Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শুক্রবার, ১৫ নভেম্বর, ২০১৯ , ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.1/5 (10 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৭-০৬-২০১২

অ্যাথলিট পিঙ্কি প্রামাণিক মহিলা না পুরুষ- এখনো সমাধা হলনা

দীপক রায়


অ্যাথলিট পিঙ্কি প্রামাণিক মহিলা না পুরুষ- এখনো সমাধা হলনা
জাতীয় স্তরের অ্যাথলিট পিঙ্কি প্রামাণিক মহিলা না পুরুষ এই বিষয়ের এখনো সমাধা হলনা। ফলে তিনি এক মহিলাকে প্রকৃতই ধর্ষন করেছিলেন কিনা, সেই বিষয়েরও এখনো কোন সুরাহা হল না। একাধিকবার তাকে পরীক্ষা করেও এখনো কোন ডাক্তার সিদ্ধান্তে আসতে পারেনি পিঙ্কি প্রামাণিক মহিলা না পুরুষ। আর সেই থেকে তিনি এখনো বন্দী আছেন কারাগারে। তার রেলের চাকরীটাও চলে গিয়েছে। হাসপাতালে তার শারীরিক পরীক্ষার ভিডিও ক্লিপিংস ছড়িয়ে পড়েছে ইন্টারনেটে। ফলে সরকারের ব্যার্থতা নিয়ে ক্রমশঃ ক্ষোভ তৈরী হচ্ছে। তার উপরে মানসিক অত্যাচার চলছে বলে ইতিমধ্যেই রাজ্য মানবাধিকার কমিশনে অভিযোগ করেছিল কিছু মানুষ ও সংস্থা। সেই নিয়ে জনস্বার্থের মামলা করা হয়েছে কলকাতা হাইকোর্টেও।
প্রাক্তন সিপিএম বিধায়ক ও রাজ্য মহিলা কমিশনের সদস্যা ভারতী মুৎসুদ্দি, রবিরঞ্জন চট্টোপাধ্যায়-সহ কয়েক জন আইনজীবী হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি জে এন পটেলের সঙ্গে দেখা করে কারাগারে পিঙ্কির উপরে নানা ভাবে অত্যাচার চালানো হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন। আইনের চোখে পিঙ্কি এখনও এক জন মহিলা হওয়া সত্ত্বেও তাঁর মানসম্মান নিয়ে টানাটানি করছে পুলিশ। তাঁকে পুরুষদের সেলে রাখা হচ্ছে। পুরুষ পুলিশকর্মী তাঁর দেহ তল্লাশ করছে। সেই তল্লাশির ভিডিও ক্লিপিংস ইচ্ছাকৃতভাবে ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। তারা এও বলেন, যেখানে এখনো কোন ডাক্তার তাকে পুরুষ বলে ঘোষনা করেননি, যেখানে তার বাবা-মা, ধাই-মা, তার গ্রামবাসী, তার শিক্ষকেরা, তার সহকারী খেলোয়াড়েরা, তার কোচ সকলেই বলছে সে মহিলা, সেখানে কেন তাকে এখনো কারাগারে বন্দী করে রাখা হয়েছে?
প্রসঙ্গতঃ পিঙ্কিকে পুরুষ বলে অভিহিত করে তাঁর বিরুদ্ধে ধর্ষণ, প্রতারণা-সহ বিভিন্ন অভিযোগ এনেছেন বাগুইআটির এক মহিলা। তার পরে থেকেই তাঁকে গ্রেফতার করে কারাগারে রাখা হয়েছে প্রায় মাসখানেক হতে চললো। আর তার লিঙ্গ নির্ধারণের নামে দৈহিক ও মানসিক নির্যাতন চলছে তো চলছেই। এদিকে সেই একই অভিযোগ করল ভারতের গণতান্ত্রিক মহিলা সমিতিও। সমিতির রাজ্য সম্পাদিকা, সিপিএম নেত্রী মিনতি ঘোষের বক্তব্য, ''পিঙ্কির বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হলে তাঁর আইনগত শাস্তি হবে। এতে কিছু বলার নেই। কিন্তু লিঙ্গ নির্ধারণ না-হওয়া পর্যন্ত সরকারি ভাবে পিঙ্কি এক জন মহিলাই। অথচ পুরুষ পুলিশকর্মীরা তাঁর শরীরে হাত দিয়ে টেনে নিয়ে যাচ্ছেন। তাঁকে পুরুষ বন্দিদের সঙ্গে রাখা হয়েছে। এটা সভ্যতার লজ্জা। এক জন মহিলা যখন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী, তখন দেশে বিদেশে এক জন সোনাজয়ী মহিলা ক্রীড়াবিদের উপরে এই ধরনের আচরণ অত্যন্ত দুঃখের। পিঙ্কির সঙ্গে যা করা হচ্ছে, সেটা মহিলাদের পক্ষে অত্যন্ত অবমাননাকর। অবিলম্বে পিঙ্কির উপরে ‘অত্যাচার’ বন্ধ করতে হবে।

পশ্চিমবঙ্গ

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে