Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শুক্রবার, ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৯ , ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.2/5 (29 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৩-৩০-২০১২

বিদ্যুতের দাম আবার বাড়ল

বিদ্যুতের দাম আবার বাড়ল
গ্রাহক পর্যায়ে খুচরা বিদ্যুতের দাম প্রতি ইউনিটে গড়ে ৩০ পয়সা এবং পাইকারি (বাল্ক) দাম ২৮ পয়সা হারে বাড়ানো হয়েছে। বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশনের (বিইআরসি) চেয়ারম্যান সৈয়দ ইউসুফ হোসেন বৃহস্পতিবার সংবাদ সম্মেলন করে এই নতুন দাম ঘোষণা করেন। তিনি বলেন, বিভিন্ন মাত্রায় ব্যবহারের ক্ষেত্রে ইউনিট হিসেবে বিভিন্ন হারে দাম বাড়ানো হলেও গড়ে খুচরা গ্রাহকদের ক্ষেত্রে প্রতি ইউনিটে দাম বাড়ছে ৩০ পয়সা। একইভাবে পাইকারি বিদ্যুতের দাম প্রতি ইউনিটে ২৮ পয়সা বাড়ছে। চলতি মাস থেকেই নতুন দাম কার্যকর হবে বলে জানান তিনি। এ নিয়ে চলতি বছরই দ্বিতীয় দফায় পাইকারি ও খুচরা বিদ্যুতের দাম বাড়ানো হলো। গত ১৩ মার্চ বিদ্যুতের পাইকারি দাম গড়ে ১১ শতাংশ হারে বাড়াতে বিইআরসির কাছে প্রস্তাব দেয় বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (পিডিবি)। পরে গত ১৯ মার্চ বিইআরসি কার্যালয়ে বিদ্যুতের পাইকারি দাম বাড়ানো নিয়ে গণশুনানি হয়। গণশুনানিতে বিইআরসির মূল্যায়ন কমিটি গড়ে পাঁচ দশমিক ৭৯ শতাংশ হারে দাম বাড়ানোর পক্ষে মত দেয়। গত বছরের ২৪ নভেম্বর বিদ্যুতের পাইকারি দাম দুই ধাপে বাড়ানোর ঘোষণা দেয় বিইআরসি। ওই ঘোষণা অনুযায়ী গত বছরেই তৃতীয় দফা এবং চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি থেকে এক দফা দাম বাড়ানো হয়। সে অনুযায়ী প্রতি ইউনিট বিদ্যুতের দাম ৩ টাকা ২৭ পয়সা থেকে ১৪ দশমিক ৩৭ শতাংশ বাড়িয়ে নির্ধারণ করা হয় ৩ টাকা ৭৪ পয়সা। যা ১ ফেব্রুয়ারি থেকে কার্যকর হয়। আর গ্রাহক পর্যায়ে প্রতি ইউনিট বিদ্যুতের খুচরা দাম গড়ে দুই ধাপে ২১ দশমিক ২৮ শতাংশ বাড়িয়ে ৪ টাকা ১৬ পয়সা থেকে ৫ টাকা ২ পয়সা নির্ধারণ করা হয় গত ২২ ডিসেম্বর। বর্ধিত ওই দাম প্রথম দফায় ১ ডিসেম্বর এবং দ্বিতীয় দফায় চলতি বছরের ১ ফেব্রুয়ারি থেকে কার্যকর হয়েছে। সব ধরনের জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানোকে কারণ দেখিয়ে পাইকারি পর্যায়ে বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর প্রস্তাব দেয় পিডিবি। প্রস্তাবে একইসঙ্গে বলা হয়, পাইকারি বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে বিতরণ কোম্পানিগুলোর দাম না বাড়ালে তারা আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবে, এতে গ্রাহকসেবার মান ব্যাহত হবে। পিডিবি একক ক্রেতা হিসেবে ইনডিপেন্ডেন্ট পাওয়ার প্রডিউসার (আইপিপি), ভাড়াভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র, ইলেক্ট্রিসিটি পাওয়ার জেনারেশন কোম্পানি লিমিটেড (ইজিসিবি) ও আশুগঞ্জ বিদ্যুৎকেন্দ্র থেকে বিদ্যুৎ কেনে। এই বিদ্যুৎ পাইকারি গ্রাহক ডিপিডিসি, ডেসকো, ওজোপাডিকো ও আরইবির কাছে এবং নিজস্ব বিতরণ অঞ্চলে খুচরা গ্রাহকের কাছে বিইআরসির নির্ধারিত দামে বিক্রি করে পিডিবি।

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে