Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শনিবার, ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ , ৯ ফাল্গুন ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (43 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৩-১৮-২০১৫

মার্চে ভারতের কাছে হারে না বাংলাদেশ

মার্চে ভারতের কাছে হারে না বাংলাদেশ

ঢাকা, ১৮ মার্চ- মার্চ বাংলাদেশের স্বাধীনতার মাস। মার্চ মাসটা বাংলাদেশের জন্য বড্ড আবেগের জায়গা। জাতীয় জীবনের ঘটনা ক্রিকেট মাঠে টানার দৃষ্টান্ত দেখা যায় কদাচিৎ।তবে একদমই অনপুস্থিত থাকে তা আবার নয়।

২০০৭

অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডে চলমান বিশ্বকাপ আবারও জাগিয়ে তুলেছে বাংলাদেশের আবেগের জায়গা। চলছে মার্চ মাস। ১৬ কোটি বাঙালির প্রত্যাশার চাপকে ধারণ করে বাংলাদেশ দল বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে উঠেছে। উঁকি দিচ্ছে বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে খেলার স্বপ্ন। তার আগে শেষ আটের লড়াইয়ে মাশরাফি বাহিনীকে হারাতে হবে পরাক্রমশালী ভারতকে। ১৯ মার্চ মেলবোর্নে বাংলাদেশ সময় সকাল সাড়ে ৯টায় ম্যাচটি শুরু হবে।  

উত্তাল মার্চের এই সময়ে টাইগারদের উজ্জীবিত করার টোটকা অনেক আছে। সবচেয়ে বড় আশ্রয় আবার খোদ বাংলাদেশ দলই অতীতে ভারতের বিরুদ্ধে গড়ে রেখেছে। কাকতলীয় হলেও সত্যি স্বাধীনতার মার্চ মাসে বাংলাদেশ কখনোই হারেনি ভারতের কাছে! দু্টি ম্যাচ খেলেছে দুদল। আর দুবার জয়ের বরমাল্য এসেছে টাইগারদের গলায়। অবিশ্বাস্য হলেও সত্যি, দুটি ম্যাচেই বাংলাদেশ জিতেছিল ৫ উইকেটে।  

মার্চে দুদল পরস্পর খেলেছেই দুটি ম্যাচ। প্রথম পর্বটা ২০০৭ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজে অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপে। পোর্ট অব স্পেনে ১৭ মার্চ অনুষ্ঠিত ম্যাচে বাংলাদেশ ৫ উইকেট হারিয়েছিল ভারতকে। মাশরাফির বন্ধু প্রয়াত মানজারুল ইসলাম রানার শোককে শক্তিতে রুপান্তর করে বাংলাদেশ পেয়েছিল দারুন জয়। যা বিশ্বকাপ থেকে সেবার গ্রুপ পর্বেই বিদায় করে দিয়েছিল শচিন টেন্ডুলকার, রাহুল দ্রাবিড় ও সৌরভ গাঙ্গুলিদের ভারতকে। মাশরাফির বোলিং তোপে ১৯১ রানে গুটিয়ে যায় ভারত। তামিম, মুশফিক, সাকিবের হাফ সেঞ্চুরিতে জিতেছিল বাংলাদেশ।

দ্বিতীয় পর্বটা নিকট অতীতে। ২০১২ সালের ১৬ মার্চ, এশিয়া কাপে। মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে ভারতকে ৫ উইকেটে পরাজয়ের স্বাদ পাইয়ে দিয়েছিল বাংলাদেশ। শচিন টেন্ডুলকারের সেঞ্চুরির সেঞ্চুরি রেকর্ড গড়ার ম্যাচটি ম্লান করে দিয়েছিল মুশফিকের দল। ভারতের ২৮৯ রানকে টপকে গিয়েছিল বাংলাদেশ তামিম, জহুরুল, নাসিরের হাফ সেঞ্চুরিতে।

বাংলাদেশ-ভারত ম্যাচ নিয়ে ইতোমধ্যে ক্রিকেট বিশ্বে তুমুল আলোচনার চলছে। দুদেশের ক্রিকেটপ্রেমীদের মধ্যেও উত্তেজনার ঝড় বইছে। প্রতিপক্ষ, দল হিসেবে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন ভারত বাংলাদেশের চেয়ে এগিয়ে। যা নিয়ে দ্বিমত নেই। তবে ভারত টাইগারদের কাছে অনাতিক্রম্য নয়, এটাও প্রমাণিত।

২০১২

বাংলাদেশ অপেক্ষায় আছে বিশ্বকাপে আরও একটি ভালো দিনের। যেখানে ব্যাটিং, বোলিং, ফিল্ডিং সবই লাল-সবুজের জয়গানের মঞ্চ তৈরি করবে। বিশ্বকাপে এখনও টাইগাররা দুর্দান্ত ক্রিকেট খেলছে বলে চাপে আছে ভারত। মাশরাফির দলকে সামলানোর আগে তাই কঠোর অনুশীলন করছে ধোনি বাহিনী।

ওয়ানডেতে ২৮ ম্যাচে দুদল মুখোমুখি হয়েছে। যার তিনটিতে বাংলাদেশ, ২৪টিতে ভারত জিতেছে, একটি পরিত্যক্ত।

১৮ মার্চ ২০১৫/০০ঃ৩০এএম/আনিকা/

ক্রিকেট

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে