Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, মঙ্গলবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৯ , ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 1.5/5 (31 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০১-২৩-২০১৫

আলোচনায় সাদ্দাম কন্যা রাঘাদ

আলোচনায় সাদ্দাম কন্যা রাঘাদ

আমমান, ২৩ জানুয়ারি- ইরাকের প্রাক্তন একনায়ক সাদ্দাম হুসেন তাঁর পিতা। উপসাগরীয় যুদ্ধের ভয়াবহ স্মৃতি এখনও পিছু তাড়া করে। নিষ্ঠুর বাবার হাতে স্বামীর খুন হওয়ার কথাও ভোলেননি তিনি। জর্ডানে নির্বাসিত রাঘাদ হুসেন তবু শিল্প সৃষ্টিতে মগ্ন।আইএস জঙ্গিদের প্রকাশ্যে সমর্থন করতে দ্বিধা বোধ করেন না প্রয়াত সাদ্দাম হুসেনের মেয়ে রাঘাদ।

কয়েক মাস আগে সাদ্দামের জন্মস্থান তিকরিত দখল করার পর মুক্তকণ্ঠে জঙ্গি সংগঠনের প্রশংসায় মুখর হয়েছিলেন তিনি। আসলে ইরাক থেকে পালিয়ে আসতে বাধ্য হলেও জন্মভূমির প্রতি তীব্র ভালোবাসা রয়ে গিয়েছে রাঘাদের। ইরাক বলতেই সাদ্দাম হুসেন। বড় মেয়ে রাঘাদের যখন ১০ বছর বয়স, সাদ্দাম ততদিনে দেশের প্রেসিডেন্ট।

১৯৮৩ সালে সাদ্দামের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা রিপাবলিকান গার্ড প্রধান হুসেন কামেল আল-মজিদকে বিয়ে করে সংসার পাতেন রাঘাদ। মাত্র ১৬ বছর বয়সে প্রথম সন্তান আলি-র জন্ম দেন। ছাব্বিশ বছর বয়সে তিনি আরও চার সন্তান-- দুই ছেলে সাদ্দাম ও ওয়াহেজ এবং দুই মেয়ে হারিস ও বানান-এর জন্ম দেন তিনি।

২০০৩ সালে ইরাকের পতন ও সাদ্দাম নিরুদ্দেশ হওয়ার পর বাগদাদের প্রাসাদ ছেড়ে জর্ডনে পালাতে বাধ্য হন রাঘাদ। তবে প্রবাসে মোটেই দুর্দশাগ্রস্ত হননি তিনি। বরং তাংর বিলাসবহুল জীবনযাপন দেখে জর্ডনবাসীর চোখ কপালে ওঠে। ফ্যাশনদুরস্ত পোশাক ও জুতো পরতে ভালোবাসেন রাঘাদ। শরীরের বাঁধন অটুট রাখতে অসংখ্য কসমেটিক সার্জারি করিয়েছেন। তাঁর গয়নার সম্ভার নিয়ে বিস্তর জল্পনা শোনা যায়। জানা যায়, সেই সব অলংকারের ডিজাইন নিজেই তৈরি করতে পছন্দ করেন তিনি। তবে শুধু নিজের জন্যই নয়, দস্তুরমতো গয়নার ব্যবসা ফেঁদে বসেছেন সাদ্দাম-কন্যা।


গয়নার নক্সাতে অবশ্য ফিরে ফিরে আসে ইরাক আর তাঁর শৈশবের নানা মুহূর্ত। দোর্দণ্ডপ্রতাপ পিতার উপহার দেওয়া বিশালাকৃতি ফিরোজা অপূর্ব সুন্দর এক নেকলেসে পরিণত করেছেন রাঘাদ। তেমনই স্বামী হুসেনের উপহার দেওয়া আংটি ভেঙে মেয়ের জন্য অপরূপ আংটিও গড়িয়ে দিয়েছেন তিনি।

উল্লেখ্য, ষড়যন্ত্রের অভিযোগে জামাতা হুসেনকে মৃত্যুদণ্ড দিতে দ্বিধা বোধ করেননি নির্মম একনায়ক। কিন্তু মৃত্যুর পর দু' জনের উপহারই সমান মর্যাদা দিয়ে রূপান্তর করেছেন রাঘাদ। কিন্তু নির্বাসিত সাদ্দাম কন্যার বিলাস-ব্যসনের খরচ আসে কোথা থেকে? অনেকের মতে, আশ্রয়দাতা জর্ডানের রাজ পরিবারই যাবতীয় ব্যয় করে থাকেন।

এহেন ফ্যাশন-দুরস্ত সৌখিন মেজাজের রাঘাদ আচমকা আইএসস জঙ্গি গোষ্ঠীকে সমর্থন করছেন বলে ঘোষণা করে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন। আসলে তাঁর মতোই সাদ্দামের অধুনা বিলুপ্ত 'বাথ পার্টি'র প্রাক্তন নেতারাও আইএস-কে সমর্থন করছেন। শুধু তাই নয়, উত্তর ইরাক দখল করতে জঙ্গিদের সাহায্য করছেন তাঁদের কেউ কেউ।

সাদ্দামের সাধের তিকরিত আইএস দখল করার পর উল্লাসে ফেটে পড়েন রাঘাদ। ইরাকি সংবাদপত্রে তিনি বিবৃতি দেন, 'এই জয় আমার বাবার হাতে তৈরি যোদ্ধাদের জয়।' আসলে প্রবাসে বসেও পিতৃ-স্মৃতিতে বিভোর রাঘাদ মমনে-প্রাণে সাদ্দামেরই স্বপ্ন দেখেন।

মধ্যপ্রাচ্য

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে