Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, বুধবার, ২২ জানুয়ারি, ২০২০ , ৮ মাঘ ১৪২৬

গড় রেটিং: 2.4/5 (12 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৩-১৮-২০১২

সিলেটে ৭ হাজার কোটি টাকার উন্নয়ন প্রকল্প উদ্বোধন করা হবে

আহমেদ নূর


সিলেটে ৭ হাজার কোটি টাকার উন্নয়ন প্রকল্প উদ্বোধন করা হবে
আগামী ২৪ মার্চ সিলেটে আসছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সিলেট সফরকালে দুটি বিদ্যুৎকেন্দ্র এবং একটি সার কারখানাসহ প্রায় সাত হাজার কোটি টাকার উন্নয়ন প্রকল্প উদ্বোধন করবেন তিনি। সিলেটে জনসভায়ও বক্তব্য দেবেন। এবার প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর এটাই হবে সিলেটে তাঁর প্রথম জনসভা।
প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, শেখ হাসিনা ২৪ মার্চ সকাল ১০টায় হেলিকপ্টারযোগে সিলেটে আসবেন। সিলেটে দিনভর বিভিন্ন অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে সন্ধ্যায়ই তাঁর ঢাকায় ফেরার কথা। জানা যায়, ওই দিন সকালে তিনি সরাসরি সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলায় আসবেন। সেখানে তিনি নিজামপুর এলাকায় দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম সার কারখানার নির্মাণকাজ উদ্বোধন করবেন। এই প্রকল্পে ব্যয় হবে পাঁচ হাজার ৪০৯ কোটি টাকা। কারখানাটি নির্মিত হলে প্রতিদিন এক হাজার ৭৬০ টন করে বছরে পাঁচ লাখ ৮০ হাজার ৮০০ টন ইউরিয়া এবং প্রতিদিন এক হাজার টন করে বছরে তিন লাখ ৩০ হাজার টন অ্যামোনিয়া সার উৎপাদিত হবে।
শাহজালাল সার কারখানার নির্মাণকাজ উদ্বোধনের পর প্রধানমন্ত্রী একই উপজেলার পারুলীকোনায় ফেঞ্চুগঞ্জ ৯০ মেগাওয়াট সিসিপিপি পাওয়ার প্লান্টের দ্বিতীয় ইউনিট উদ্বোধন করবেন। এ প্লান্ট নির্মাণে ব্যয় হয়েছে ৫২৪ কোটি টাকা। এরপর দুপুরে সিলেট নগরের কুমারগাঁওয়ে ১৫০ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন কম্বাইন্ড সাইকেল বিদ্যুৎ উৎপাদনকেন্দ্র উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী। এই প্রকল্প বাস্তবায়নে ব্যয় হচ্ছে ৮৭৮ কোটি ৯৯ লাখ টাকা।
এরপর প্রধানমন্ত্রী সিলেট সিটি করপোরেশনের ১২তলা বিশিষ্ট ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করবেন। এজন্য প্রাথমিকভাবে ১০ কোটি ৭৯ লাখ টাকা ব্যয় বরাদ্দ রাখা হয়েছে। এ ছাড়া সিলেট শিক্ষাবোর্ড ভবন উদ্বোধনেরও কথা রয়েছে তাঁর।
শাহজালাল সার কারখানা নির্মাণের জন্য সমপ্রতি চীন-বাংলাদেশ সরকারের মধ্যে একটি চুক্তি হয়েছে। চুক্তি অনুযায়ী প্রকল্প বাস্তবায়নে চীন সরকার এবং চীনের এঙ্মি ব্যাংক মোট ব্যয়ের ৭০ শতাংশ ঋণ দেবে। ঋণের পরিমাণ প্রায় তিন হাজার ৯৮৬ কোটি টাকা। ঋণের বার্ষিক সুদের হার দুই শতাংশ। অবশিষ্ট এক হাজার ৪২৩ কোটি টাকা বাংলাদেশ সরকার নিজস্ব তহবিল থেকে জোগান দেবে। ১৯৯০ সালে বাংলাদেশে যমুনা সার কারখানা তৈরির ২০ বছর পর সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জে শাহজালাল সার কারখানা নির্মিত হচ্ছে।
শাহজালাল সার কারখানার প্রকল্প পরিচালক কামরুজ্জামান জানান, প্রকল্পের প্রাথমিক প্রস্তুতি এরই মধ্যে সম্পন্ন করা হয়েছে।
স্থানীয় সংসদ সদস্য মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী জানান, বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পরই শাহজালাল সার কারখানা বাস্তবায়নের উদ্যোগ নেওয়া হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শাহজালাল সার কারখানা স্থাপনের একটি অসাধ্য কাজকে সফল করে তুলেছেন।
কুমারগাঁও বিদ্যুৎকেন্দ্রের প্রকল্প পরিচালক প্রকৌশলী খন্দকার ইফতেখার উদ্দিন জানান, কেন্দ্রটি উদ্বোধনের জন্য ফাস্ট ফায়ারিংয়ের (গ্যাস টারবাইন পরীক্ষামূলকভাবে চালুর) কাজ চলছে। পুরো কাজের ৯৮ শতাংশ শেষ। প্রধানমন্ত্রী সিলেটে আসার আগেই এটি সম্পূর্ণভাবে প্রস্তুত করা হবে।

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে