Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, সোমবার, ২০ জানুয়ারি, ২০২০ , ৭ মাঘ ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.6/5 (15 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০২-২৯-২০১২

এক-দুই দশকের মধ্যে বাংলাদেশ হবে মধ্য আয়ের দেশ

এক-দুই দশকের মধ্যে বাংলাদেশ হবে মধ্য আয়ের দেশ
রাজশাহী সফররত বাংলাদেশে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত ড্যান মজিনা বলেছেন, এক বা দুই দশকের মধ্যে বাংলাদেশ একটি মধ্য আয়ের দেশে পরিণত হবে। এই বাংলাদেশ, এই নতুন বাংলাদেশ, এই সোনার বাংলাদেশ-এর সব নাগরিকের জন্য বয়ে আনবে সমৃদ্ধি, সুস্বাস্থ্য, শিক্ষা ও আশা। এই সোনার বাংলাদেশ এমনি হবে না, জনগণ এটি গড়বে, আপনাদের মতো মানুষ যারা নিজেদের দেশের ব্যাপারে যত্নশীল তারাই এটিকে বাস্তবে রূপ দেবেন। গতকাল বিকালে তিনি রাজশাহীতে বাংলাদেশের স্বেচ্ছাসেবকদের জেলা কমিটির উদ্বোধনীতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ আশাবাদ ব্যক্ত করেন। অনুষ্ঠানে জাগো ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি কলভি রাকসান্ড, ভলান্টিয়ার ফর বাংলাদেশের রাজশাহী সভাপতি সৌমিক চৌধুরী তূর্য ও কেবি গ্রুপের মঈন চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে রাষ্ট্রদূত সাংবাদিক দম্পতি সাগর-রুনি হত্যাকাণ্ডকে নির্মম ও দুঃখজনক আখ্যায়িত করে বলেছেন, এই হত্যাকাণ্ড গণতন্ত্রের জন্য শুভকর নয়। উন্নয়নের স্বার্থে মিডিয়ার গুরুত্ব অপরিসীম। আর এতে যদি আঘাত আসে তা আশঙ্কাজনক। এ ব্যাপারে পুলিশ যথাযথ পদক্ষেপ নেবে বলে আশা করেন তিনি। পরে রাষ্ট্রদূত ড্যান মজিনা মহানগরীর একটি কমিউনিটি সেন্টারে ল্যাঙ্গুয়েজ প্রফিশিয়েন্সি সেন্টার আয়োজিত মাদরাসা শিক্ষকদের ইংরেজি ভাষা কোর্সের প্রশিক্ষণ সমাপনী ও সার্টিফিকেট বিতরণী অনুষ্ঠানে যোগ দেন। এ সময় তিনি তার বক্তব্যে বলেন, এই জাতিকে গড়ে তুলতে আপনারা যে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছেন সে জন্যও আমি আপনাদের অভিনন্দন জানাই। কারণ, বস্তুত আপনারা পরবর্তী প্রজন্ম গড়ে তুলছেন। আপনারা একটি নতুন বাংলাদেশ, সোনালি বাংলাদেশ গড়ে তুলতে সাহায্য করছেন, যে বাংলাদেশ আজ থেকে দশ-পনের বছরের মধ্যে একটি মধ্য আয়ের দেশে পরিণত হতে পারে। আপনারা একটি সমৃদ্ধশালী, সুস্থ, স্থিতিশীল, সুযোগ-সুবিধা ও আশা-আকাঙ্ক্ষায় পরিপূর্ণ বাংলাদেশ গড়ে তুলতে সহায়তা করছেন। এই বাংলাদেশ এখন আর কোন স্বপ্ন নয়। আর আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি যে, আমার নিজের জীবদ্দশায়ই এই বাংলাদেশ বাস্তবে রূপ নিতে পারে। অবশ্যই, এই সোনালি বাংলাদেশ সঠিকভাবে গড়ে তোলার সমীকরণের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ উপাদান নির্ভর করছে বিশ্ব বাজারে বিভিন্ন পণ্য, সেবা এবং বিশেষ করে তথ্য, নতুন নতুন ধারণা এবং আপনাদের অর্জিত দক্ষতা দিয়ে আপনারা এই জাতিকে কতটা দক্ষ করে তুলবেন তার ওপর। তিনি বলেন, ইংরেজি বিশ্ব বাজারের ভাষা। এই ভাষা বিশ্বের বাণিজ্য ও তথ্যের দুয়ার উন্মুক্ত করে দেয় আমাদের সামনে। আর এই চাবিই, এই উপহারই আপনারা আপনাদের প্রত্যেকটি সৌভাগ্যবান ছাত্রছাত্রীদের হাতে তুলে দেবেন। আমি নিশ্চিত যে, আপনাদের ছাত্রছাত্রীরা এখন আরও ভাল করে এই বিশ্বকে আবিষ্কার করতে পারবে। ভবিষ্যতের বিশ্বকে। যে বিশ্বের ভবিষ্যৎ তাদের হাতে। আপনাদের ছাত্রছাত্রীরা যখন এই বিশ্বের দুয়ার খুলবে, তখন তারা কেবল নিজেদের সমৃদ্ধ করবে তা-ই নয়, তারা বাংলাদেশকেও সমৃদ্ধ করবে; ধারণা ও বাণিজ্যের বিশ্ববাজারের সঙ্গে আগের চাইতে আরও অধিকতরভাবে বাংলাদেশকে যুক্ত করা সম্ভবপর করে তুলবে তারা। আমি বিশ্বাস করি, আপনারা এবং আপনাদের সহযোগী শিক্ষকেরা এই নতুন বাংলাদেশ, সোনালি বাংলাদেশ, আমাদের স্বপ্নের বাংলাদেশ গড়ে তোলার ক্ষেত্রে একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবেন। আর আমি আশা করি এই উদ্যোগে আপনাদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকায় আপনারা গর্বিত। শিক্ষকদের সনদপত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে ল্যাঙ্গুয়েজ প্রফিশিয়েন্সি সেন্টারের পরিচালক জাভেদ হায়দার করিম ও সমন্বয়কারী ইমরোজ মোহাম্মদ শোয়েব উপস্থিত ছিলেন। ৫ দিনের সফরে মার্কিন রাষ্ট্রদূত এখন রাজশাহীতে অবস্থান করছেন।
রাজনৈতিক সঙ্কট নিরসনে আবারও সংলাপে বসার তাগিদ: এদিকে আমাদের নওগাঁ প্রতিনিধি জানান, দুপুরে জেলার বদলগাছী উপজেলার ঐতিহাসিক পাহাড়পুর বৌদ্ধ বিহার পরিদর্শনে এসে মার্কিন রাষ্ট্রদূত রাজনৈতিক সঙ্কট নিরসনে আবারও সংলাপে বসার তাগিদ দিয়েছেন। বলেছেন, সংলাপের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের রাজনৈতিক সঙ্কট দূর করতে সরকার ও বিরোধী দলকে এগিয়ে আসতে হবে। সঠিক গণতন্ত্র চর্চার মাধ্যমে সকল সমস্যার সমাধান সম্ভব। এক্ষেত্রে সরকার ও বিরোধী দলকে এক কাতারে আসা দরকার। দেশের উত্তরাঞ্চল সফরের ৫ দিনের শেষ দিনে রাজশাহী থেকে সড়ক পথে ড্যান মজিনা ও তার স্ত্রী গ্রেস মজিনা বেলা সাড়ে ১০টার দিকে বৌদ্ধ বিহারে আসেন। বিহারের সামনে তাদের ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান নওগাঁ জেলা প্রশাসক ড. নাজমাআরা খানম, পুলিশ সুপার ওয়াই এম বেলালুর রহমান। এ সময় মজিনা নওগাঁ জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন ও সাংবাদিকদের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন। রাষ্ট্রদূত পাহাড়পুর বিহার পরিদর্শন করে মুগ্ধ হন। রেজিস্ট্রার খাতার মন্তব্যে তিনি লিখেছেন, বাংলাদেশে দেখার অনেক কিছু আছে। যা অন্য কোথাও পাওয়া অসম্ভব। এর আগে তিনি পাহাড়পুর বাজারে এসএমসি ব্লু-স্টার সেন্টার পরিদর্শন করেন। বদলগাছী থানার পরিদর্শক (ওসি) আলমগীর হোসেন জানান, মার্কিন রাষ্ট্রদূত ড্যান মজিনা ও তার সফর সঙ্গীরা পাহাড়পুর বৌদ্ধ বিহার পরিদর্শন শেষে দুপুরে সড়কপথে রাজশাহীর উদ্দেশে রওনা হন।

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে