Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, সোমবার, ৩০ মার্চ, ২০২০ , ১৬ চৈত্র ১৪২৬

গড় রেটিং: 2.8/5 (27 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)


আপডেট : ১০-১২-২০১৪

মালালার প্রতি ড. আবদুস সালামের চিঠি

মারজিতা প্রিমা


মালালার প্রতি ড. আবদুস সালামের চিঠি

ইসলামাবাদ, ১২ অক্টোবর- মালালাকে আজকের দিনে আরেক নোবেল বিজয়ী ড. আবদুস সালাম যদি চিঠি লিখতেন, তাহলে সেখানে কী লিখতেন? এমন একটি কাল্পনিক চিঠি প্রকাশ করেছে পাকিস্তানের ডন পত্রিকা। প্রিয়.কমের পাঠকদের জন্য সেই চিঠিটি এখানে অনুবাদ করে প্রকাশ করা হলো।

প্রিয় মালালা,
এতকিছু ঘটে যাওয়ার পরেও আমি সবসময় একটা আশার আলো ধারণ করতাম। যখন সবাই আমাকে পাকিস্তানের একমাত্র নোবেল বিজয়ী বলে সম্বোধন করত, আমি তাদের বলতাম ‘একমাত্র’ না বলে ‘প্রথম’ নোবেল বিজয়ী বলতে।

আমার জন্ম সান্তোখ দাস নামের এক ছোট্ট গ্রামে, তর্কসাপেক্ষে তোমার সোয়াত উপত্যকার মতো এত সুন্দর না হলেও এর অনেককিছুই দেবার ছিল। আমি বড় হই ঝাং শহরে, যেটি এখন কিছু বিপজ্জনক সংগঠনের কারণে কলঙ্কিত। আমার বাবা ছিলেন পাঞ্জাব সরকারের একজন শিক্ষা অফিসার। আমার মন বলছে তোমার বাবা তাকে দেখলে পছন্দ করতেন।

তোমার মতোই আমার খুব অনুরাগ ছিল পড়াশোনার প্রতি। ইংরেজি এবং উর্দু সাহিত্য উপভোগ করলেও অঙ্কে খুব ভাল ছিলাম। অনেক অল্পবয়সেই ম্যাট্রিকুলেশন পরীক্ষায় সেসময়ের রেকর্ড ভেঙ্গেছিলাম।

আমার লেখাপড়া অবশ্য কখনোই তোমার মতো রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডের কারণে বাধাগ্রস্ত ছিল না।
স্কুল ধ্বংস করার কারণে অথবা ছেলেদের শিক্ষালাভ থেকে বঞ্চিত হওয়ার বিরুদ্ধে আমাকে তালেবানদের সঙ্গে লড়াই করতে হয়নি। কিন্তু তারা তোমার পথে যত বাধাই দিক, তুমি সাহসিকতার সাথে সেগুলো ভেদ করে এগিয়ে গিয়েছ।

বরং প্রতিটি নিঃশ্বাসের সাথে তুমি ওদেরকে উপেক্ষা করে গিয়েছ।

তুমি নোবেল প্রাইজ জেতায় তোমাকে আক্রমণকারীরা ক্ষেপে গিয়েছে, তোমার দেশবাসীর মধ্যেও অনেকে অসন্তুষ্ট হয়েছে।

প্রচুর সাহস দরকার এসবের ভেতর দিয়ে পথচলার জন্য, আর আমি তোমাকে যতটুকু জানি তোমার সাহসের কমতি নেই। এই দেশ খুব একটা বদলায়নি। তুমি কোনো অন্যায় করোনি কিন্তু তোমার দেশবাসী তোমাকে নিয়ে ব্যঙ্গ করেছে, মুখ ঘুরিয়ে নিয়েছে। আমি এর কিছুটা জানি।

জাতি হিসেবে আমরা অভিনন্দিত হতে চাই না, করুণার পাত্র হতে চাই।

তুমি যতদিন একটি অঞ্চলের সামান্য একজন ভুক্তভোগী ছিলে ততদিন তারা সন্তুষ্ট ছিল। কিন্তু এরপর তুমি তোমার বন্দিত্ব ঝেড়ে ফেলে বীররূপে আত্মপ্রকাশ করেছ সারা দুনিয়ার কিশোরীদের জন্য আলোক সংকেত নিয়ে। তখনই সেই লোকগুলো তোমার ওপর বিরূপ হয়ে গেছে।

আমরা বীরদের ভালবাসি না মালালা। 
আমরা ভালবাসি চূর্ণ-বিচূর্ণ সত্তাদের যাদেরকে বিশ্বের দরবারে প্রদর্শন করতে পারি।
আমরা এই উপমহাদেশের মুসলিমদের ওপরে সংঘটিত অপরাধের জন্য ঊপনিবেশবাদীদের এবং সাম্রাজ্যবাদীদেরকে লজ্জা দিতে চাই তা সে অপরাধ সত্যি হোক বা বানোয়াট।

বহিরাগতদের ষড়যন্ত্রের দ্বারা আমরা যে কবি ইকবালের স্বর্গ হারিয়েছি সেকথা তাদের জানাতে চাই। আমাদের ভেতরে থাকা অত্যাচারীদের দ্বারা যে অপরিসীম ক্ষতিসাধন হয়েছে তার কোনো উল্লেখই এই বর্ণনার সহায়তা করে না।

আমরা ভেতরের গোঁড়ামি স্বীকার করতে চাই না, যে বিষয়ে আমি কিছুটা জানি।
আমি যেদিন আমার নোবেল পুরস্কারটি পাই সেদিন এ ব্যাপারটি পুরোপুরি অনুধাবন করে উঠতে পারিনি। টুক্সেডো পরিহিত অনেকের মাঝে পাঞ্জাবী পোষাক শেরওয়ানি পরে দাঁড়ানো আমি আমার দেশের প্রতিনিধিত্ব করতে পেরে গর্বিতবোধ করছিলাম, যদিও আমার দেশ আমার প্রতিনিধিত্বে আমার চেয়ে অনেক কম রোমাঞ্চিত ছিল।

আমার ধর্মীয় বিশ্বাসের কারণে সফলভাবেই শয়তান আখ্যা দিয়ে আমার অধিকার কেড়ে নেয়া হল। নির্দিষ্ট কিছু বিশ্ববিদ্যালয়ে আমার লেকচার দেয়া বন্ধ করে দেয়া হল সহিংসতার আশংকায়; আমার নিজের লোকেরাই আমার কাজকে তুচ্ছ করে দেখল।

আমি ভেবে দেখলাম যে নিজভূমে পরবাসীর মতো থাকার চাইতে বিদেশে কাজ করা ভাল। এতে আমি যে ‘দেশদ্রোহী’ এই ধরনের মর্মন্তুদ তত্ত্বের পালে হাওয়া লাগা ছাড়া বিশেষ লাভ হল না।
এখন মশালটা তোমার হাতে বাছা।

আফসোস, মশালটির সাথে আমার তোমাকে এর গায়ে জড়িয়ে থাকা হৃদয় পিষ্ট করা বোঝাও হস্তান্তর করতে হচ্ছে।

তুমি নতুন ‘দেশদ্রোহী’। 
তোমাকে বিশাল চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দেয়া হয়েছে এমন একটা দেশে শান্তি ও গৌরব আনার জন্য যে দেশ তোমার উপহার চায় না।

যাই হোক না কেন, অবাধ্য সন্তানদের মায়ের মতো তোমাকে পথ খুঁজে বের করতে হবে তাদেরকে ভালবাসার জন্য। আমি প্রার্থনা করি অবশেষে তারা বুঝবেই।

এই দেশকে নোবেল পুরস্কার উপহার দেয়ার বিশেষাধিকার আমি প্রথম পেয়েছিলাম। কিন্তু এখন আমরা দুজন।
আর এই সংখ্যা বাড়ার অপেক্ষায় দিন গুনছি।

শুভেচ্ছাসহ
আবদুস সালাম

দক্ষিণ এশিয়া

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে