Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, রবিবার, ১৭ নভেম্বর, ২০১৯ , ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 2.9/5 (36 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৩-০৭-২০১২

মধ্যপ্রাচ্য প্রবাসীদের মধ্যে গুজব ও আতংক ছড়াচ্ছে স্বার্থান্বেষী মহল

সিরাজুল হক মানিক


মধ্যপ্রাচ্য প্রবাসীদের মধ্যে গুজব ও আতংক ছড়াচ্ছে স্বার্থান্বেষী মহল
ঢাকায় সৌদি দূতাবাসের কর্মকর্তা খালাফ আল আলী নিহত হওয়ার ঘটনায় সৌদি আরবসহ গোটা মধ্যপ্রাচ্যে নানারকম গুজব ও আতংক ছড়াচ্ছে সৌদি আরবে বাংলাদেশী শ্রমবাজার ধ্বংস ও একচেটিয়া দখলদার স্বার্থন্বেষী মহলও কিছু অতি উৎসাহী প্রবাসী বাংলাদেশী।

এদিকে বাংলাদেশের অখ্যাত ও হলুদ সাংবাদিকতায় বিশ্বাসী কিছু পত্রিকাও নানারকম মিথ্যা ও বানোয়াট কল্প কাহীনি লিখতে পিছপা হচ্ছেনা। এতে করে প্রবাসী ও তাদের স্বজনের মাঝে নানারকম উদ্বেগ ও উৎকন্ঠা দেখা দিয়েছে। কেউ কেউ দেশ থেকে টেলিফোনের মাধ্যমে সার্বক্ষনিক যোগাযোগ রেখে আকামা সাবধানে রাখা, কারো সাথে কথা না বলা ও ঘর হতে বের না হওয়ার মত বিভিন্ন উপদেশ দিয়ে যাচ্ছেন প্রবাসীদের।

প্রায় ২৫ লক্ষ প্রবাসী বাংলাদেশীদের মাঝে এখন বিভিন্ন রকমের গুজবই মূখ্য হয়ে দাঁড়িয়েছে। এর মধ্যে প্রধান গুজবগুলোর অন্যতম হলো রিয়াদে ৪ জন, জেদ্দায় ১৪ জন, দাম্মামে ৫ জন বাংলাদেশী খুন, ব্যাপক ধরপাকড়, আকামা ছিঁড়ে ফেলা,  প্রবাসীদের দোকানে দোকানে ভাংচুর ও আগুন, সৌদি আরবের রাস্তাঘাটে যেখানে বাংলাদেশী সেখানেই মারধর ইত্যাদি ইত্যাদি। খবর নিয়ে জানা গেছে, গতকাল সৌদি আরবের পূর্বাঞ্চলীয় প্রদেশ দাম্মামে এক সৌদিকে গুলি করে হত্যার দায়ে পবিত্র কোরআনের আইন অনুযায়ী হত্যাকারী সৌদি নাগরিকের শিরচ্ছেদ করা হয়।

এদিকে গতকাল রাত ১০ ঘটিকায় রিয়াদে বাংলাদেশী অধ্যুষিত ব্যবসায়িক এলাকা ৫ বিল্ডিংএ অবৈধ দোকান ও ফুটপাতে হকার উচ্ছ্যেদ অভিযানে বলদিয়ায় (পৌরসভা কর্মকর্তা) হানা দেয়। এতে করে প্রবাসীদের মাঝে খুন ও দোকান ভাংচুরের গুজব অতিদ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। সৌদি আরবে বসবাসরত সচেতন প্রবাসী মহল মনে করেন, এ ধরনের গুজবের পিছনে লুকিয়ে রয়েছে সৌদি আরবের বাংলাদেশী শ্রমবাজার ধ্বংস ও একচেটিয়া দখলে নেয়ার ষড়যন্ত্রকারী ও স্বার্থন্বেষী মহল।

ঢাকায় কুটনৈতিক হত্যার ঘটনায় এই সুবিধাবাদী মহলটি নিরীহ প্রবাসী ও  সৌদি নাগরিকদের মাঝে নানারকম গুজব ছড়িয়ে দিয়ে পরিস্থিতি ঘোলাটে ও বাংলাদেশীদেরকে হেয় ও খাট করার চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে। অথচ এদেশের সরকার ও সাধারণ নাগরিকদের মাঝে ভ্রাতৃত্ব ও বন্ধুপ্রতিম দেশ হিসাবে বাংলাদেশীদের রয়েছে ব্যাপক চাহিদা। ইতোমধ্যে সৌদি আরবের প্রশাসনিক দপ্তরে লিপিবদ্ধ আছে প্রবাসীদের দ্বারা যে সমস্ত অপরাধ সংগঠিত হয়েছে তার ক্রমানুসারে প্রথমে রয়েছে ইয়েমেন, ভারত, পাকিস্তান ও মিশর। গুটিকয়েক খারাপ প্রকৃতির প্রবাসীর কারণে বাংলাদেশীদের স্থান রয়েছে পঞ্চমে। দেখা গেছে, এদেশে বিভিন্ন রকম অপরাধের অগ্রভাগে জড়িয়ে রয়েছে ভারতীয়রা। সৌদি আরবের শ্রমবাজারে ভারতীয় মিডিয়ার নগ্ন আগ্রাসন এবং বাংলাদেশী ও ভারতীয়দের চেহারা দেখতে এক হওয়ায় ভারতীয়রা বিভিন্ন রকম অপরাধ করে ধরা পড়লেও বাংলাদেশী বলে চালিয়ে দেয়।

এতে সৌদিদের মাঝে বাংলাদেশীদের সর্ম্পকে বিরূপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্ঠি হয়। এরই ধারাবাহিকতায় এবং বাংলাদেশ সরকারের কুটনীতিক তৎপরতার অভাবে সৌদি আরবে বাংলাদেশীরা পাহাড়সম সমস্যায় জর্জরিত ও পোহাতে হচ্ছে নানারকম দূর্ভোগ। সম্প্রতি বাংলাদেশের শ্রম ও জনশক্তি মন্ত্রীর নেতৃত্বে সরকারের উচ্চ পর্যায়ের একটি টিম সৌদি আরব সফরে এলে এদের মনোভাব কিছুটা পরিবর্তন হয়েছিল। কয়েকদিনের মধ্যে সৌদি আরবের উচ্চ পর্যায়ের একটি টিমও বাংলাদেশ সফর করার কথা ছিল।

এই পরিস্থিতিতে ঢাকায় সৌদি দূতাবাস কর্মকর্তা খুনের কারণে এই সফর আদৌ হবে কিনা সন্দেহ রয়েছে। তবে সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে যদি বাংলাদেশ সরকার এই ন্যাক্কারজনক খুনের রহস্য উদঘাটন ও খুনীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে পারে তাহলেই হয়তো প্রবাসীদের দূর্ভোগ কিছুটা লাগব ও কাটতে পারে সীমাহীন আতংক ও উৎকন্ঠা। ইতিহাস পর্যবেক্ষন করে দেখা গেছে, আরবের গোত্রীয় ধারাবাহিকতায় খুনের বদলা খুনের রেওয়াজ বছরের পর বছর ধরে চলতে থাকে। এহেন অবস্থায় যদিও বাংলাদেশে নিযুক্ত সৌদি সরকারের উপ-রাষ্ট্রদূত বলেছেন, এই খুনের কোন প্রভাব সৌদি আরবে প্রবাসীদের মাঝে পড়বেনা।

তথাপি ‘রক্তের বদলা রক্ত’ আরবীয়দের বংশ পরম্পরায় যে নীতি প্রচলিত আছে হয়তো তার বিরূপ প্রতিক্রিয়া নিরীহ বাংলাদেশীদের মাঝে পড়ার আশংকা কিছুতেই উড়িয়ে দেননা অভিজ্ঞ প্রবাসী মহল। তাছাড়া কয়েক বছর আগে থাইল্যান্ডে একজন সৌদি নাগরিক হত্যার দায়ে সৌদি আরবের সমস্ত থাইল্যান্ড প্রবাসীকে চলে যেতে হয়েছে খালি হাতে। প্রবাসীদের আশংকা, সাংবাদিক দম্পতি সাগর-রুনীর বিচার নিয়ে সরকারের গড়িমসির মতো কোনপ্রকার চতুরতা যদি বাংলাদেশ সরকার দেখায়, তাহলে প্রায় ২৫ লক্ষ প্রবাসীর ভাগ্য অনিশ্চিত হয়ে পড়বে এবং অন্ধকারের কালো থাবায় হরিয়ে যেতে পারে তাদের উজ্জল ভবিষ্যত। তাই বাংলাদেশ সরকারের প্রতি প্রবাসীদের দাবী, অনতিবিলম্বে এই জগন্য খুনের রহস্য বের করে দোষীদের দৃষ্ঠান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করে প্রবাসীদের সস্তি ফিরিয়ে দেয়া হোক।

সৌদি আরব

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে