরগঞ্জ, আলাইপুর, উদয়নগর, রাজশাহী মহানগরীর বুলুনপুর, তালাইমারি, গোদাগাড়ির সুলতানগঞ্জ, পোলাডাঙ্গা, চরখিদিরপুর অন্যতম।
রাজশাহী র‌্যাব-৫ উপ-অধিনায়ক মেজর আনোয়ার আলী জানান, সীমান্ত এলাকায় সেভেন পয়েন্ট সিক্স ফাইভ ২০/২৫ হাজার টাকায় কিনতে পাওয়া যায়। অস্ত্র চোরাকারবারী সীমান্তের ওপরে গিয়ে এর চেয়েও কম দাম দিয়ে কিনে নিয়ে আসে। পরে সেগুলোর পার্টির নিকট নির্দিষ্ট দামে বিক্রি করে।
তিনি বলেন, আমরা অস্ত্র পাচাররোধে কঠোর নজরদারি রয়েছে। তারপরও র‌্যাব-পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে অস্ত্র পাচার হতে পারে।
রাজশাহীর এই সীমান্ত ছাড়া উত্তরের হিলি সীমান্ত, যশোরের বেনাপোল, সাতক্ষীরা, কক্সবাজার ও বান্দরবন দিয়েও রাজধানীতে অস্ত্র এসে থাকে। 

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে