Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, মঙ্গলবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ , ১৩ ফাল্গুন ১৪২৬

গড় রেটিং: 2.8/5 (82 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৮-২৭-২০১৫

কাতারে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতকে বিদায় সংবর্ধনা

মুসা আহমেদ বখ্তপুরী


কাতারে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতকে বিদায় সংবর্ধনা

দোহা, ২৬ আগষ্ট- কাতারে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত সৈয়দ মাসুদ মাহমুদ খোন্দকারকে বিদায়ী সংবর্ধনা দিয়েছে প্রবাসী বাংলাদেশিরা। ২৪ আগস্ট কাতারের রাজধানী দোহায় অবস্থিত ওরেক্স রোটানা হোটেলের একটি হলরুমে রাত ৯টায় এই সংবর্ধনানুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

ব্যাংকার শাহাদাত হোসেন ও প্রকৌশলী নুর মোহাম্মদ নূরের  যৌথ সঞ্চালনায়  সভাপতিত্ব করেন অনুষ্ঠানের আহ্বায়ক প্রকৌশলী জালাল আহমদ। 

 মঞ্চে আরও উপবিষ্ট ছিলেন চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক জসিম উদ্দীন শাহ, বাংলাদেশ কমিউনিটির পক্ষে আইইবি কাতার শাখার সভাপতি প্রকৌশলী আব্দুল্লাহ আল মামুন, কমিউনিটির নেতা এস. এম. ফরিদুল হক, ওমর ফারুক চৌধুরী, শামসউদ্দীন মন্ডল, ড. রাশেদ নুমান। বিদায়ী রাষ্ট্রদূতকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান অপূর্ব ভুঁইয়া এবং মিসেস রাষ্ট্রদূতকে তাহমিনা খানমকে বিদায়ী শুভেচ্ছা জানান মিস ফিদা। রাষ্ট্রদূতের হাতে উপহার তুলে দেন সভাপতি প্রকৌশলী জালাল আহমদ। 

বাংলাদেশ দূতাবাসের কাউন্সেলর কাজী মুহাম্মদ জাভেদ ইকবাল, শ্রম কাউন্সেলর ড. সিরাজুল ইসলাম, শ্রম সচিব রবিউল ইসলাম, দ্বিতীয় সচিব নাজমুল হকসহ প্রবাসী কমিউনিটির সামাজিক ও রাজনৈতিক নেতারা এসময় উপস্থিত ছিলেন। 

শুরুতে পবিত্র কুরআন থেকে তিলাওয়াত এবং মুনাজাত পরিচালনা করেন মাওলানা তাজুল ইসলাম। মুনাজাতে বিদায়ী রাষ্ট্রদূতের পরিবারসমেত দেশ ও জাতির কল্যাণ এবং ১৫ই আগস্ট শাহাদাৎবরণকারী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ সকল শহীদের রুহের মাগফেরাত কামনা করা হয়।

 বিদায়ী রাষ্ট্রদূতের সম্মানে মানপত্র পাঠ করেন প্রকৌশলী নুর মোহাম্মদ নূর। উপস্থাপক শাহাদাত হোসেন অনুষ্ঠনের শুরুতেই বিশেষ করে জাতীয় শোকের মাস হিসেবে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে স্মরণ করেন।তিনি বিদায় রাষ্ট্রদূত সৈয়দ মাসুদ মাহমুদ খোন্দাকারকে একজন দেশপ্রেমী দক্ষ কূটনৈতিক আখ্যাঁ দিয়ে ভূঁয়সী প্রশংসা করে বলেন, বিগত ২৮ মাস কাতারে বাংলাদেশের ৩৮ বছরের ইতিহাসে মাইলফলক হয়ে থাকবে। ১ লাখ ৩০ হাজার প্রবাসী বাংলাদেশি থেকে বর্তমানে দু লাখ ৬০ হাজারে বৃদ্ধি করার  জন্য তিনি স্মরণীয় হয়ে থাকবেন। 

শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন, কমিনিটির নেতা  আব্দুস সাত্তার। আরও বক্তব্য রাখেন আওমীলীগ নেতা প্রকৌশলী আবু রায়হান, শফিকুল ইসলাম তালুকদার বাবু, বঙ্গবন্ধু পরিষদের নেতা শফিকুল কাদের,  আনোয়ারুল ইসলাম শাহ, নুরুল আলম,  বিএনপি নেতা সালাহউদ্দীন, জাতীয় পার্টির নেতা আহমদ রিয়াজ, যুবনেতা শফিকুল ইসলাম শফিক, আওয়ামী লীগ নেতা শাহনেওয়াজ চৌধুরী, ব্যবসায়ী নেতা এম সাইফুল আলম, কফিলউদ্দীন ও আইইবি কাতার শাখার সাধারণ সম্পাদক আরিফুদ্দৌলা প্রমুখ।

রাষ্ট্রদূত সৈয়দ মাসুদ মাহমুদ খোন্দকার তাঁর বিদায়ী ভাষণের শুরুতেই জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করে বলেন বঙ্গবন্ধুর ডাকে দেশ স্বাধীন হয়েছে বলে আজ আমি রাষ্ট্রদূত হয়ে এখানে আসতে পেরেছি। দেশ স্বাধীন না হলে হয়তো আজ আমি রাষ্ট্রদূত হতে পারতাম না। আর জাতির জনকের স্বপ্নের সোনার বাংলার গড়ার প্রত্যয়ে আমি কাতার আসার পর বাংলাদেশীদের উজ্জীবিত রাখার প্রাণপণ চেষ্টা করেছি যাতে তাঁরা বিদেশের মাটিতে বাংলাদেশের মান সম্প্রসারণ করার পাশাপাশি জাতীয় অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারেন। রাষ্ট্রদূত আরো বলেন, আমি রাষ্ট্রদূতের দায়িত্ব নিয়ে কাতারে যখন আসি, তখন আমাদের লোক সংখ্যা ছিল এখানে সম্ভবত এক লাখের কিছু উপরে। বর্তমানে এর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে প্রায় দুইলাখ ষাট হাজার। আগামী এক বছরের মাথায় আমাদের লোক সংখ্যা প্রায় পাঁচ লাখেরও বেশি গিয়ে দাঁড়াবে ইনশাল্লাহ। ঢেলে সাজিয়েছি দূতাবাসকে, শিক্ষার্থীদের পড়লেখার মানউন্নয়নে ঢেলে সাজিয়েছি স্থানীয় বাংলাদেশ স্কুল এণ্ড কলেজকে। এটিই আমার দায়িত্ব পালনকালে বড় সফলতা। তিনি কাতারে বাংলাদেশি প্রবাসীদের ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, শোকের মাস বলে মূলতঃ আজ আমি এখানে সংবর্ধনা নিতে আসিনি, এসেছি আপনাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বিদায় নিতে।

বক্তারা বিদায়ী রাষ্ট্রদূতের কূটনৈতিক দক্ষতা, গঠনমূলক কর্মতৎপরতা, চারিত্রিক গুণাবলি এবং কাতারে বাংলাদেশি জনশক্তি বৃদ্ধি ও বাংলাদেশের ভাবমূর্তি উন্নয়নের ভূঁয়সী প্রশংসা করেন।
বক্তারা অত্যন্ত ভারাক্রান্ত কণ্ঠে বলেন, হৃদয় ব্যথায় বিদীর্ণ হয়ে যাচ্ছে। বড় করুন ‘বিদায়’ এ মর্মবাণী। বিদায়ের এই বেদনাবিধূর করুন মঞ্চে দাঁড়িয়ে কবির ভাষায় বলতে হয়, যেতে নাহি দেব হায়, তবু যেতে দিতে হয়। যাওয়া আসার এ রঙ্গীন পৃথিবীতে নিয়তির এটি এক অমোঘ বিধান। ভারাক্রান্ত হৃদয়ের অত্যন্ত সুগভীরে প্রতিধ্বণিত হচ্ছে আপনার অস্তিত্বের প্রতিধ্বনি। আপনি ছিলেন, আছেন, থাকবেন আমাদের স্মৃতির পাতায় পাতায়। আপনি এঁকে যাচ্ছেন যে কর্মপ্রেরণা আর ভালবাসার আলপনা, তা আমাদের মাঝে স্মরণী বরণীয় হয়ে থাকবে। শাশ্বত, সত্য ও সুন্দরের সাধনায় উৎসর্গীকৃত প্রাণ ও আপনার পথচারণায় আমাদের শিখিয়েছেন মাতৃভূমিকে সুগভীরভাবে ভালবাসার, শিখিয়েছেন, দেশ উন্নয়নের ক্ষেত্রে নিজেদেরন সর্বদা উজ্জীবিত থাকার। আপনার এই সত্য ও সুন্দরের পরম প্রকাশকে আমরা জানাই হৃদয় নিঃসৃত শ্রদ্ধাঞ্জলি ও আন্তরিক অভিনন্দন।

বিঃদ্রঃ শোকের মাসের প্রতি সম্মান রেখে বাড়তি কোন আয়োজন না করে অনুষ্ঠান সংক্ষিপ্ত করা হয়।

কাতার

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে