Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শুক্রবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০১৯ , ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (57 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০২-২৩-২০১৫

স্ত্রীকে হোটেলে আলমারির পিছনে লুকিয়ে ধরা পড়ে গিয়েছিলেন সাকলাইন

স্ত্রীকে হোটেলে আলমারির পিছনে লুকিয়ে ধরা পড়ে গিয়েছিলেন সাকলাইন

১৯৯৯-এর বিশ্বকাপে বোর্ডের নিষেধাজ্ঞাকে তুড়ি মেরে স্ত্রীকে টিম হোটেলে নিজের রুমে লুকিয়ে রেখেছিলেন প্রাক্তন পাক স্পিনার সাকলাইন মুস্তাক। টিম ম্যানেজমেন্ট বা বোর্ড ঘুণাক্ষরেও কিছু জানতে না পারলেও দলের সতীর্থদের কাছে অবশ্য ধরা পড়ে গিয়েছিল ব্যাপারটা। সাকলাইন নিজেই এ কথা জানিয়েছেন।

বিদেশ সফরে খেলোয়াড়দের সঙ্গে তাঁদের স্ত্রী বা বান্ধবীদের থাকতে দেওয়া নিয়ে যখন বিতর্ক চলছে তখন সাকলাইন তাঁর ওই ঘটনার কথা ফাঁস করলেন।

সাকলাইন জানিয়েছেন, ১৯৯৯-এ বিশ্বকাপের শুরু থেকে স্ত্রী ও পরিবারকে কাছে রাখার অনুমতি পেয়েছিলেন পাক ক্রিকেটাররা। কিন্তু সেমিফাইনালের আগে টিম ম্যানেজমেন্ট নির্দেশ দেয়,  টিম হোটেলে ক্রিকেটারদের স্ত্রীরা থাকতে পারবেন না। কিন্তু সাকলিন বুঝতে পারছিলেন, স্ত্রীকে ছেড়ে থাকাটা খুবই কষ্টকর হয়ে উঠবে। তাই স্ত্রী সানাকে তিনি বলেন, আমি তোমাকে বাড়ি পাঠাতে পারবো না। তুমি আমার সঙ্গেই থাকবে।

এরপর তিনি স্ত্রীকে হোটেলের একটি তালিকা ধরিয়েছিলেন। যে হোটেলে পাক দলের থাকার কথা ছিল, সেই হোটেলে আগে থেকেই গিয়ে ওঠেন সানা। আর তারপর সোজা স্বামীর রুমে। যখনই সাকলাইনের রুমে কোচ বা অধিনায়ক আসতেন তখন সানাকে আলমারির পিছনে গিয়ে লুকিয়ে পড়তে হত।

এরইমধ্যে একদিন তাঁর রুমের দরজায় টোকা শুনে যথারীতি স্ত্রীকে আলমারির পিছনে লুকিয়ে যেতে বলে দরজা খোলেন। রুমে ঢোকেন মোহম্মদ ইউসুফ ও আজহার মেহমুদ। কয়েক মিনিট পরেই দুজনে হাসতে শুরু করেন। তাঁরা সাকলাইনকে বলেন, লুকিয়ে টুকিয়ে কাজ নেই। আমরা জানি তোমার স্ত্রী এই রুমেই আছে। এখন বাইরে বেরোলেই হয়।

ক্রিকেট

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে