Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, সোমবার, ১১ নভেম্বর, ২০১৯ , ২৭ কার্তিক ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (5 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৫-০১-২০১৬

জয়ে ফিরল ‘দুর্দান্ত’ মুস্তাফিজের হায়দ্রাবাদ

জয়ে ফিরল ‘দুর্দান্ত’ মুস্তাফিজের হায়দ্রাবাদ
কোহলিকে সাজঘরের পথ দেখিয়ে সতীর্থদের সঙ্গে উল্লাসে মাতোয়ারা কাটার মাস্টার মুস্তাফিজ।

নয়াদিল্লি, ০১ মে- গত ম্যাচে রাইজিং পুনে সুপারজায়ান্টসের কাছে ডিএল (ডাকওয়ার্থ লুইস) ম্যাথডে হেরেছিল সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ। তবে শনিবারই জয়ে ফিরেছে তারা। মুস্তাফিজের হায়দ্রাবাদ এদিন ১৫ রানে হারিয়েছে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুকে।

প্রথমে ব্যাট করে এদিন ১৯৪ রানের বিশাল সংগ্রহ করে সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ। জবাবে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৭৯ রানের বেশি করতে পারেনি রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরু। যে কারণে ১৫ রানের হার নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয় বিরাট কোহলির দলকে।

শনিবার ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুর বিপক্ষে বল হাতে নিয়েই সাফল্যের দেখা পেলেন কাটার মাস্টার মুস্তাফিজুর রহমান। গুরুত্বপুর্ণ ম্যাচে প্রথম উইকেট তুলে নিয়ে হায়দ্রাবাদ ভক্ত-অনুরাগীদের উচ্ছ্বাসে ভাসার সুযোগ করে দেন তিনি।

আশীষ নেহরা এবং ভুবনেশ্বর কুমার যখন বল হাতে প্রতিপক্ষের উইকেট নিতে ব্যর্থ হন ঠিক তখনই মুস্তাফিজের হাতে বল তুলে দেন হায়দ্রাবাদের অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নার। আর আস্থার প্রতিদান দিতে খুব বেশি সময় নেননি বাংলাদেশের তরুণ প্রতিভাবান এই ক্রিকেটার। ষষ্ট ওভারের দ্বিতীয় বলেই ব্যাঙ্গালুরুর অধিনায়ক বিরাট কোহলির উইকেট দখল করেন তিনি। আর কোহলি এই মৌসুমে সবচেয়ে কম (১৪) রান করে সাজঘরে ফিরেন। তবে এরপর আর কোন উইকেট পাননি মুস্তাফিজ। বিনিময়ে ৪ ওভারে ৩৪ রান দিয়েছেন তিনি।

মুস্তাফিজ কোহলিকে আউট করলেও দলকে জয়ের পথেই নিয়ে যাচ্ছিলেন লোকেশ রাহুল এবং এবি ডি ভিলিয়ার্স। কিন্তু রাহুল ৫১ আর ভিলিয়ার্স ৪৭ রানে সাজঘরে ফিরে গেলেই যেন জয়ের স্বপ্ন ফিকে হয়ে যায় ব্যাঙ্গালুরুর। তবে মজার ব্যাপার হলো এদিন মুস্তাফিজের মতো হায়দ্রাবাদের বাকী চার বোলারের প্রত্যেকেই ব্যাঙ্গালুরুর ১টি করে উইকেট লাভ করেন।

এর আগে রাজীব গান্ধী ইন্টারন্যাশনাল স্টেডিয়ামে টসে হেরে প্রথমে ব্যাট করে সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ। তবে ব্যাঙ্গালুরুর বিপক্ষে ম্যাচের শুরু থেকেই দুর্দান্ত খেলে তারা। ডেভিড ওয়ার্নার এবং উইলিয়ামসনের ব্যাটে শেষ পর্যন্ত ৫ উইকেটে ১৯৪ রান সংগ্রহ করে হায়দ্রাবাদ।

অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নার মাত্র ৫০ বলে ৯২ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলেন। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৫০ রান করেন কেন উইলিয়ামসন। এছাড়া তৃতীয় সর্বোচ্চ ৩১ রান করে অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়েন মোইসেস হেনরিকস। ব্যাঙ্গালুরুর কেন রিচার্ডসন ২টি এবং শেন ওয়াটসন ও তাবরেইজ শামসি ১টি করে উইকেট লাভ করেন। তবে ম্যাচ সেরার পুরস্কার জিতেন হায়দ্রাবাদের অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নার।

এফ/০৮:৫৫/০১ মে

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে