Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, বৃহস্পতিবার, ৯ এপ্রিল, ২০২০ , ২৬ চৈত্র ১৪২৬

গড় রেটিং: 2.6/5 (19 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৩-২৫-২০১৫

ফ্রান্সে বিধ্বস্ত বিমানের সব আরোহীর মৃত্যু

ফ্রান্সে বিধ্বস্ত বিমানের সব আরোহীর মৃত্যু

প্যারিস, ২৪ মার্চ- জার্মানির রাষ্ট্রীয় বিমান সংস্থা লুফথানসার মালিকানাধীন সাশ্রয়ী বিমান পরিবহন নেটওয়ার্ক জার্মান উইংসের বিধ্বস্ত বিমানের ১৫০ জন আরোহীর কেউ বেঁচে নেই বলে জানিয়েছেন ফরাসি কর্মকর্তারা।

মঙ্গলবার স্পেনের বার্সেলোনা থেকে জার্মানির ডুসেলডর্ফ যাওয়ার পথে ফ্রান্সের আল্পস পর্বতমালায় বিমানটি বিধ্বস্ত হয় বলে জানিয়েছে বিবিসি।

এয়ারবাস কোম্পানির এ৩২০ বিমানটি আল্পসের ডিগনে ও বার্সিলোনেত্তি এলাকার মাঝামাঝি বিধ্বস্ত হয়েছে বলে জানিয়েছেন ফরাসি কর্মকর্তারা।

বিমানটির ফ্লাইট রেকর্ডার খুঁজে পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছে ফরাসি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়। সাগর সমতল থেকে ২০০০ মিটার (৬০০০ ফুট) উচ্চতায় রেকর্ডারটি পাওয়া গেছে।

কী কারণে বিমানটি বিধ্বস্ত হয়েছে তা শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত জানা যায়নি। দুর্ঘটনার আগে বিমানটি থেকে কোনো বিপদ সঙ্কেতও পাঠানো হয়নি।

যাত্রীদের মধ্যে জার্মানির একটি স্কুলের ১৬ জন শিক্ষার্থী ছিলেন। তারা স্পেন সফর শেষে ফিরছিলেন।

বিমানটির বিধ্বস্তের কারণ তদন্তের জন্য বুধবার বিধ্বস্ত বিমানের কয়েকটি খণ্ডাংশ সংগ্রহ করেছে ফরাসি তদন্তকারীরা।


উদ্ধার অভিযানের সঙ্গে জড়িত এক ব্যক্তি বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে জানিয়েছেন, যে ব্ল্যাক বক্সটি উদ্ধার করা হয়েছে তা বিমানের ককপিট ভয়েস রেকর্ডার। তদন্তকারীরা এখন বিমানের অপর ব্ল্যাক বক্স ফ্লাইট ডাটা রেকর্ডারটির খোঁজ করছেন। ডাটা রেকর্ডারে থাকা তথ্য বিমান দুর্ঘটনার কারণ উদঘাটন করতে সহায়তা করবে।

বুধবার বিকেলে ফরাসি বেসামরিক বিমান পরিবহনের তদন্তকারী সংস্থা বিইএ একটি সংবাদ সম্মেলন করবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

প্রাথমিক পর্যালোচনার পর যুক্তরাষ্ট্র বলেছে, বিমানটি সন্ত্রাসী হামলার কারণে বিধ্বস্ত হয়নি বলেই তাদের ধারণা।

অপরদিকে লুফথানসা জানিয়েছ, শোচনীয় ঘটনাটি একটি দুর্ঘটনা বিবেচনা ধরেই কাজ করছেন তারা, তবে অন্য সম্ভাবনাও মাথায় রাখছেন।

বুধবার ফরাসি প্রেসিডেন্ট ফ্রাঁসোয়া ওলাদ, জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মের্কেল ও স্পেনের প্রধানমন্ত্রী ম্যারিয়ানো রাজয়’কে সঙ্গে নিয়ে দুর্ঘটনাস্থল পরিদর্শন করবেন।

বিমানটিতে ৬৭ জার্মান নাগরিক ছিলেন বলে ধারণা করছে  জার্মান উইংস। বিমানটিতে স্পেনীয় নামের ৪৫ জন যাত্রী ছিলেন বলে জানিয়েছেন স্পেনীয়  উপপ্রধানমন্ত্রী।

অস্ট্রেলিয়ার ভিক্টোরিয়া রাজ্যের এক মা ও তার পূর্ণবয়স্ক ছেলে ওই বিমানে ছিলেন বলে জানিয়েছেন অস্ট্রেলীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী জুলি বিশপ। বিমানটিতে এক বেলজীয় নাগরিক ছিলেন বলে জানিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী।

বিমানটিতে যুক্তরাজ্যের কয়েকজন নাগরিক থেকে থাকতে পারেন বলে জানিয়েছেন ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী ফিলিপ হ্যামন্ড। বিষয়টি পরীক্ষা করে দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

জার্মান উইংস জানিয়েছে, সর্বোচ্চ উচ্চতায় ওঠার এক মিনিট পরই বিমানটি নিচে নামতে থাকে ও পরবর্তী আট মিনিট ধরে নামতে নামতে এক পর্যায়ে বিধ্বস্ত হয়।

এক সংবাদ সম্মেলনে কোম্পানিটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক থমাস উয়িঙ্কেলমান বলেছেন, “বিমানটি ফরাসি রাডারের সঙ্গে যোগাযোগ করেছিল। ফরাসি এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোল জানিয়েছে, মঙ্গলবার সকাল ১০টা ৫৩ মিনিটে প্রায় ৬০০০ ফুট উচ্চতা থেকে বিমানটি শেষবারের মতো যোগাযোগ করেছিল। তারপর বিমানটি বিধ্বস্ত হয়।”

২৫ মার্চ ২০১৫/০৪:২৬পিএম/স্নিগ্ধা/

মধ্যপ্রাচ্য

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে