Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, বুধবার, ১৭ জুলাই, ২০১৯ , ২ শ্রাবণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.3/5 (27 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ১২-০৭-২০১৪

ক্রিকেট তোমাকে ভুলবে না

নাহিদ খান


ক্রিকেট তোমাকে ভুলবে না

মেলবোর্ন, ০৭ ডিসেম্বর- খেলার মাঠের একটি দুর্ঘটনা কীভাবে এক করল গোটা পৃথিবীর ক্রিকেটপ্রেমীদের? ফিলিপ হিউজ অকালে চলে গিয়ে কীভাবে জানিয়ে গেলেন খেলার চেয়েও বড় মানুষের প্রতি মানুষের ভালোবাসা?

ফিলিপ হিউজ (১৯৮৮–২০১৪)ফিলিপ হিউজের শেষ স্কোর—অপরাজিত ৬৩ রান, আহত। সদা হাস্যময় তরুণ সম্ভাবনাময় ক্রিকেটার ফিলের রানের পরিসংখ্যানটি হঠাৎ করে থেমে গেল ব্যাট করতে করতেই। স্কোর বোর্ডে আর একটি রানও যোগ হবে না ফিলের নামের পাশে। ফিলিপ থেকে গেলেন আজন্ম
‘নট আউট’।

ক্রিকেট-অন্তঃপ্রাণ অস্ট্রেলিয়া। ক্রিকেট জনজীবনের একটা বড় অংশ এ দেশে। ‘ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া’ কত বিচার-বিশ্লেষণ, হিসাব-নিকাশ, পরিকল্পনা করে প্রতিটি খেলার আগে-পরে, কিন্তু এই অদ্ভুত দুর্ঘটনার জন্য কেউ তৈরি ছিল না।

শেফিল্ড শিল্ড টুর্নামেন্টে শন অ্যাবটের বাউন্সার বলের প্রতিপক্ষে ব্যাট করতে গিয়ে বলটা লেগে গেল ফিলের মাথার ভুল জায়গায়। হেলমেট পরে থাকা সত্ত্বেও বেকায়দা আচমকা আঘাতে পড়ে গেলেন মাটিতে, দুই দিনের মাথায় চলে গেলেন না-ফেরার দেশে। তাঁর প্রিয় জায়গা ক্রিকেট পিচ থেকে সরাসরি জীবনের অন্য পারে।

হতভম্ব আয়োজকেরা প্রথমেই টুর্নামেন্টের বাকি খেলা বন্ধ ঘোষণা করে দিল। তারপর আর কী করবে তারা যেন খেই হারিয়ে ফেলেছে। মাত্র এক সপ্তাহের মধ্যে ভারতের সঙ্গে টেস্ট শুরু (ভারত-অস্ট্রেলিয়ার প্রথম টেস্ট স্থগিত)। কিন্তু দলের অন্য খেলোয়াড়েরা কীভাবে আবার ব্যাট হাতে তুলে নেবেন, বোলারদেরও তো শুধু মনে পড়বে একটা দুর্ভাগা বলের কারণে ফিল চলে গেছেন। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার প্রধান জেমস সাদারল্যান্ড বললেন, অস্ট্রেলিয়ার দল শুধু তখনই খেলবে, যখন তারা মনের দিক থেকে তৈরি হবে। তা ছাড়া ফিল হিউজের বাবা-মায়ের মনের অবস্থাকেও শ্রদ্ধা জানাতে তাঁদের ইচ্ছার ওপরও জোর দিতে হবে, তাঁদের সময় দিতে হবে, এক্ষুনি তো এই প্রশ্ন করার সময় আসেনি। তিনি এই অনিশ্চিত পরিস্থিতিতে সহযোগিতা করার জন্য ভারত দলের প্রশংসা করেন। তিনি বলেন, সবাই ক্রিকেট ভালোবাসে, কিন্তু ফিলকে যে ক্রিকেটের চেয়েও বেশি ভালোবাসে।

এই একটি দুর্ঘটনা অস্ট্রেলিয়া পেরিয়ে গোটা পৃথিবীর ক্রিকেটপ্রেমীদের এক জায়গায় এনে দিয়েছে, যেখানে সবকিছুর ঊর্ধ্বে মানুষ আর মানুষের প্রতি মানুষের ভালোবাসা।


সিডনির এক বাবা একটি ছোট প্রতীকী শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য বাড়ির সদরে ক্রিকেট-ব্যাটের ওপর ক্রিকেট ক্যাপ পরিয়ে রেখে সে ছবি টুইটারে পোস্ট করতেই সবাই সেটা অনুসরণ করতে থাকল। পৃথিবীর প্রতিটি ক্রিকেট খেলার দেশ থেকে সেরা খেলোয়াড়েরা পাঠাচ্ছেন শোকবার্তা। একেকটা বাণী যখন মিডিয়াগুলোতে প্রকাশ করা হয়, তখন আবেগাপ্লুত হতে হয়। ইংলিশ অধিনায়ক বলেছেন, ‘১৩৭ বছরের অ্যাশেজের ইতিহাস মনে হচ্ছে অর্থহীন, যখন এ খেলা খেলতেই এমন একটি তরুণ প্রাণ আমরা হারালাম’। সর্বকোণের সব মানুষকে ছুঁয়ে গেছে ফিলিপের প্রাণ।

বেদনাবিধুর শেষকৃত্য
সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ডের সদর দরজা এখন ফুলে ফুলে আর ভালোবাসার লেখায় ভরে গেছে। অস্ট্রেলিয়ার প্রতিটি ক্রিকেট গ্রাউন্ডে রয়েছে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত। সেদিন যেখানে যে খেলাই হয়েছে ফুটবল হোক আর গলফ হোক, সবাই পরেছেন কালো ব্যাজ।
এ সপ্তাহের ছোটদের প্রতিটি খেলায় অবসর নেওয়ার রান সংখ্যা বেঁধে দেওয়া হয়েছে ৬৩। ফিলকে সবাই মনে রাখবে চিরকাল, ৬৩ রানে অপরাজিত। ঠিক করা হয়েছে, সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ডে আবার যেদিন প্রথম খেলা হবে, সেদিন এক মিনিট নীরবতার বদলে এক মিনিট হাততালি দেওয়া হবে জীবনের চেয়েও বড় ফিলিপের অর্জনকে অভিনন্দন জানাতে। একেই বোধ হয় বলে শোককে শক্তিতে রূপায়িত করা। অস্ট্রেলিয়ানরা সেটা খুব পারে।
যে যার জায়গা থেকেই এই শোকের সঙ্গে একাত্ম হয়ে গেছে, দেশব্যাপী যেন একটি অঘোষিত জাতীয় শোক দিবস পালিত হয়েছে।

এত কিছুর মধ্যে সেই বোলার শন অ্যাবটকেও কেউ ভুলে যাননি। সবাই তাঁকে সহানুভূতির সঙ্গে সান্ত্বনার কাঁধ এগিয়ে দিচ্ছেন। এমনকি ফিলের বোন মেগান শনের পাশে বসে থেকেছেন, মুখে কিছু না বললেও মনে মনে বলেছেন, মন খারাপ কোরো না, এটা তোমার দোষ নয়, এটা একটা দুর্ঘটনা, একটা বেদনাবিধুর দুর্ঘটনা।

ক্রিকেট

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে