Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শনিবার, ২৫ জানুয়ারি, ২০২০ , ১২ মাঘ ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.8/5 (23 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৫-০৬-২০১২

সাবেক ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মোশারেফ হোসেন শাজাহান আর নেই

সাবেক ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মোশারেফ হোসেন শাজাহান আর নেই
ঢাকা, ৬ মে- প্রবীণ রাজনীতিবিদ ও সাবেক ধর্ম প্রতিমন্ত্রী বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য মোশারেফ হোসেন শাজাহান আর নেই। গতকাল সকাল সাড়ে ৯টায় রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। (ইন্নালিল্লাহি ... রাজিউন)। বেশকিছু দিন ধরে তিনি বিভিন্ন রোগে ভুগছিলেন। রাজনীতির সজ্জন ব্যক্তিত্ব ও জনসেবায় নিবেদিতপ্রাণ এই পুরুষের মৃত্যুতে বিএনপি চেয়ারপার্সন ও বিরোধীদলীয় নেতা খালেদা জিয়াসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতারা গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। তার নিজ জেলা ভোলায় সর্বস্তরের জনগণের মাঝে নেমে এসেছে শোকের ছায়া। গতকাল ঢাকায় জাতীয় সংসদ ভবন ও বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত জানাজা শেষে মোশারেফ হোসেন শাজাহানের লাশ দাফনের জন্য তার নিজ জেলা ভোলায় নিয়ে যাওয়া হয়।
মোশারেফ হোসেন শাজাহান ১৯৩৯ সালে ১৯ সেপ্টেম্বর ভোলার ঐতিহ্যবাহী তালুকদার পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবা মরহুম আলতাজের রহমান তালুকদার ছিলেন দেশের প্রতিষ্ঠিত লঞ্চ ব্যবসায়ী। ৭৫ বছর বয়সী এ প্রবীণ রাজনীতিবিদ, সমাজসেবক ও আধুনিক ভোলার রূপকারদের অন্যতম হিসেবে সর্বমহলে পরিচিত। ৬ বার নির্বাচিত সংসদ সদস্য। ১৯৬৫ সালে আকস্মিকভাবে রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত হয়ে প্রথমে এমপিএ নির্বাচিত হন। ১৯৯১ সালে বিএনপি সরকারের পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী এবং ২০০১ সালে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পালন করেন। তিনি একাধারে রাজনীতিবিদ, সমাজসেবক, নাট্যকার, সাংবাদিক ও ভোলার প্রথম মুক্তিযোদ্ধা সংগঠক ছিলেন। রাজনীতির পাশাপাশি নাটক নির্মাণ, অভিনয় ও নির্দেশনা দিয়েছেন। ভোলায় সাংগঠনিক সাংস্কৃতিক চর্চা শুরু হয় তার নেতৃত্বেই। এছাড়া জাতীয় বন্ধুজন পরিষদের মাধ্যমে ভোলায় সামাজিক উন্নয়নেও কাজ করেছেন। মৃত্যুকালে তার স্ত্রী অধ্যাপিকা ড. ফিরোজা বেগম, এক ছেলে, ৩ মেয়ে ২ ভাইসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।
বিএনপি জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও সাবেক প্রতিমন্ত্রী মোশারেফ হোসেন শাজাহানের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন বিএনপি চেয়ারপার্সন, সাবেক প্রধানমন্ত্রী, জাতীয় সংসদে বিরোধীদলীয় নেতা খালেদা জিয়া। এক শোকবার্তায় বিএনপি চেয়ারপার্সন বলেন, মরহুম মোশারেফ হোসেন শাজাহান ভোলা জেলায় বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলকে সুসংগঠিত এবং অগণতান্ত্রিক শক্তির বিরুদ্ধে মানুষের মৌলিক অধিকারের আন্দোলনকে বেগবান করতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে গেছেন। তার মৃত্যুতে ভোলা জেলা বিএনপি একজন সুদক্ষ, কর্মনিষ্ঠ ও শহীদ জিয়ার আদর্শ বাস্তবায়নের জন্য নিবেদিতপ্রাণ একজন সংগঠককে হারাল। তিনি বলেন, তার মৃত্যু জাতীয়তাবাদী রাজনীতির জন্য এক অপূরণীয় ক্ষতি। বিএনপি চেয়ারপার্সন মরহুম মোশারেফ হোসেন শাজাহানের আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং শোকাতুর পরিবারবর্গ, আত্মীয়স্বজন, গুণগ্রাহী ও শুভানুধ্যায়ীদের প্রতি গভীর সহমর্মিতা জ্ঞাপন করেন।
অপর এক শোকবাণীতে বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর মোশাররফ হোসেন শাহজাহানের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করে তার রুহের মাগফিরাত কামনা করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যবর্গ ও আত্মীয় পরিজনদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান। অপর এক শোকবার্তায় বিএনপি’র আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক নাজিম উদ্দিন আলম মোশারেফ হোসেন শাজাহানের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করে তার রুহের মাগফিরাত কামনা করে শোকাহত পরিবারের সদস্য ও আত্মীয়স্বজনদের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন। অপর এক শোকবাণীতে বিএনপির ধর্মবিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মাসুদ আহমেদ তালুকদার বলেন, তিনি দেশ ও সমাজ উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখে গেছেন।
মোশারেফ হোসেন শাজাহানের ইন্তেকালে গভীর শোক প্রকাশ করে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর ভারপ্রাপ্ত আমির মকবুল আহমাদ শোকবাণীতে বলেন, জাতির এ দুর্দিনে তার ইন্তেকাল আমাদের অত্যন্ত ব্যথিত করেছে। তিনি একজন প্রতিমন্ত্রী ও জাতীয় সংসদ সদস্য হিসেবে দেশের মানুষের খেদমত করে গেছেন। তার জীবনের সব নেক আমল কবুল করে আল্লাহ তাকে জান্নাতবাসী করুন। তিনি মরহুমের শোকসন্তপ্ত পরিবার-পরিজন ও রাজনৈতিক সহকর্মীদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়ে বলেন, আল্লাহ তাদের এ শোক সহ্য করার তাওফিক দান করুন।
বিএনপি নেতা ও সাবেক ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মোশারেফ হোসেন শাজাহানের ইন্তেকালে গভীর শোক প্রকাশ করে ভোলা জেলা জামায়াতে ইসলামীর আমির মাওলানা ফজলুল করিম এক শোকবাণী প্রদান করেছেন। সাংস্কৃতিক ঐক্যফ্রন্টের আহ্বায়ক আসাদ বিন হাফিজ ও যুগ্ম আহ্বায়ক আবেদুর রহমান এক শোকবাণীতে বলেন, জাতি একজন বরেণ্য সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্বকে হারিয়েছে।
আমাদের ভোলা প্রতিনিধি হুমায়ুন কবীর জানান, প্রবীণ বিএনপি নেতা, সাবেক ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ও নাট্যকার-ঔপন্যাসিক মোশারেফ হোসেন শাজাহানের মৃত্যুতে তার নিজ জেলা ভোলায় সর্বস্তরের মানুষের মধ্যে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। গতকাল সকালে তার মৃত্যুর সংবাদ ভোলা এসে পৌঁছার পরপরই বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মী, ব্যবসায়ী, শিক্ষক, সাংবাদিক, সমাজসেবকসহ বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ ছুটে আসেন তার মহাজনপট্টির বাসায়। মরহুম শাজাহানের দীর্ঘদিনের রাজনৈতিক সহকর্মী ও শুভাকাঙ্ক্ষিরা কান্নায় ভেঙে পড়েন। জেলা বিএনপি কার্যালয়ে সৃষ্টি হয় এক আবেগঘন পরিবেশ। প্রথম সকালেই স্থবির হয়ে যায় দিনের সব কার্যক্রম।
এদিকে প্রবীণ এ নেতার মৃত্যুতে জেলা বিএনপি, ব্যবসায়ী সমিতি, চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজসহ বিভিন্ন পেশাজীবী ও সাংস্কৃতিক সংগঠন তিন দিনের শোক কর্মসূচি ঘোষণা করেছে। জেলা বিএনপি অফিসে শোকবই খোলা হয়েছে। কালোব্যাচ ধারণ করেছে দলীয় নেতাকর্মী ও বাজার ব্যবসায়ীরা। দলীয় কার্যালয় ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে কালো পতাকা উত্তোলন করা হয়েছে। গতকাল জোহরের নামাজের পর আত্মার মাগফিরাত কামনায় সব মসজিদ ও মন্দিরে বিশেষ দোয়া ও প্রার্থনা করা হয়। মরহুমের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে ভোলা ব্যবসায়ী সমন্বয় পরিষদ ও চেম্বার অব কমার্স আজ সব ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও কলকারখানা বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে