Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শুক্রবার, ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৯ , ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 2.9/5 (35 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৪-২৬-২০১৫

মুশফিক যেখানে এগিয়ে ধোনির চেয়ে

মুশফিক যেখানে এগিয়ে ধোনির চেয়ে

ঢাকা, ২৬ এপ্রিল- বাংলাদেশের রান মেশিন হিসেবে ইতিমধ্যেই পরিচিতি পেয়ে গেছেন মুশফিকুর রহিম। তিনি এদেশের ক্রিকেটে যেন ধারাবাহিকতার প্রতিমূর্তি। প্রতিপক্ষের বোলারদের শাসন করে দলকে প্রতিনিয়তই দিয়ে যাচ্ছেন নির্ভরতা। কিন্তু ‘অন্য পরিচয়ে’ তিনি যে এই ফাঁকে ভারতীয় অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনিকেও ছাড়িয়ে গেছেন এই খবর রাখেন কজন?

মুশফিকের ‘অন্য পরিচয়’ বলতে তো কিপিংই। উইকেটের পেছনে দাঁড়িয়ে তিনি টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে খেলেছেন ৩৯টি ম্যাচ এই ৩৯টি ম্যাচে তাঁর মোট ডিসমিসালের সংখ্যা ৩৬টি। এরমধ্যে ক্যাচ আছে ২১টি, স্টাম্পিং ১৫টি। ভারতীয় অধিনায়কের ডিসমিসালের সংখ্যা ৩৬ হলেও (২৫ ক্যাচ, ১১ স্টাম্পিং) ম্যাচ খেলার দিক দিয়ে তিনি ধোনিকে ছাড়িয়ে গেছেন—একথা বলে দেওয়াই যায়। মুশফিুকের ৩৯টি ম্যাচের বিপরীতে ধোনির খেলা ম্যাচের সংখ্যা যে ৫০!

গত শুক্রবার পাকিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশের বড় জয়ের টি-টোয়েন্টি ম্যাচে মুশফিক উইকেটের পেছনে দাঁড়িয়ে ফেরান শহীদ আফ্রিদি ও মুখতার আহমেদকে। এই দুটি ডিসমিসালেই মোট শিকারে ধোনিকে ছুঁয়ে যান তিনি। ম্যাচের হিসেবে মুশফিকের এই রেকর্ড কিন্তু পুলক বোধ করার মতোই।

ধোনিকে ছাড়িয়েছেন মুশফিক ম্যাচের হিসেবে। ম্যাচের হিসেবে তো বটেই ডিসমিসালের হিসেবেও মুশফিক ছাড়িয়ে গেছেন নিউজিল্যান্ড কীপার ও অধিনায়ক ব্রেন্ডন ম্যাককালামকে। ৭০টি ম্যাচ খেলা ম্যাককালামের মোট ডিসমিসাল ৩৫টি।
এই তালিকায় মুশফিকুর রহিমের ওপরে আছেন মাত্র তিনজন উইকেটরক্ষক—পাকিস্তানের কামরান আকমল, ওয়েস্ট ইন্ডিজের দিনেশ রামদিন ও শ্রীলঙ্কার কুমার সাঙ্গাকারা। ৫৪ ম্যাচে কামরান আকমলের ডিসমিসাল ৬০টি। তিনি তালিকার শীর্ষেই আছেন। দ্বিতীয় স্থানে থাকা রামদিনের ৪৭ ডিসমিসাল ৫১ ম্যাচ খেলে। সাঙ্গাকারা ৫৬ ম্যাচ খেলে ব্যক্তিগত খাতায় লিখেছেন ৪৫ ডিসমিসাল।

২৬ এপ্রিল ২০১৫/১১:২৫পিএম/স্নিগ্ধা/

ক্রিকেট

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে