Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, রবিবার, ১৯ মে, ২০১৯ , ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

গড় রেটিং: 2.4/5 (17 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৮-২৭-২০১৫

আওয়ামী লীগের ৩ বর্ষীয়ান নেতার দুঃসময়

আওয়ামী লীগের ৩ বর্ষীয়ান নেতার দুঃসময়

সিলেট, ২৭ আগষ্ট- ভালো নেই আওয়ামী লীগের তিন বর্ষীয়ান নেতা। দুরারোগ্য ব্যধিতে আক্রান্ত হয়ে অনেকটা কাতর সময় পার করছেন তারা। তবুও সুস্থ হয়ে দলকে এখনো আরো সময় দিতে চান মেধাবী এই নেতারা। সিলেট আওয়ামী লীগকে নেতৃত্ব দেয়া সর্বজন শ্রদ্ধেয় তিন নেতা এডভোকেট সৈয়দ আবু নছর, আব্দুজ জহির চৌধুরী সুফিয়ান এবং আনম শফিকুল হক রোগমুক্তি কামনায় সিলেটসহ দেশবাসীর দোয়া চেয়েছেন। দলীয় বিভিন্ন আন্দোলনে তাদের অনুপস্থিতি অনুভব করছেন নেতাকর্মীরা। তারাও চাইছেন দলকে সংগঠিত রাখতে এই নেতাদের উপস্থিতির প্রয়োজন রয়েছে।

স্বাধীনতা সংগ্রামের পর সিলেটে আওয়ামী লীগকে সুসংগঠিত করতে অনবদ্য ভূমিকা রেখেছেন এডভোকেট সৈয়দ আবু নছর। শুধু আওয়ামী লীগ নয় সিলেটে গণতান্ত্রিক আন্দোলনে তার নাম জড়িয়ে আছে। সৎ ও নিষ্ঠাবান রাজনীতিবিদ হিসেবে সকল দলমত নির্বিশেষে তিনি ভালোবাসা ও শ্রদ্ধা অর্জন করেছেন। সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দু’বার করে দায়িত্ব পালন করেছেন বর্ষীয়ান এই নেতা। বঙ্গবন্ধুর অত্যন্ত কাছের মানুষ হিসেবে আবু নছর আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের মাঝে পরিচিত। মাঝখানে সক্রিয় রাজনীতি থেকে অনেকটা দুরে ছিলেন। ২০১৩ সালে তাকে আওয়ামী লীগের জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য হিসেবে অর্ন্তভূক্ত করা হয়। কিডনি ও হৃদরোগে আক্রান্ত বর্ষীয়ান এই নেতা বর্তমানে বাসায় শয্যাশায়ী। তবে ইদানিং তার শারীরিক অবস্থার কিছুটা উন্নতি হয়েছে বলে তার পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে।

যুক্তরাষ্ট্র থেকে চিকিৎসা নিয়ে ফিরেছেন সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের প্রশাসক আব্দুজ জহির চৌধুরী সুফিয়ান। অসুস্থতা আর বয়সের ভারে তিনিও অনেকটা বিপর্যস্ত। দীর্ঘদিন ধরে আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত এই ব্যক্তি ২০১১ সালে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতির দায়িত্ব লাভ করেন। দলকে সুসংগঠিত করতে তরুণ নেতাকর্মীদের সাথে পাল্লা দিয়ে কাজ করছেন। ২০১৫ সালের শুরুর দিকে শারীরিকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। তারপরও দলীয় কার্যক্রমে সরব উপস্থিতি ছিল তার। উন্নত চিকিৎসার্থে সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রে যান সুফিয়ান চৌধুরী। দুই মাস পর দেশে ফিরে নেতাকর্মীদের জানিয়েছিলেন পুরোপুরি সুস্থ হয়ে আবারো দলীয় কাজে মনোনিবেশ করতে চান তিনি। কিন্তু খাদ্যনালীর ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে বর্তমানে শয্যাশায়ী তিনি। সর্বশেষ শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় ওসমানী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন বর্ষীয়ান এই নেতা।
 
সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করা আ.ন.ম শফিকুল হকও ভালো নেই। লিভার সিরোসিস ও ক্যান্সারে ভূগছিলেন তিনি। ভারতে চিকিৎসা শেষে দেশে ফিরে সুস্থতার প্রহর গুনছেন আওয়ামী লীগের রাজনৈতিক অঙ্গণে সর্বত্র পরিচিত আ.ন.ম শফিক। সিলেটের রাজনীতিতে শক্তিশালী প্রভাব ছিল তার। সর্বশেষ সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন। পরবর্তীতে তাকেও আওয়ামী লীগের জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য হিসেবে অর্ন্তভূক্ত করা হয়। ভারতে চিকিৎসা শেষে বর্তমানে অনেকটা সুস্থ হয়ে ওঠা আনম শফিক জানিয়ছেন- আবারও রাজনীতির মাঠে ফিরতে চান তিনি।

সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার সম্পাদক মস্তাক আহমদ পলাশ বলেন-আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে এই নেতাদের অবদান অনেক। অভিভাবকতূল্য এই ব্যক্তিদের এখনো আমাদের প্রয়োজন। আমরা চাই তারা সুস্থ হয়ে আমাদেরকে নেতৃত্ব দেবেন। সিলেটের রাজনৈতিক অঙ্গণের অত্যন্ত মেধাবী এই নেতৃবৃন্দের আশু রোগমুক্তি কামনা করেছেন দলীয় সর্বস্তরের নেতাকর্মী। শুধু সিলেট নয় দেশের রাজনৈতিক অঙ্গনে তাদের পরিচিতির ফলে দেশ-বিদেশের শুভাকাঙ্খীদেরও সহমর্মিতা পাচ্ছেন তারা।

সিলেট

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে