Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, সোমবার, ২০ জানুয়ারি, ২০২০ , ৬ মাঘ ১৪২৬

গড় রেটিং: 2.8/5 (32 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ১০-১০-২০১১

মায়ের ইচ্ছাতেই তিনি স্ট্রাইকার

মায়ের ইচ্ছাতেই তিনি স্ট্রাইকার
নিজেকে হয়তো হারিয়ে খুঁজছেন। তবে বিশ্বব্যাপী ফার্নান্দো তোরেসের খ্যাতি একজন জাত স্ট্রাইকার হিসেবেই। প্রতিপক্ষের রক্ষণদুর্গকে দুমড়ে-মুচড়ে গোল করা তাঁর অভ্যাস। ২০০১ সালে পেশাদার ফুটবলে অভিষেকের পর ক্লাব, জাতীয় দল মিলিয়ে ইতিমধ্যেই করে ফেলেছেন ২০০ গোলের বেশি। ৪৪ বছর অপেক্ষার পর তাঁর গোলই ২০০৮ সালে স্পেনকে ভাসিয়েছিল ইউরো জয়ের আনন্দে।
কিন্তু দৃশ্যটা এমনও হতে পারত, স্ট্রাইকার হিসেবে নয়, হাতে গ্লাভস পরে তোরেস দাঁড়িয়ে আছেন গোলপোস্টের নিচে! ভাইকে দেখে ছোট্ট তোরেস ফুটবল শুরু করেছিলেন গোলরক্ষক হিসেবে। কিন্তু তাঁর মা ওই ইচ্ছায় বাদ সাধেন। তোরেসই বলেছেন, মায়ের নিষেধাজ্ঞার কারণেই গোলরক্ষক হতে পারেননি।
একদিনের একটা ঘটনার কারণেই তোরেসকে গোলরক্ষক হতে মানা করেন মা। ?আমার ভাই ছিলেন গোলরক্ষক। আমিও রাস্তায় গোলরক্ষক হিসেবেই খেলাটা উপভোগ করতাম। একদিন বল লেগে আমার সামনের দাঁত পড়ে যায়। মা আমাকে আর গোলপোস্টে খেলতে দেননি??বলেছেন তোরেস। এর পরও অবশ্য অনুশীলনে প্রায়ই মাথায় চাপত গোলরক্ষক হওয়ার ভূত, ?যখন আমাদের নিজেদের পজিশন পছন্দ করার অনুমতি দেওয়া হয়, তখনো ওটা প্রায়ই আমার মাথায় আসত। আমি পছন্দ করতাম, লোকে আমার দিকে শট নিক এবং যত বেশি পারি আটকানোর চেষ্টা করি।?

ফুটবল

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে