Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শুক্রবার, ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৯ , ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 2.9/5 (59 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৮-৩১-২০১২

গৌরীপুরে অজ্ঞাত চর্ম রোগে অর্ধশতাধিক আক্রান্ত

গৌরীপুরে অজ্ঞাত চর্ম রোগে অর্ধশতাধিক আক্রান্ত
গৌরীপুর উপজেলার ভাংনামারী ইউনিয়নের খুলিয়ার চর গ্রামে অজ্ঞাত চর্মরোগে একই পরিবারের ২৫ শিশু ও মহিলাসহ ৩ দিনে অর্ধশতাধিক মানুষ আক্রান্ত হয়েছে। প্রতিদিন আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় এলাকায় আতঙ্ক বিরাজ করছে। আক্রান্ত এলাকায় উপজেলা স্বাস্থ্য ও প.প. কর্মকর্তা ডা. হাসমত আলীর নেতৃত্বে একটি জরুরি মেডিকেল টিম কাজ করলেও এখনো রোগ শনাক্ত করা যায়নি। গ্রামের রাশিদা খাতুন (৬০), পুতুল সরকার (২২) ও তৌসিফ (১৭) নামের ৩ রোগী বুধবার দুপুরে গৌরীপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গেলে তাদের পায়ের পাতায় লাল ও হলুদ রঙের ছোপ ছোপ দাগ দেখা গেছে। গৌরীপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রোগ চিহ্নিত করতে না পেরে তাদের ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়েছে। অজ্ঞাত রোগ শনাক্ত করতে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কর্মকর্তা হাসমত আলী তাৎক্ষণিক মেডিকেল অফিসার ডা. মঞ্জুর মোর্শেদেকে প্রধান করে একটি মেডিকেল টিম গঠন করে ঘটনাস্থলে পাঠিয়েছেন। মেডিকেল টিম প্রধান ডা. মঞ্জুর মোর্শেদ জানিয়েছেন, তারা ঘটনাস্থলে গিয়ে একই বাড়িতে এ রোগে আক্রান্ত পারভীন (৪০), জুবায়ের (০৭), ইভা (১০), সুমাইয়া (১১), গণি (১৭), ফারিয়া (১১), রিয়া (০৬), রিপন (০৩), রোকসানাসহ (৩২) ১৭ জনকে চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানোর পরামর্শ দিয়েছেন। এদিকে নতুন করে বৃহস্পতিবার একই গ্রামের কছুম উদ্দিনের পরিবারের শরীফা (২০), রানী (২২), বৃষ্টি (৬), আছিয়া (৩৫), সাইফুল ইসলাম (২৩) এবং গেদু বেপারির পরিবারের বাচ্চু (৩০), লতুননেছা (৮৫) , জাইদুল (১৫) ও জিনিয়াসহ (১৩) গ্রামের আরো ৩০ জন আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, প্রাথমিকভাবে আর্সেনিক আক্রান্ত সন্দেহ করা হলেও পানির নমুনা পরীক্ষায় কোনো আর্সেনিক পাওয়া যায়নি। আক্রান্ত স্থানে ব্যথা, চুলকানি, ফুলা, জ্বর বা বমির কোনো লক্ষণ দেখা যায়নি। গ্রামের বেপারি বাড়ির সদস্য শফিকুল ইসলাম লিটন জানান, সোমবার এ রোগের লক্ষণ তার পরিবারের সদস্যদের মাঝে ধরা পড়ে এবং বুধবার চিকিৎসার জন্য গৌরীপুর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। আক্রান্তদের পায়ের পাতায় পানি লাগলেই লাল ও হলুদ ছোপ ছোপ রং গাঢ় মেহেদী রঙ ধারণ করে বলে তিনি জানান। নতুন করে আক্রান্তের খবর পেয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কর্মকর্তা হাসমত আলী ঘটনাস্থলে পরিদর্শন করে রোগটি অজ্ঞাত ও রহস্যজনক উল্লেখ করে এ প্রতিনিধিকে জানান, ইতোমধ্যে ময়মনসিংহ সিভিল সার্জনের তত্ত্বাবধানে এ রোগ শনাক্ত করার চেষ্টার পাশাপাশি ঢাকা আইইডিসিআরে প্রতিবেদন পাঠানো হয়েছে। তিনি এলাকাবাসীকে আতঙ্কিত না হওয়ার আহ্বান জানান

ময়মনসিংহ

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে