Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, রবিবার, ১৭ নভেম্বর, ২০১৯ , ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.3/5 (35 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০১-১৬-২০১৫

মুসলিম তরুণদের প্রতি ফরাসী নির্মাতার খোলা চিঠি

সেঁজুতি শোণিমা নদী


মুসলিম তরুণদের প্রতি ফরাসী নির্মাতার খোলা চিঠি

প্যারিস, ১৬ জানুয়ারি- ফ্রান্সের সাপ্তাহিক পত্রিকা শার্লি এব্দুতে সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে মুখর এখন গোটা বিশ্বই। সাধারণ মানুষ এবং বিশ্ব নেতৃবৃন্দের সঙ্গে একই কাতারে দাঁড়িয়ে ঘটনাটির নিন্দা জানাচ্ছেন বিনোদন জগতের বাসিন্দারাও। সম্প্রতি সেই দলে যোগ দিলেন ফরাসী নির্মাতা লুক বেসোঁ। দ্য গার্ডিয়ানে প্রকাশিত এক খোলা চিঠিতে মুসলিম তরুণদের প্রতি তিনি পৌঁছে দিলেন সহানুভূতির বার্তা। সেই সঙ্গে জানালেন, জাতিভেদ আর সামাজিক বৈষম্যকে রুখে দাঁড়াতে সন্ত্রাসবাদের আশ্রয় না নেওয়ার আহ্বান।

‘দ্য ফিফ্থ এলিমেন্ট’, ‘লিয়ন: দ্য প্রফেশনাল’, ‘লুসি’র মতো আলোচিত সিনেমার এই নির্মাতা তার চিঠিতে তুলে ধরেন ফ্রান্সে মুসলমান নাগরিকদের বঞ্চনার শিকার হওয়ার কথা। একই সঙ্গে সুন্দর আগামীর লক্ষ্যে একসঙ্গে কাজ করার অঙ্গীকার করেন।

চিঠির শুরুতেই বেসোঁ লেখেন, “আমার ভাইয়েরা, তোমরা যদি জানতে, আজ আমি তোমাদের জন্য কতোটা কষ্ট অনুভব করছি। তোমরা এবং তোমাদের অসাধারণ সুন্দর ধর্ম আজ অপমানিত, ভূলুণ্ঠিত এবং কোনঠাসা। তোমাদের শক্তি, সামর্থ্য, হৃদয়, রসবোধ এবং ভাতৃত্ববোধের কথা ভুলে গেছে সবাই। এটা অন্যায় এবং একসঙ্গে আমরা এই অবিচারের মোকাবেলা করবো। আমরা সেই লাখো মানুষ, যারা তোমাদের ভালবাসে, এবং যারা তোমাদের সাহায্য করতে চায়।”

ফ্রান্সের প্রথম সারির ফিল্ম স্টুডিও ইউরোপাকর্পের প্রতিষ্ঠাতা বেসোঁ আরও বলেন, ফ্রান্সের সমাজব্যবস্থা এখন কেবল অর্থ, লালসা, বিভক্তি এবং বর্ণবাদের উপর ভিত্তি করেই দাঁড়িয়ে আছে।

“এই সমাজ আজ গড়ে উঠছে অর্থ, লালসা, বিভক্তি এবং বর্ণবাদকে কেন্দ্র করে। কিছু কিছু শহরতলীতে এখন বেকারত্বের হার ২৫ থেকে ৫০ শতাংশ। তোমাদেরকে তুচ্ছ করে দেখা হয় কেবল তোমাদের নাম আর গায়ের রঙের কারণে। তোমাদেরকে দিনে ১০ বার করে জেরা করা হয়। ছোট ছোট অ্যাপার্টমেন্টে তোমরা গাদাগাদি করে থাক। তোমাদের কথা বলার কেউ নেই। এরকম অবস্থায় উন্নতি তো দূরের কথা, বাঁচতেই বা পারে কয়জন?”

বেসোঁ তার এই চিঠিতে বিশ্ব নেতৃবৃন্দের কাছেও আহ্বান জানান, এই সমস্যার সমাধান করতে।

“আমি নেতাদের, ক্ষমতাবানদের এবং শীর্ষস্থানীয় ব্যাক্তিদের আহ্বান জানাচ্ছি। এই তরুণদের সাহায্য করুন, যারা এতদিন বঞ্চনার শিকার হয়ে এসেছে এবং যারা শুধু চায় সমাজে তাদের সম্মানজনক অবস্থান। অর্থনীতি মানুষের জন্যই; এর উল্টোটা কখনো হওয়া উচিৎ না। ভাল কাজ করাটাই সবচেয়ে বড় লাভ।”

“আমরা কখনোই অন্যের দুর্দশার ওপর নিজেদের সুখ ও সচ্ছলতা গড়ে তুলতে পারি না। খৃষ্টান, ইহুদি, মুসলমান - কেউই তা পারেনা। এটা স্রেফ স্বার্থপরতা এবং এই প্রবণতা আমাদের পিঠ দেয়ালে ঠেকিয়ে দিচ্ছে।”

বেসোঁ এরপর আহ্বান জানান মুসলিম তরুণদের, সন্ত্রাসবাদের বদলে গণতন্ত্রকে বেছে নিতে।

“এবং তোমরা, আমার ভাইয়েরা, তোমাদেরও কিছু করার আছে। তোমরা কিভাবে এই সমাজকে বদলাতে পারো? তোমরা এটা করতে পারো, কাজ করে, পড়াশোনা করে, কালাশনিকভের (এক ধরনের অস্ত্র) বদলে পেন্সিল হাতে তুলে নিয়ে।”

“নিজের ভাগ্য নিজের হাতে তুলে নাও। ক্ষমতা নিজের হাতে নিয়ে নাও। একটা কালাশনিকভের দাম ২৫০ ইউরো, যেখানে একটা কলম কিনতে তিন ইউরোও লাগে না। আর তোমাদের প্রতিক্রিয়া এর থেকে শতগুণ বেশি কার্যকর হবে।”

“ক্ষমতা গণতান্ত্রিক উপায়ে নাও, তোমাদের সব ভাইদের সহযোগিতায়। সন্ত্রাসবাদ কখনোই জয়ী হবে না। ইতিহাস এর সাক্ষী।”

পরিশেষে তিনি লেখেন, “আগামীতে, আমার ভাইয়েরা, আমরা আরও কাছাকাছি আসবো, আমাদের মধ্যকার সংযোগ আরও দৃঢ় হবে, আমরা আরও শক্তিশালী হব। কিন্তু আজ, আমার ভাইয়েরা, আমি তোমাদের সঙ্গেই কাঁদছি।”

ইউরোপ

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে