Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, সোমবার, ২০ মে, ২০১৯ , ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

গড় রেটিং: 2.5/5 (17 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ১১-১৫-২০১৫

শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত লড়েও বাংলাদেশের পরাজয়

কাওসার মুজিব অপূর্ব


শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত লড়েও বাংলাদেশের পরাজয়

ঢাকা, ১৫ নভেম্বর- এজন্যই ক্রিকেটের নাম হয়তো ‘গৌরবময় অনিশ্চয়তা’র খেলা। তা না হলে কি আর ১৩৫ রানের পুঁজি নিয়েও এমন লড়াই করা যায়। আর সেই লড়াইটা গড়ালো একেবারে শেষ ওভারের পঞ্চম বল পর্যন্ত চললো। আর তাতে হেরে যাওয়া দলটার নাম বাংলাদেশ। নেভিল মাদজিভার বিশাল এক ছক্কায় এক নিমিষেই যেন হারিয়ে গেল গোটা শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামের হাজার হাজার বাংলাদেশি সমর্থকদের মুখের হাসি। তিন উইকেটের ব্যবধানে হেরে গেল মাশরাফি বিন মুর্তজার দল। ১-১ সমতায় শেষ হল দুই ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ।

আর অল্প পুঁজি নিয়েই লড়াই করার শুরুটা করেন পেসার আল আমিন হোসেন। ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারে বোলিংয়ে এসে পরপর দুই ওভারে তিনি ফিরিয়ে দেন সিকান্দার রাজা ও শন উইলিয়ামকে।

জিম্বাবুয়ের ইনিংসের বিপদটা শুরু হয় সেখান থেকেই। নয় ওভারের মধ্যে মাত্র ৩৯ রানের মধ্যে পাঁচ উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়ে যায় জিম্বাবুয়ে। সেখানে হাল ধরেন আগের ম্যাচেই হাফ সেঞ্চুরি করা ম্যালকম ওয়ালার ও লুক জোঙ্গে। ৫৫ রানের জুটি গড়ে সফরকারীদের বিপদ কাটিয়ে দেন তারা।

৩৪ রান করে জোঙ্গে আল আমিনের তৃতীয় শিকার হয়ে বিদায় নিলেও ছিলেন ওয়ালার। এবারও তিনি খেলেছেন ৪০ রানের ইনিংস। জিম্বাবুয়ের ইনিংসের একেবারে শেষ হয়েছেন নাসির হোসেনের বলে। আর ১৯ বলে ২৮ রান করে অপরাজিত থাকেন মাদজিভা।

টসে জিতেছিল বাংলাদেশই। অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তজার ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়ার পর শুরুটাও মন্দ হয়নি। তামিম ইকবাল ও ইমরুল কায়েস মিলে চার ওভার তিন বলে ৩৪ রান যোগ করলেও এক রানের ব্যবধানে এই দুই ওপেনারের পতন ঘটে। তামিম ২১ ও ইমরুল ১০ রান করে সাজঘরে ফিরেন। এরপর ৯ রান করে ফিরে যান উইকেট রক্ষক ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিমও।

তিন উইকেটে ৫৯ থেকে তিন উইকেটে ১৪ ওভারের মধ্যেই তিন উইকেটে ৯৮ রানে নিয়ে যান এনামুল হক বিজয় ও সাব্বির রহমান রুম্মান। সেখান থেকে অন্তত দেড়শো পর্যন্ত যাওয়া খুবই সম্ভব ছিল। কিন্তু, আসল পতনের শুরু হয় সেখানেই। ৩৬ রানের মধ্যে ৩৭ রানের পতনে আর বড় রানের স্কোর গড়তে ব্যর্থ হয় বাংলাদেশ। নির্ধারিত ২০ ওভারে নয় উইকেট হারিয়ে ১৩৫ রানেই থেমে যায় স্বাগতিকদের ইনিংস।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে এটাই টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশের সর্বনিম্ন রান। দলের হয়ে ৫১ বলে সর্বোচ্চ ৪৭ রান করেন এনামুল হক বিজয়। জিম্বাবুয়ের হয়ে পেসার তিনাশে পানিয়াঙ্গারা নেন সর্বোচ্চ তিনটি উইকেট। এছাড়া নেভিল মাদজিভা দু’টি ও গ্রায়েম ক্রেমার দু’টি করে উইকেট নেন।

ক্রিকেট

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে