Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 2.5/5 (18 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ১০-১৮-২০১১

উত্তরাঞ্চলে আজ বিএনপির রোডমার্চ

উত্তরাঞ্চলে আজ বিএনপির রোডমার্চ
উত্তরাঞ্চল অভিমুখে বিএনপি চেয়ার-পারসন খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে চারদলীয় জোটের দ্বিতীয় রোডমার্চ কর্মসূচি শুরু হবে আজ। এ কর্মসূচি সফল করতে ইতোমধ্যে কেন্দ্রীয় ও আঞ্চলিক পর্যায়ে ব্যাপক প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। দু'দিনের এই রোডমার্চে ঢাকা থেকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ পর্যন্ত মোট ৩টি পথসভা ও দুইটি জনসভায় বক্তব্য রাখবেন খালেদা জিয়া। কর্মসূচিতে বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতাদের পাশাপাশি জোটের শীর্ষ নেতারাও অংশ নেবেন। রোডমার্চ বহরে তিন হাজারের ওপরে গাড়ি এবং প্রায় অর্ধলক্ষ নেতাকর্মী থাকবেন বলে বিএনপি সূত্র জানিয়েছে।
গত ২৭ সেপ্টেম্বর ঢাকায় সমাবেশ থেকে রোডমার্চ ও বিভাগীয় সমাবেশের ঘোষণা দেন খালেদা জিয়া। সিলেট, রাজশাহী ও চট্টগ্রাম অভিমেুখে কর্মসূচি ঘোষণা করলেও পরে চট্টগামের কর্মসূচি স্থগিত করে বিএনপি।
এ প্রসঙ্গে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান সোমবার এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, বিএনপির রোডমার্চে যে হারে জনসমর্থন ও ব্যাপক আন্দোলনের ক্ষেত্র প্রস্তুত হচ্ছে তা দেখে সরকারের মাথা খারাপ হয়ে গেছে। এ জন্যই তারা রোডমাচের্র সমালোচনা করছেন। তবে সরকারের সমালোচনার পরোয়া করে না বিএনপি।
নজরুল ইসলাম খান আশা করেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ অভিমুখে দুইদিনের রোডমার্চ সিলেটের মতোই সফল হবে। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, উত্তরবঙ্গের রোডমার্চ বহরে তিন হাজারের ওপরে গাড়ি এবং প্রায় অর্ধলক্ষ নেতাকর্মী থাকবেন।
সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, বুধবার নওগাঁ থেকে রাজশাহী জেলার কিছু অংশ ঘুরে রোডমার্চ চাঁপাইনবাবগঞ্জ যাবে। সেখানে জনসভায় বক্তব্য দেবেন বিএনপি চেয়ারপারসন।
প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের সমালোচনা করে নজরুল ইসলাম খান বলেন, প্রধানমন্ত্রী নিজেও গাড়িতে চড়ে এক সময় রোডমার্চ করেছেন। আসলে আওয়ামী লীগের চরিত্রই হলো ডাবল স্ট্যান্ডার্ড। কোনো কাজ তারা যখন করে তখন অন্যায় হয় না। অন্যরা করলে সেটা দোষের হয়। জামায়াতকে নিয়ে তারা আন্দোলন করলে কিছু হয় না। কিন্তু জামায়াত যখন বিএনপির সঙ্গে আসে তখন যুদ্ধাপরাধী হয়ে যায়।
বিএনপির উচিত জাতীয় সংসদ ও নির্বাচন কমিশন সচিবালয় অভিমুখে রোডমার্চ করা_ আওয়ামী লীগের উপদেষ্টাম-লীর সদস্য সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের এ প্রস্তাবকে সাধুবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, তার প্রস্তাবটি বিবেচনায় থাকল। এ দু'টি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে অভিযোগ রয়েছে। ভবিষ্যতে এ দুই প্রতিষ্ঠান অভিমুখে রোডমার্চের বিষয়টি বিবেচনায় থাকবে।
রোডমার্চে নানাভাবে বাধা দেয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ করে নজরুল বলেন, সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া থানা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক হেলাল সরকারকে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। তাকে আদালত 'টাউন জামিন' দিয়েছে। অর্থাৎ সিরাজগঞ্জের পথসভায় তিনি আসতে পারবেন না। উত্তরা থানা এলাকায় ব্যানার ফেস্টুন লাগালে তাও পুলিশ খুলে নিচ্ছে। গণতান্ত্রিক দেশে এ ধরনের আচরণ অন্যায়। তিনি আশা করছেন সরকার এই আচরণ থেকে ফিরে আসবে।
বিএনপির ওয়েবসাইট বন্ধ করে দেয়া প্রসঙ্গে নজরুল ইসলাম খান বলেন, সরকার দেশকে ডিজিটাল করতে চায়। কিন্তু তারা রোডমার্চ ইন্টারনেটে দেখার জন্য একটি ওয়েবসাইট খুলেছিলেন। বিটিআরসি সেই ওয়েবসাইট বন্ধ করে দিয়েছে।
এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী গাড়ির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবেন নাকি গাড়ির মধ্যে থাকা মানুষদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবেন তা জানেন না। যদি গাড়ির মানুষদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে চান তাহলে বলবেন গাড়ির ভেতরে যারা থাকেন তারা বিএনপির কর্মী। তারা অন্য কেউ না যে তাদের চেনা যায় না। অপর প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, যারা প্রতিদিন দামি গাড়ি নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় আর সচিবালয়ে যান তাদের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রী কী ব্যবস্থা নেবেন?
নজরুল ইসলাম খান জানান, সকাল ১০টায় উত্তরার হাউজ বিল্ডিং থেকে শুরু হবে চারদলীয় জোটের রাজশাহী বিভাগ অভিমুখী রোডমার্চ। এখান থেকে চেয়ারপারসনের গাড়িবহর অতিক্রম করার পরই দলের সিরিয়াল মেনে গাড়ি এগিয়ে যাবে।
তিনি জানান, প্রথম পথসভা অনুষ্ঠিত হবে গাজীপুরের কালিয়াকৈরে। এরপর টাঙ্গাইলের ভূয়াপুর ও সিরাজগঞ্জের হাটিকুমরুলে। আবার বিকালে বগুড়ার আলতাফুন্নেসা মাঠে জনসভা অনুষ্ঠিত হবে। জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতা দেবেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। এ সময় বগুড়া শহরে গাড়ি নিয়ে ঢুকতে সমস্যা বলে তিনি গাড়ি নিয়ে শহরে প্রবেশ না করার অনুরোধ জানান।
তিনি বলেন, রাতে বগুড়ায় অবস্থান করে পরদিন বুধবার সকালে রোডমার্চ চাঁপাইনবাবগঞ্জের উদ্দেশে রওয়ানা হবে। বেলা ১১টায় নওগাঁ হাইস্কুল মাঠে একটি পথসভা করে সরাসরি চাঁপাইনবাবগঞ্জ চলে যাবেন। বিকাল ৩টায় চাঁপাইনবাবগঞ্জ সরকারি কলেজ মাঠে জনসভা হবে। রাতে সরাসরি নাটোর রাজশাহী হয়ে ঢাকায় ফিরবেন খালেদা জিয়া।
সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব আমান উল্লাহ আমান, ঢাকা মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব আব্দুস সালাম, বিএনপির ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি এমপি, মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক শিরিন সুলতানা, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি হাবীব উন নবী খান সোহেল, সাধারণ সম্পাদক মীর সরাফত আলী সপু, যুব দলের সাধারণ সম্পাদক সাইফুল আলম নীরব প্রমুখ।
রোডমার্চের নিরাপত্তার জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে চিঠি
রোডমার্চের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে চিঠি দিয়েছে বিএনপি। চিঠিতে গণতান্ত্রিক কর্মসূচি সফলে সরকারের সহযোগিতা কামনা করা হয়েছে। এছাড়া দলের পক্ষ থেকে রোডমার্চের জন্য তিনস্তরের নিরাপত্তা দেয়ার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। সার্বিক বিষয় মনিটরিংয়ের জন্য একটি মোবাইল টিম কাজ করবে বলে জানিয়েছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে