Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, মঙ্গলবার, ২১ মে, ২০১৯ , ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.1/5 (19 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৯-০২-২০১৫

সিলেটের মহাসড়কের চারলেনের কাজ শুরু হচ্ছে ডিসেম্বরে

মিসবাহ উদ্দীন আহমদ


সিলেটের মহাসড়কের চারলেনের কাজ শুরু হচ্ছে ডিসেম্বরে

সিলেট, ০২ সেপ্টেম্বর - অবশেষে শুরু ডিসেম্বরেই শুরু হতে যাচ্ছে ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক চার লেনে উন্নীতকরণের কাজ। এমনটিই জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। দেশের অন্যান্য মহাসড়কের সাথে সিলেট-তামাবিল মহাসড়কও চার লেন করার ঘোষণা দেওয়া হয়েছিল আগস্ট মাসের শুরুর দিকে। এই মহাসড়কের নকশার কাজ চলছে। ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক ও সিলেট-তামাবিল মহাসড়ক চার লেনে উন্নীত হলে এ অঞ্চলের আর্থ-সামাজিক অবস্থা পাল্টে যাবে বলে মনে করছেন সিলেটের মানুষ। ঢাকা-সিলেট চারলেনের মাধ্যমে যোগাযোগ ব্যবস্থার আরো উন্নতি হবে। পাশাপাশি সড়ক দুর্ঘটনা বহুলাংশে হ্রাস হবে।

২২ আগস্ট ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক পরিদর্শনকালে সরাইল বিশ্বরোড মোড়ে সাংবাদিকদের এ খবর জানান। মন্ত্রী বলেন, সেপ্টেম্বর মাসে জয়দেবপুর-এলেঙ্গা মহাসড়ক চার লেনের কাজ শুরু হবে। এরপরই শুরু হবে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের কাজ। ইতিমধ্যে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের অর্থায়নে ১ হাজার ৭৫২ কিলোমিটার সড়কের ফিজিবিলিটি স্টাডি করা হয়েছে। সেগুলো ক্রমান্বয়ে চার লেনে উন্নীত করা হবে। সিলেট-ঢাকা মহাসড়ক চারলেনে উন্নীত করা হলে আরোও কম সময়ে ঢাকা-সিলেট যাতায়াত করা সম্ভব হবে। এতে দু’টি বিভাগের মধ্যে আন্ত:সম্পর্ক বহুলাংশে লাভবান হবে। উন্নতি ঘটবে ব্যবসা-বাণিজ্যের। বিশেষ করে সিলেটের পর্যটনের ক্ষেত্রে চারলেন যোগাযোগ ব্যবস্থা ইতিবাচক। মালামাল পরিবহনের ক্ষেত্রে চারলেন যোগাযোগ ব্যবস্থা অনেক সময় বাঁচাবে। এমনই মনে করেন সিলেট অঞ্চলের সাধারণ মানুষরা।

দেশের ১৬টি মহাসড়কের সাথে সিলেট-তামাবিল মহাসড়কটি এশিয়ান হাইওয়ের সাথে যুক্ত হওয়ার কথা রয়েছে। এই সড়ক দিয়ে ভারতে বিভিন্ন পণ্য আমদানি ও রফতানি হয়ে থাকে। ভারত থেকে তামাবিল শুল্ক স্টেশন দিয়ে আমদানিকৃত কয়লা, চুনাপাথর ও বোল্ডার পাথরসহ বিভিন্ন পণ্য এই সড়ক দিয়ে দেশের বিভিন্ন স্থানে নিয়ে যাওয়া হয়। এছাড়া ভারতে পণ্য রফতানিতেও ব্যবহৃত হয় সড়কটি। জাফলং কোয়ারি থেকে উত্তোলিত পাথরও সিলেট-তামাবিল মহাসড়ক দিয়ে পরিবহন করা হয়ে থাকে।

সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সড়ক পরিবহন এবং মহাসড়ক বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, এশীয়ান হাইওয়ের সাথে যুক্তকরণ ছাড়াও আন্তর্জাতিকমানের সড়ক তৈরির লক্ষ্যে দেশের সবক’টি মহাসড়কই চার লেনে উন্নীত করার মহাপরিকল্পনা সরকারের রয়েছে। বর্তমানে মহাসড়কগুলো খুবই দুর্বল অবস্থায় আছে। এসব মহাসড়কে মালবাহী ট্রাকের ধারণক্ষমতা ৮ দশমিক ২ টন। আঞ্চলিক যোগাযোগব্যবস্থা শুরু হলে ১২ টন ওজনের ট্রাক চলাচল করবে। তাই দুর্বল কাঠামোর মহাসড়ক সময়োপযোগী করে গড়ে তুলতে হবে।

সিলেট

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে