Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, রবিবার, ১৬ জুন, ২০১৯ , ২ আষাঢ় ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.2/5 (137 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৬-০৮-২০১২

দৌলতদিয়া ঘাটে ফের যানবাহনের দীর্ঘ সারি

দৌলতদিয়া ঘাটে ফের যানবাহনের দীর্ঘ সারি
দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের সঙ্গে রাজধানী ঢাকার যোগাযোগের অন্যতম প্রধান নৌ পথ দৌলতদিয়া ঘাটে শুক্রবার নদী পারাপারের অপেক্ষায় আটকা পড়ে কয়েকশ মালবাহী ট্রাকসহ অন্যান্য যানবাহন।

কয়েকদিন বন্ধ থাকার পর যশোরের বেনাপোল বন্দর আবার চালু হওয়ায় একসঙ্গে অনেক গাড়ি আসায় এ অবস্থা সৃষ্টি হয়েছে বলে ঘাট সূত্রে জানা গেছে।

এ ছাড়া রয়েছে গাড়ি লাইনে দাঁড়ানোর অপরিকল্পিত পদ্ধতি, স্থানীয় প্রভাবশালী দালাল চক্রের দৌরাত্ম্য ও গাড়িচালকদের সিরিয়াল ভেঙে আগে যাওয়ার অভ্যাস। যে কারণে এ ঘাটে প্রায়ই যানজট সৃষ্টি হচ্ছে। ভোগান্তির শিকার হচ্ছে যাত্রীরা।

দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ২১ জেলার সঙ্গে রাজধানী ঢাকাসহ বিভিন্ন জেলার সড়ক যোগাযোগের জন্য দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া একটি ব্যস্ততম নৌ পথ। বাস, মাইক্রোবাস, মালবাহী ট্রাকসহ শত শত যানবাহন ও হাজার হাজার যাত্রী প্রতিদিন এ ঘাট দিয়ে নদী পার হয়।

মাত্র চার কিলোমিটার দুরত্বের এই নদীপথ পাড়ি দিতে গাড়িগুলোকে ফেরিঘাটে ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষায় থাকতে হয়। ফলে ফেরিঘাট থেকে মহাসড়কের কয়েক কিলোমিটার এলাকা পর্যন্ত গাড়িগুলো দাঁড়িয়ে থাকায় তীব্র যানজট সৃষ্টি হয়।

শুক্রবার দৌলতদিয়া ঘাটে নদী পারাপারের অপেক্ষায় আটকা পড়ে যাত্রীবাহী বাস, মাইক্রোবাস, পণ্যবোঝাই ট্রাকসহ কয়েকশ গাড়ি।

ঘাট সূত্রে জান যায়, কিছুদিন ঘাট এলাকা যানজটমুক্ত ছিল। বৃহস্পতিবার থেকে বেনাপোল বন্দর দিয়ে ভারতীয় পণ্য বাংলাদেশে আসতে শুরু করে। সেখানে আটকা পড়া ট্রাকগুলো পণ্যবোঝাই করে ঘাটে আসায় আবারও যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে।

সরেজমিনে দেখা গেছে, টার্মিনালের পার্কিং ইয়ার্ড পুর্ণ হয়ে ফেরিঘাটের জিরো পয়েন্ট থেকে মহাসড়কের তিন কিলোমিটার দূরের ক্যানেলঘাট এলাকায় রাস্তার দুইপাশে বাস-ট্রাকগুলো দাঁড়িয়ে আছে। আটকে থাকা গাড়ির চালকসহ যাত্রীরা এ সময় চরম দুর্ভোগ পোহায়।

বিআইডব্লিউটিসির দৌলতদিয়া ঘাট কার্যালয় সূত্র জানায়, এই নৌ পথে প্রতিদিন গড়ে তিন থেকে চার হাজার বিভিন্ন যানবাহন নদী পারাপার হয়ে থাকে। যানজটমুক্ত পারাপারের জন্য কমপক্ষে ১০টি রো রো ফেরি সার্বক্ষণিকভাবে চালু থাকা প্রয়োজন।

অথচ বর্তমানে সেখানে মাত্র আটটি রো রো এবং দুটি কে-টাইপ ফেরি দিয়ে যানবাহন পারাপার করা হচ্ছে। এছাড়া তীব্র স্রোতের কারণে নদী পাড়ি দিতে ফেরিগুলোকে আগের চেয়ে সময়ও বেশি ব্যয় করতে হয়। যে কারণে দৌলতদিয়াঘাটে গাড়িগুলো আটকা পড়েছে।

এ নৌ পথে চলাচলকারী ফেরি সংশ্লিষ্ট একাধিক সূত্র জানায়, ফেরিগুলো অনেক বছরের পুরনো হওয়ায় প্রতিদিনিই কোনো না কোনো ফেরি বিভিন্ন কারণে বিকল হয়ে পড়ে। এমনিতেই ফেরির সংখ্যা কম, তার ওপর দু-একটি ফেরি বিকল হয়ে থাকলে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে সঙ্কট আরও তীব্র হয়।

দৌলতদিয়া ঘাট সংশ্লিষ্ট একাধিক সূত্রে জানা যায়, দূরপাল্লার বিভিন্ন পরিবহনের পাশাপাশি প্রতিদিন এই ঘাট দিয়ে মাছ, মুরগি, ফল, সবজিসহ বিভিন্ন কাঁচামাল বোঝাই কয়েকশ ট্রাক নিয়মিত পারাপার হয়ে থাকে। এসব ট্রাকের চালকরা দৌলতদিয়া ঘাটে এসে দালালের মাধ্যমে পেছন থেকে ট্রাক নিয়ে দ্রুত আগে চলে যায়।

সিরিয়াল ভাঙা ওই ট্রাকগুলো ফেরি থেকে নামা গাড়ির মুখোমুখি হয়ে ঘাটের রাস্তা বন্ধ হয়ে যায়। অনেক সময় মালবাহী ট্রাক অন্য গাড়ি ওভারটেক করতে গিয়ে সড়কে উল্টে যায়। এগুলোও যানজটের অন্যতম কারণ।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন সংস্থার আরিচা কার্যালয়ের ব্যবস্থাপক বিদ্যুৎ কুমার সাহা জানান, বর্তমানে এই পথে ৮টি রো রো ও দুটি কে-টাইপ ফেরি দিয়ে যানবাহন পারাপার করা হচ্ছে। বেনাপোল বন্দর থেকে একসঙ্গে অনেক গাড়ি আসায় কিছুটা চাপ পড়েছে। এছাড়া বিকল হওয়া ফেরিগুলো মেরামত শেষে ফিরে এলে পরিস্থিতি অনেকটা স্বাভাবিক হবে।

রাজবাড়ী

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে