Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর, ২০১৯ , ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (124 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৯-০২-২০১৪

১৫ লাখ টাকায় সমঝোতা!

১৫ লাখ টাকায় সমঝোতা!

চাঁপাইনবাবগঞ্জ, ২ সেপ্টেম্বর- স্তনসহ হাত-পায়ের রগ কর্তনকারী অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়েরের পর আদালতে সশরীরে উপস্থিত হয়ে আসামিদের জামিন প্রদানের জন্য আদালতে আবেদন জানালেন চাঁপাইনবাবগঞ্জের আলোচিত নূরজাহান বেগম। তিনি শিবগঞ্জ উপজেলার মোবারকপুর ইউনিয়ন পরিষদের সংরক্ষিত নারী আসনের নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি ও স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেত্রী। পিপি জোবদুল হক ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জুডিসিয়াল 'খ' ম্যাজিস্ট্রেটের বিচারিক আদালতে রোববার উপস্থিত হন নির্যাতিত নূরজাহান বেগম ও তার মা মামলাটির বাদী মারজিনা বেগম।

তারা বিচারক মোহাম্মদ সেলিমের সামনে আইনজীবীর মাধ্যমে আবেদনে জানান, অভিযুক্ত আসামিদের আদালত জামিন প্রদান করলে তাদের কোনো আপত্তি থাকবে না। এ পরিপ্রেক্ষিতে আদালত ওই মামলার সব আসামির জামিন আবেদন মঞ্জুর করেন আদালত। পরে বাদী-বিবাদীর মধ্যে ১৫ লাখ টাকার বিনিময়ে লেনদেনে সমঝোতা হয়। এ কারণে ওই মামলার প্রধান অভিযুক্ত তৌহিদুর রহমানসহ অন্যরা আদালতে উপস্থিত হয়ে জামিন প্রার্থনা করলে তাদের জামিন মঞ্জুর করেন বিচারক।

নূরজাহানের স্তন ও হাত-পায়ের রগ কর্তন মামলার এজাহারে বলা হয়, চলতি বছরের ২২ জানুয়ারি সন্ধ্যার দিকে শিবগঞ্জ উপজেলার কানসাট বাজার থেকে বাসে করে মোবারকপুর ইউনিয়নের টিকরী বাজার এলাকায় নিজের বাড়িতে যাচ্ছিলেন ইউপি সদস্য আওয়ামী লীগ নেত্রী। পথে চাঁপাইনবাবগঞ্জ-সোনামসজিদ স্থলবন্দর মহাসড়কের কলাবাড়ি এলাকায় বাস থামলে স্থানীয় বিএনপির ক্যাডাররা নূরজাহানকে টেনেহিঁচড়ে বাস থেকে নামিয়ে নির্যাতন চালায় এবং হাত-পায়ের রগসহ স্তন কেটে পালিয়ে যায়। নূরজাহানের মা মাজিনা বেগম বাদী হয়ে মোবারকপুর ইউপি চেয়ারম্যান বিএনপি নেতা তৌহিদুর রহমানকে প্রধান আসামি করে ১৫-২০ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন শিবগঞ্জ থানায়।

মামলার বাদী মারজিনা বেগম জানান, আহত নূরজাহান ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২৪ জানুয়ারি তাকে দেখতে যান এবং তার চিকিৎসা খরচ সরকারি উদ্যোগে বহনের নির্দেশ প্রদান করেন। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে নির্দেশ দেন দোষীদের গ্রেফতারের। পুলিশ ও র‌্যাব অভিযুক্তদের গ্রেফতার করে এবং তারা আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেয় নূরজাহানের ওপর হামলার ঘটনায় জড়িত থাকার বিষয়ে। পুলিশ সাক্ষ্যপ্রমাণ ও অভিযুক্তদের স্বীকারোক্তির ভিত্তিতে আদালতে চার্জশিটও দাখিল করে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ পুলিশ সুপার (এসপি) বশির আহম্মেদ জানান, ইতিমধ্যে ফাইনাল রিপোর্ট প্রদানের জন্য নূরজাহান বেগম অনুরোধ জানান মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তাকে। তদবির করে পুলিশ প্রশাসনের কাছে। কিন্তু অভিযুক্তদের স্বীকারোক্তি ও সাক্ষ্য-প্রমাণ থাকায় তদন্ত কর্মকর্তা আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। নীতিবহির্ভূত এবং অসৎ লেনদেনের মাধ্যমে একটি সত্য ঘটনায় যদি অভিযুক্তরা মামলা থেকে অব্যাহতি পান, তবে আগামী দিনে এ ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটবে। আইনের শাসন প্রশ্নবিদ্ধ হবে।

চাপাইনবাবগঞ্জ

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে