Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, রবিবার, ২৬ জানুয়ারি, ২০২০ , ১২ মাঘ ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.5/5 (22 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৩-০৫-২০১২

ফুটপাতে আর মোটরসাইকেল চালানো যাবে না

ফুটপাতে আর মোটরসাইকেল চালানো যাবে না
ঢাকা, ৫ মার্চ- ৩০ দিনের মধ্যে ফুটওভার ব্রিজের দুই পাশে থাকা সকল বিলবোর্ড অপসারণের নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট। একইসঙ্গে ফুটপাত দিয়ে মোটরসাইকেল চলাচলের ওপরও নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে।

এ সংক্রান্ত পৃথক রিট আবেদনের শুনানি শেষে এসব অন্তবর্তী আদেশ দেন বিচারপতি মোহাম্মদ বজলুর রহমান ও বিচারপতি হাবিবুল গণির সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ।

অন্তবর্তী আদেশে আরো বলা হয়, ঢাকায় রেজিস্টিশেনকৃত যান্ত্রিক মটরযানের তালিকা আদালতে দাখিল করতে হবে বিআরটিএ কর্তপক্ষকে।
গত একবছরের রিকশা চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে কিনা, যদি নিষেধাজ্ঞা জারি হয় তাহলে কতটা বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়েছে তা ডিএমপি কমিশনারকে জানাতে হবে।

ঢাকা শহরের যান্ত্রিক পরিবহণের জন্য রাস্তার আয়তন, হাঁটার পথের আয়তন, ফুটওভার ব্রিজের সংখ্যা, জেব্রা ক্রসিংয়ের সংখ্যা কত, তা জানাতে হবে ঢাকা সিটি করপোরেশনকে।

আগামী ১০ এপ্রিল এসব বিষয়ে প্রতিবেদন আদালতে দাখিল করতে হবে।

এছাড়া পথচারীদের চলাচলের সুবিধার্থে কদম ফোয়ারা, হাইকোর্টের মাজার গেটের সামনের রাস্তা, ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট ও মৎস্য ভবনের সামনে জেব্রা ক্রসিং মার্ক করা এবং পর্যাপ্ত পুলিশ মোতায়েনের নির্দেশও দেওয়া হয়েছে।

ঢাকা শহরে রিকশা চলাচলে অযৌক্তিক নিষেধাজ্ঞা কেন অবৈধ ও বেআইনী ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন আদালত।  

একইসঙ্গে রিকশা ও বাইসাইকেল চলাচলে আলদা লেন তৈরির কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না, তাও জানতে চাওয়া হয়।

ফুটপাতে অবাধে চলাচলের জন্য যেসব প্রতিবন্ধকতা আছে তা দূর করতে কেন নির্দেশ হবে না তাও জানাতে হবে।  

ফুটপাতে চলাচলের ক্ষেত্রে নগরবাসীদের সমান সুবিধা নিশ্চিতে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না, হাঁটার জন্য এবং অযান্ত্রিক যানবাহনের জন্য প্রকল্প গ্রহণ ও বাস্তবায়নের কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না, তাও জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট।

এছাড়াও চলাচলের পর্যাপ্ত পথের ব্যবস্থা এবং হাঁটার পথ ও অযান্ত্রিক যানের জন্য আলাদা লেনের ব্যবস্থা করতে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না, তা জানতে চাওয়া হয়েছে এই রুলে।

মহানগর পরিবহণ (ট্রান্সপোর্ট) কর্তৃপক্ষ গঠন করতে এবং একইসঙ্গে গণপরিবহণের স্বাভাবিক চলাচল নিশ্চিত করতে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না, রুলে তাও জানতে চাওয়া হয়।

আগামী ৪ সপ্তাহের মধ্যে স্বরাষ্ট্র সচিব, যোগাযোগ সচিব, ডিএমপি কমিশনার, ঢাকা সিটি করপোরেশন উত্তর ও দক্ষিণের প্রশাসক, বিএরটিএর চেয়াম্যান, ডিসি ট্রাফিককে (দক্ষিণ) রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে। ,

আদালতে রিট আবেদন করেন কেএম জাবির ও আইনুন নাহার সিদ্দীকা।

রিটের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট ওয়ালীর রহমান খান ও এম এ হাসনাত। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অমিত তালুকদার।

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে