Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, রবিবার, ১৯ জানুয়ারি, ২০২০ , ৬ মাঘ ১৪২৬

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৩-২০-২০১২

পদ্মা সেতুর অর্থায়নের প্রস্তাব পেলে বিবেচনা করবে চীন

পদ্মা সেতুর অর্থায়নের প্রস্তাব পেলে বিবেচনা করবে চীন
প্রস্তাব পেলে পদ্মা সেতুর অর্থায়নের বিষয়টি বিবেচনা করা হবে বলে জানিয়েছেন ঢাকায় নবনিযুক্ত চীনা রাষ্ট্রদূত লি জুন। দায়িত্ব নেয়ার পর গতকাল ঢাকায় তার প্রথম মিট দ্য প্রেস অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। রাষ্ট্রদূত বলেন, পদ্মা সেতুতে অর্থায়নের বিষয়ে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে এখনও কোন প্রস্তাব দেয়া হয়নি। সরকার আনুষ্ঠানিক প্রস্তাব দিলে চীন তা বিবেচনা করবে। বিশ্বব্যাংকের সঙ্গে বাংলাদেশ সরকারের চলা টানাপড়েন দূর করার পরামর্শ দিয়ে চীনা রাষ্ট্রদূত বলেন, বাংলাদেশের উন্নয়নের জন্য দুই পক্ষের সহযোগিতার বিষয়টি গুরুত্বপূর্ণ। অর্থনৈতিক অগ্রগতিতে বিশ্বব্যাংকের অবদান রয়েছে। পদ্মা সেতু ইস্যুতে যে টানাপড়েন চলছে তা নিরসন হবে বলেও আশা করেন তিনি। গতকাল জাতীয় প্রেস ক্লাব আয়োজিত মিট দ্য প্রেস অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন তিনি। রাষ্ট্রদূত বলেন, বাংলাদেশে গভীর সমুদ্র বন্দর নির্মাণে চীন সহায়তা দিতে আগ্রহী। এ সমুদ্রবন্দর নির্মিত হলে বাংলাদেশ গুরুত্বপূর্ণ আঞ্চলিক যোগাযোগের কেন্দ্রস্থলে পরিণত হবে। চীনা কোম্পানিও এ বিষয়ে সক্রিয় রয়েছে। তিনি বলেন, আঞ্চলিক যোগাযোগ শুধু অর্থনৈতিক উন্নয়নের ক্ষেত্রে সহায়তা করবে না বরং আঞ্চলিক শান্তি ও নিরাপত্তার জন্যও বড় ভূমিকা রাখবে। লি জুন বলেন, বাংলাদেশ ও চীনের মধ্যে চমৎকার সহযোগিতার সম্পর্ক বজায় রয়েছে। সম্পর্কের কারণে তৃতীয় কোন পক্ষের ক্ষতি হওয়ার কোন সম্ভাবনা নেই। তিনি বলেন, তার সরকার প্রতিবেশী দেশগুলোর মধ্যে উদ্বেগের বিষয়গুলো শেয়ার করে উন্নয়নের জন্য একসঙ্গে কাজ করতে চায়। প্রতিবেশীদের পরিবর্তন করাও যায় না আবার নিজেদের দেশকে সরিয়ে নেয়া যায় না বলে মন্তব্য করেন তিনি। ২০১০ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার চীন সফর এবং চীনের ভাইস প্রেসিডেন্ট জি জিনপিংয়ের সফল বাংলাদেশ সফরের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, দুই দেশ দীর্ঘমেয়াদি বন্ধুত্ব, সমতা ও পারস্পারিক স্বার্থের সম্পর্ককে ভিত্তি ধরে সমন্বিত অংশীদারিত্বের সম্পর্কোন্নয়ন ও প্রতিষ্ঠার বিষয়ে একমত হয়েছে। দুই দেশের অভিন্ন উন্নয়ন ও জনগণের কল্যাণে তিনি সর্বাত্মকভাবে কাজ করবেন বলে জানান।  বাংলাদেশে দায়িত্ব পালনকালে তিনি দুই দেশের শীর্ষ পর্যায়ের নেতৃবৃন্দের সফর ও যোগাযোগের ওপর গুরুত্ব দেবেন বলে জানান। এছাড়া সমতা ও দুই দেশের পারস্পারিক স্বার্থের ভিত্তিতে বাণিজ্য, বিনিয়োগ, কৃষি, যোগাযোগ ও অবকাঠামো খাতের উন্নয়নে জোর দেবেন। অন্যদিকে, জাতীয় ও আঞ্চলিক নিরাপত্তা ও স্থিতিশীলতার স্বার্থে দুই দেশের মধ্যে সামরিক সহযোগিতা বৃদ্ধি ও অর্থনৈতিক সঙ্কট, জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবিলা, বিদ্যুৎ ও খাদ্যনিরাপত্তার মতো আন্তর্জাতিক ও আঞ্চলিক ইস্যুতে সহযোগিতার সম্পর্ক উন্নয়নে তিনি চেষ্টা চালাবেন বলে জানান। প্রেস ক্লাব সভাপতি কামাল উদ্দিন সবুজ, সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আবদাল আহমদ অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন ক্লাবের কার্যনির্বাহী কমিটির কমিটির সদস্য জহিরুল আলম।

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে