Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, মঙ্গলবার, ১১ আগস্ট, ২০২০ , ২৭ শ্রাবণ ১৪২৭

গড় রেটিং: 2.0/5 (17 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)


আপডেট : ০৯-০৮-২০১৫

মন্ত্রী-এমপি হওয়া কঠিন কিছু নয়

মন্ত্রী-এমপি হওয়া কঠিন কিছু নয়

ঢাকা, ০৯ সেপ্টেম্বর- অনেক টাউট, বাটপার, যুদ্ধাপরাধী এদেশে মন্ত্রী হয়েছেন মন্তব্য করে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেছেন, ‘মন্ত্রী-এমপি হওয়া কঠিন কিছু নয়।’ মঙ্গলবার সন্ধ্যায় শিল্পকলা একাডেমীর সঙ্গীত ও নৃত্যকলা কেন্দ্র মিলনায়তনে স্বাধীন বাংলা বেতার কর্মী পরিষদের প্রথম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

মোজাম্মেল হক বলেন, ‘মন্ত্রীর চেয়ে খারাপ চাকরি আর নেই। একজন পিয়নকে ৩ মাসের বেতন দিয়ে বিদায় করতে হয়। মন্ত্রী বিদায় করতে কিছু লাগে না। শুধু মাত্র একটি লাল টেলিফোন আসলেই হলো।’ মন্ত্রী, এমপি হওয়া কঠিন কিছু নয় মন্তব্য করে তিনি বলেন, ‘কত টাউট, বাটপার, যুদ্ধাপরাধী এদেশে মন্ত্রী হয়েছে। মন্ত্রী, এমপি, রাষ্ট্রপতি হওয়া যাবে কিন্তু কেউ মুক্তিযোদ্ধা হতে পারবে না।’

মন্ত্রী নিজের কাজের মূল্যায়ন করতে গিয়ে বলেন, ‘এতদিন মনে হয়েছে ১০০ নম্বরের মধ্যে ২০ নম্বর পাব কিন্তু আজ এখানে এসে মনে হয়েছে বড়জোর ৫ নাম্বার দেয়া যাবে। মন্ত্রী হয়েছি ২০ মাস হয়েছে। এতদিন মনে হয়েছে এই ২০ মাসে কিছু একটু কাজ করেছি। ১০০ নম্বর এর মধ্যে অন্তত ২০ নম্বর পেতে পারি। আজকে এখানে এসে উপলব্দি হয়েছে ২০ তো দূরের কথা, যেখানে আছি সেখান থেকে বড়জোর ৫ নম্বর দেয়া যাবে।’
 
পাঠ্যসূচিতে অর্ধসত্য দিয়ে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস সন্নিবেশিত করা হয়েছে মন্তব্য করে মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রী বলেন, ‘বইতে শুধু মুক্তিযোদ্ধাদের ভূমিকা উল্লেখ করলে চলবে না ,রাজাকার আলবদরদের ভূমিকাও তুলে ধরতে হবে। তাহলে ভবিষ্যত প্রজন্ম বুঝতে পারবে সেসময় কার কী ভূমিকা ছিল। তখন সে ‘চুজ’ করবে কোন পথে যাবে।’ দেশের গর্বিত সন্তান বিসিএস ক্যাডারেরা অনেকেই স্বাধীনতার সঠিক ইতিহাস জানে না উল্লেখ করে তিনি আরো বলেন, ‘আগামী বিসিএস পরীক্ষা থেকে মুক্তিযুদ্ধের উপর ১০০ নম্বরের পরীক্ষা দিতে হবে। এতে শুধু ৯ মাসের সংগ্রামের ইতিহাস থাকবে না। ২৩ বছরের মুক্তিসংগ্রামের ইতিহাস তুলে আনা হবে।’
 
৭০ এর নির্বাচনে জয়ের কারণে স্বাধীনতা ঘোষণার অধিকার ছিল একমাত্র শেখ মুজিবের অন্য কারো নয় মন্তব্য করে আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, ‘সশ্রদ্ধ যুদ্ধে যারা অংশগ্রহণ করেছিল, শুধু তারাই মুক্তিযোদ্ধা নন। মুজিব নগর সরকারের কর্মকর্তা-কর্মচারী, স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের সকল শিল্পী ও কলাকৌশলী, তারাও মুক্তিযোদ্ধা। যারা দেশ বিদেশে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে জনমত সৃষ্টি করেছিলেন, তারাও মুক্তিযোদ্ধা। এমনকি যারা তাদের সবচেয়ে মূল্যবান সম্পদ সম্ভ্রম হারিয়েছেন সেই মা-বোনদেরও আমি মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে মনে করি।’
 
সংগঠনের সভাপতি কামাল লোহানীর সভাপতিত্বে এসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন, সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর এমপি, এছাড়া আরো বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক ডেপুটি গর্ভনর ইব্রাহীম খালেদ, স্বাধীন বাংলা বেতারের শব্দ সৈনিক সৈয়দ হাসান ইমাম, শব্দসৈনিক আশফাকুর রহমান খান প্রমুখ।

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে