Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০ , ১৩ আশ্বিন ১৪২৭

গড় রেটিং: 1.5/5 (2 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৪-০৯-২০১২

জারদারি-মনমোহন বৈঠকে সমস্যা সমাধানের প্রত্যয়

জারদারি-মনমোহন বৈঠকে সমস্যা সমাধানের প্রত্যয়
প্রায় ৩০ মিনিটের বৈঠকে পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট আসিফ আলী জারদারি ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং দু’দেশের মধ্যে বিদ্যমান বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের প্রত্যয় ঘোষণা করলেন। প্রেসিডেন্ট হিসেবে এটিই জারদারির প্রথম ভারত সফর। গতকাল ব্যক্তিগত সফরে তিনি ভারত এলে প্রধানমন্ত্রীর ৭, রেসকোর্স রোডের বাসায় এ দু’নেতার বৈঠক হয়। জারদারি মূলত খাজা মঈনুদ্দিন চিশতি (রহ.)-র মাজার জিয়ারত করতে নিজের ছেলে বিলাওয়াল জারদারি ভুট্টোসহ ৪০ সফরসঙ্গী নিয়ে স্থানীয় সময় দুপুর ১২টা ১০ মিনিটের সময় নয়া দিল্লির পালাম বিমানবন্দরে অবতরণ করেন। এটি তার ব্যক্তিগত সফর হলেও তাকে মধ্যাহ্নভোজের আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং। বিমানবন্দর থেকে তাই জারদারি তার সফরসঙ্গীদের নিয়ে সোজা চলে যান ৭, রেসকোর্স রোডের বাড়িতে। সেখানে তার জন্য অপেক্ষায় ছিলেন মনমোহন সিং। ওই বাড়িতে ৩০ মিনিটের ওপরে দু’নেতা একান্তে মুখোমুখি আলোচনায় বসেন। এ সময় সেখানে অন্য কাউকে থাকতে দেয়া হয়নি। বৈঠক শেষে তারা যৌথ বিবৃতি দেন। এতে মনমোহন সিং বলেন- পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট মনমোহন সিং ব্যক্তিগত সফরে ভারতে এসেছেন। এ সুযোগটুকুর সদ্ব্যবহার করে আমি দ্বিপক্ষীয় বিভিন্ন বিষয়ে তার সঙ্গে আলোচনা করেছি। এ সফরের মাধ্যমে আমরা যা অর্জন করলাম তাতে আমি খুশি। প্রেসিডেন্ট জারদারিও আমাকে পাকিস্তান সফরের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। সুবিধাজনক কোন এক সময়ে পাকিস্তান সফরে যেতে পারলে আমি খুশি হবো। ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যকার সম্পর্ক স্বাভাবিক থাকবে। এটাই আমাদের অভিন্ন দৃষ্টিভঙ্গি। আমাদের সামনে অনেক ইস্যু আছে। আমরা সেগুলো সমাধানে আশাবাদী। আসিফ আলী জারদারি ও আমি এ বার্তাই আপনাদের কাছে পৌঁছে দিতে চাই। জবাবে আসিফ আলী জারদারি জানান, ভারতের প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং আমাকে আমন্ত্রণ জানানোয় আমি তার প্রতি কৃতজ্ঞ। আমি ব্যক্তিগত সফরে ভারত এলেও তিনি আমাকে মধ্যাহ্নভোজে আপ্যায়িত করেছেন। এরই মাঝে আমরা ফলপ্রসূ আলোচনা করেছি। ভারত ও পাকিস্তান প্রতিবেশী। আমরা ভারতের সঙ্গে সম্পর্ক উন্নত করতে চাই। আমরা সব বিষয় নিয়ে আলোচনা করেছি। আমরা এসব নিয়ে পাকিস্তানে ফের বসবো বলে আশাবাদী। ওদিকে প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংয়ের এ ভোজ অনুষ্ঠানে মুখোমুখি আলোচনায় বসেন দু’দেশের নতুন প্রজন্মের দুই নেতা। একজন ভারতের ক্ষমতাসীন দল কংগ্রেসের অন্যতম সাধারণ সম্পাদক রাহুল গান্ধী (৪০), অন্যজন পাকিস্তানের পাকিস্তান পিপলস পার্টি (পিপিপি)-র সভাপতি বিলাওয়াল জারদারি ভুট্টো (২৩)। দু’জনে একান্তে বৈঠক করার পর বিলাওয়াল বলেন, তাদের দু’জনের প্রত্যেকের কাছ থেকে প্রত্যেকের শেখার আছে অনেক। এর পরই পিতা জারদারির সঙ্গে তিনি আজমীর সফরে বেরিয়ে পড়েন। ওদিকে তার আজমীর সফর উপলক্ষে সেখানে নেয়া হয় কড়া নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা। ওই এলাকার দোকানপাট ঘরের জানালা পর্যন্ত বন্ধ রাখার নির্দেশ দেয়া হয়। গতকাল স্থানীয় সময় বিকাল ৪টায় আজমীর শরীফে দু’জোড়া কপোত-কপোতীর বিয়ে অনুষ্ঠানের কথা ছিল। কিন্তু জারদারির সফরের কারণে তা এগিয়ে এনে সকাল ১১টায় হয়। ওদিকে পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট আজমীর শরীফে আসছেন- এমনটা শুনে সর্বজিৎ সিংয়ের পরিবারের সদস্যরা তাকে মুক্তি দেয়ার আহ্বান সংবলিত ব্যানার নিয়ে হাজির হন। সর্বজিৎ সিং গত ২২ বছর পাকিস্তানের কারাগারে। মৃত্যুদণ্ড মাথায় নিয়ে তিনি দিন পার করছেন। কিন্তু তার শাস্তি লাঘব করে মুক্তি দেয়ার জন্য আহ্বান জানাচ্ছেন তারই ২৪ বছর বয়সী মেয়ে স্বপনদীপ কর, বোন দলবীর কর প্রমুখ। ভারত সফরের আগে জারদারি বৈঠক করে নেন প্রধানমন্ত্রী ইউসুফ রাজা গিলানি ও সেনাপ্রধান জেনারেল আশফাক পারভেজ কিয়ানির সঙ্গে।

এশিয়া

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে