Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শুক্রবার, ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৯ , ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.1/5 (33 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৪-৩০-২০১২

আমেরিকার কাছে জামায়াত একটি ‘মৌলবাদী’ দল

আমেরিকার কাছে জামায়াত একটি ‘মৌলবাদী’ দল
ঢাকা, ৫ মে: দুই দশকেরও বেশি সময় ধরে ‘জামায়াতে ইসলামী বাংলাদেশ’কে ‘ইসলামপন্থি রাজনৈতিক দল’ হিসেবে বিবেচনা করে আসা আমেরিকার যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয় সম্প্রতি এ দলটিকে ‘মৌলবাদী’ হিসেবে উল্লেখ করেছে।
তাছাড়া সফররত আমেরিকার কর্মকর্তারা দলটির নেতাদের সঙ্গে সাক্ষাত না করার ধারাবাহিকতায় দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটনের আসন্ন সফরেও দলটির নেতারা তার সঙ্গে সাক্ষাতের সুযোগ পাবেন না বলে কূটনৈতিক সূত্রগুলো নিশ্চিত করেছে।
দুনিয়াজুড়ে ইসলামপন্থি রাজনীতি বিষয়ে আমেরিকার কোনো একক অবস্থান না থাকলেও একানব্বইয়ের নির্বাচনের পর থেকে দেশের প্রধানতম ইসলামপন্থি রাজনৈতিক দল জামায়াত প্রশ্নে আমেরিকার পররাষ্ট্রনীতির অবস্থান ছিল মোটা দাগে ‘অনুমোদন’মূলক। বিশেষ করে দেশটিতে ‘রিপাবলিকান’ দলীয় বিগত প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লিউ বুশের প্রশাসনের কর্তাব্যক্তিরা দলটিকে ‘মধ্যপন্থি’ বলে প্রায়শই উল্লেখ করতেন।
এর আগে ১৯৯৩ সাল থেকেই বাংলাদেশ সফররত সব আমেরিকার কর্মকর্তাই দলটির শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে আলাদাভাবে সাক্ষাত করতেন। রিপাবলিকান সরকারের নিযুক্ত বাংলাদেশস্থ রাষ্ট্রদূত হ্যারি কে টমাস তার দায়িত্বকালে ২০০৪ থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত অনেকবার আনুষ্ঠানিকভাবে জামায়াতকে একটি ‘গণতন্ত্রী’ ও ‘মধ্যপন্থী’ রাজনৈতিক দল বলে উল্লেখ করেন। বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকারের প্রথম দিকেও ঢাকাস্থ আমেরিকার রাষ্ট্রদূত জেমস এফ. মরিয়ার্টি দলটির প্রশংসা করেছেন প্রায়ই এবং নানা অভ্যন্তরীণ রাজনৈতিক ইস্যুতেও যেমন- দলটির নেতা ব্যারিস্টার আব্দুর রাজ্জাককে বিদেশে যেতে সরকারের বাধা প্রসঙ্গে তার পক্ষে বিবৃতি দিয়েছেন।
কিন্তু এ বছরের ৬ মার্চ সর্বশেষ সম্পাদিত আমেরিকার যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বাংলাদেশ বিষয়ক ‘ব্যাকগ্রাউন্ড নোট’-এ জামায়াতকে একটি ‘ইসলামি মৌলবাদী’ (ইসলামিক ফান্ডামেন্টালিস্ট) দল হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে।
তাছাড়া সম্প্রতি কয়েকবার জামায়াতের পক্ষ থেকে বর্তমান ঢাকাস্থ রাষ্ট্রদূত ড্যান মজিনার সঙ্গে দলীয় নেতাদের সাক্ষাতের কথা প্রচার করা হলেও জামায়াত কার্যালয়ে যাননি মজিনা। দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নানা পর্যায়ের মন্ত্রী ও কর্মকর্তারা ঢাকা সফর করলেও জামায়াতের সঙ্গে সাক্ষাতের কোনো কর্মসূচি রাখছেন না।
জামায়াতের নাম ও দলীয় লক্ষ্য পরিবর্তনেরও পরও আগের অবস্থান থেকে আমেরিকার সরে আসা বাংলাদেশে ‘ইসলামপন্থি’ রাজনীতির প্রশ্নে দেশটির পররাষ্ট্রনীতির উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন।
প্রসঙ্গত, সংবিধানে বর্তমান সরকারের আনা পঞ্চদশ সংশোধনীর অন্যতম মূলনীতি সেকুলারিজম-এর আলোকে প্রণীত নতুন নির্বাচনী আইনের সঙ্গে মিল রেখে সম্প্রতি দলটি নিজেদের নাম পরিবর্তন করে ‘বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী’ রাখে। একইসঙ্গে দলীয় গঠনতন্ত্র থেকে ‘আল্লাহর আইন ও সৎলোকের শাসন প্রতিষ্ঠা’র অংশটি বাদ দেয়।

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে