Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শনিবার, ১১ জুলাই, ২০২০ , ২৭ আষাঢ় ১৪২৭

গড় রেটিং: 3.7/5 (3 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৩-২২-২০১২

জনপ্রশাসনে লক্ষাধিক পদ শূন্য

জনপ্রশাসনে লক্ষাধিক পদ শূন্য
সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়, বিভাগ ও মাঠপর্যায়ে নন-ক্যাডার মঞ্জুরিকৃত ১২ লাখ ৫০ হাজার ৮৬১ পদের বিপরীতে শূন্য রয়েছে দুই লাখ ১০ হাজার ৮০১টি পদ। এরমধ্যে প্রথম শ্রেণীর ৩৫ হাজার ৪৬০, দ্বিতীয় শ্রেণীর ২২ হাজার ৪৩৬ পদশূন্য। এসব পদে নিয়োগের জন্য বিসিএসের মাধ্যমে যোগ্যপ্রার্থী বাছাই করা হলেও শূন্যপদ পূরণের কোনো অগ্রগতি নেই। জানা গেছে, সর্বশেষ ৩০তম বিসিএস পরীক্ষার চূড়ান্ত ফলাফলে ৫ হাজার ৮১০ জন উত্তীর্ণ হন। তাদের মধ্যে ২ হাজার ৩৬৭ জনকে বিভিন্ন ক্যাডারে নিয়োগ দেয়ার সুপারিশ করে সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি)। পিএসসি জানায়, পদের স্বল্পতার কারণে বাকি ৩ হাজার ৪৩ জন উত্তীর্ণ প্রার্থীকে ক্যাডারে নিয়োগের সুপারিশ করা সম্ভব হয়নি, কিন্তু ২০১০ সালের ১০ মে জারিকৃত 'নন ক্যাডার পদে নিয়োগ (বিশেষ) বিধিমালা-২০১০' অনুযায়ী তাদের প্রথম শ্রেণীর নন-ক্যাডার পদে নিয়োগের প্রচেষ্টা গ্রহণ করার কথা বলা হয়। এর প্রেক্ষিতে ৩০তম বিসিএসে উত্তীর্ণ ২ হাজার ৬৭২ জন প্রার্থী নন-ক্যাডারে চাকরির জন্য আবেদন করেন, কিন্তু জনপ্রসাশন মন্ত্রণালয় থেকে মাত্র ২৭৬টি শূন্য পদে নিয়োগদানের রিকুইজিশন দেয়া হয়েছে। ৩১তম বিসিএসের চূড়ান্ত ফল ঘোষণার আগে ৩০তম উত্তীর্ণদের নিয়োগ সম্পন্ন করার বাধ্যবাধকতা রয়েছে। এরফলে আবেদন করা ২ হাজার ৩৯৬জন যোগ্যপ্রার্থী চাকুরি থেকে বঞ্চিত হতে যাচ্ছেন। প্রজাতন্ত্রের কর্মী নিয়োগে উপযুক্ত ব্যক্তি মনোনয়নের উদ্দেশ্যে সরকারি কর্মকমিশন (পিএসসি) গঠন করা হয়। সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানটি প্রজাতন্ত্রের প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণীর কর্মকর্তা নিয়োগ দিয়ে থাকে। পিএসসি এ পর্যন্ত কমপক্ষে ২ হাজার যোগ্য প্রার্থীকে নিয়োগদানে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে কয়েকবার ডিমান্ড অর্ডার (ডিও) লেটার পাঠিয়েছে। তবে জনপ্রশাসন এ ব্যাপারে কোনো কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি। ২৮তম বিসিএসে উত্তীর্ণদের মধ্য থেকে তারা ২৯৮জন ও ২৯তম বিসিএসে ১৯১ জন প্রার্থীকে নিয়োগ দেয়। 'প্রতিটি ঘর থেকে একজন করে চাকরি দেয়া হবে' এটি ছিল বর্তমান মহাজোট সরকারের নির্বাচনী ইশতিহারে একটি অন্যতম প্রতিশ্রুতি। তিন বছর সময়কালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারি শূন্যপদ পূরণের জন্য সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় ও বিভাগকে বারবার নির্দেশ এবং প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় কয়েক দফা চিঠি দিয়ে তাগাদা দেয়া হলেও শূন্যপদ পূরণে গতি আসেনি বলে জানা গেছে। ২৮ ও ২৯তম বিসিএসে উত্তীর্ণ চাকরি বঞ্চিতরা এই প্রতিবেদকে জানান, যারা বিসিএসে চূড়ান্ত ফলাফলে উত্তীর্ণ হয়েছেন তাদের সবাই মেধাবী। ক্যাডারে পদ সংখ্যা কম ও বিভিন্ন কোটার ম্যারপ্যাচে অনেকেই চাকরি পাননি। তারপরও যোগ্য প্রার্থীদের নন-ক্যাডারে চাকরি দেয়া হলে সসম্যার কিছুটা সুরাহা হতো। দেশের বেকারত্ব কমার পাশাপাশি বর্তমান সরকারের চাকরি দেয়ার প্রতিশ্রুতি কিছুটা হলেও বাস্তবায়ন হতো। এ প্রসঙ্গে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক (ক্যাডার) আ.ই.ম নেছার উদ্দিন যায়যায়দিনকে বলেন, তীব্র প্রতিযোগিতামূলক বিসিএস পরীক্ষায় উত্তীর্ণরা সবাই মেধাবী। লক্ষাধিক পরীক্ষার্থী প্রাথমিক বাছাইয়ে (প্রিলিমিনারি পরীক্ষা) অংশগ্রহণ করেন। তারপর লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষার পর চূড়ান্ত ফল ঘোষণা করা হয়। এভাবে ৩০তম বিসিএসে চূড়ান্তভাবে ৫ হাজার ৮১০ জন উত্তীর্ণ হয়েছেন। তাদের মধ্যে ২ হাজার ৩৬৭ জনকে বিভিন্ন ক্যাডারে নিয়োগ দেয়ার সুপারিশ করা হয়েছে। অন্যদের নন-ক্যাডার বিধিমালা অনুযায়ী প্রথম শ্রেণীর নন-ক্যাডার পদে নিয়োগের জন্য রাখা হয়েছে। তবে পিএসসি পক্ষ থেকে তাদের নিয়োগের কোনো নিশ্চয়তা দেয়া হয় না। এক্ষেত্রে ৩০তম থেকে মাত্র ২৭৬ জনকে নন-ক্যাডারে নিয়োগের জন্য শূন্যপদ দেয়া হয়েছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে। তিনি বলেন, নন-ক্যাডারে নূ্যনতম ২ হাজার প্রার্থীকে চাকরি দিতে পারলে হতো। সরকারকে এ ব্যাপারে পিএসসি থেকে বহুবার ডিও লেটার দেয়া হয়েছে। শূন্য পদের শীর্ষ যারা : জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের হিসাব অনুযায়ী স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় এবং এর অধীনই সংস্থায় ৩৮ হাজার ৩৭২টি পদশূন্য রয়েছে। ৩৬ হাজার ৫৭৯টি পদ খালি রয়েছে অর্থ বিভাগের দপ্তর ও অধিদপ্তরগুলোতে। প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের দপ্তর ও অধিদপ্তরগুলোতে ১৪ হাজার ১৭৪, ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয় এবং এর আওতাধীন প্রতিষ্ঠানে ১২ হাজার ৭৩৩, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় ও এর আওতাধীন প্রতিষ্ঠানে ১২ হাজার ৯৯, শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও এর আওতাধীন প্রতিষ্ঠানে ১০ হাজার ৮৯৮, প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় ও এর আওতাধীন প্রতিষ্ঠানে ৯ হাজার ৯৮৬, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও এর আওতাধীন প্রতিষ্ঠানে ৮ হাজার ৯১৩, নৌ-পরিবহন মন্ত্রণালয় ও এর আওতাধীন দপ্তর-অধিদপ্তরে ৭ হাজার ৭৯, কৃষি মন্ত্রণালয় ও এর আওতাধীন প্রতিষ্ঠানে ৬ হাজার ৪৪৯, খাদ্য ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয় ও এর আওতাধীন প্রতিষ্ঠানে ৬ হাজার ৫৬১, স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় ও এর আওতাধীন ৫ হাজার ৬০৩, সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের ৩ হাজার ১৫২, বিদ্যুৎ ও জ্বালানি মন্ত্রণালয় ও এর আওতাধীন ৩ হাজার ৩৮৫, শিল্প মন্ত্রণালয় ও এর আওতাধীন প্রতিষ্ঠানে ৩ হাজার ৪২৪, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের আওতাধীন প্রতিষ্ঠানে ২ হাজার ৪৯৯, তথ্য মন্ত্রণালয় ও এর আওতাধীন প্রতিষ্ঠানে ২ হাজার ৫৭৪, বন ও পরিবেশ মন্ত্রণালয় এবং এর আওতাধীন প্রতিষ্ঠানে ২ হাজার ৯০১, বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয় এবং এর আওতাধীন প্রতিষ্ঠানে ২ হাজার ৪১৬টি এবং পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ে ২ হাজার ৪৮৫টি পদ খালি রয়েছে।

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে