Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, মঙ্গলবার, ২৮ জানুয়ারি, ২০২০ , ১৪ মাঘ ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.1/5 (53 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০২-১৪-২০১২

মালয়েশিয়ায় শ্রমিক ধর-পাকড় শুরু

এম.আমজাদ চৌধুরী রুনু


মালয়েশিয়ায় শ্রমিক ধর-পাকড় শুরু
মালয়েশিয়ায় শ্রমিক ধর-পাকড় শুরু, গতকাল রাত ২টায়  কুয়ালা লামপুর বুকিট বিনত্মাং জালান আলো এলাকায় ঘুমের মধ্যে থেকে বৈধতার কাগজ পত্র চেক শুরু করে মালয়েশিয়া ইমিগ্রেশন পুলিশ। প্রবাসীদের ভিসা ছাড়া অবৈধ ভাবে চলার উপায় নেই মালয়েশিয়ায়।  শ্রমিকদের একক সিদ্ধান্ত অর্থহীন হয়ে পড়েছে।  ভিসা পাসর্পোট হাতে থাকবে, কাজ করবে নিজের পছন্দো মতো, বেশী বেতন পাবে, টাকা পাঠাবে পরিবারের জন্য,কিন্তু সব স্বপ্ন বিফলে যেতে চলেছে, স্বপ্ন  শুধু স্বপ্ন রয়ে গেল শ্রমিকদের চোঁখে। ১৫ তারিখ না আসতেই শ্রমিক ধর-পাকঁড় শুরু।
১৫ তারিখের আরও কঠর  হবে মালয়েশিয়া সরকারের আইন। বাসে,  রেল পথে, রাস্তায়, বাজারে সব খানে মালয়েশিয়া ইমিগ্রেশন পলিঁশের সাড়াঁশী অভিযান। মালয়েশিয়া সরকার  অবগত করার পরে ও বে-খেয়াল শুধু বাংলাদেশী শ্রমিক।অনেক শ্রমিক শ্রীঘরে থেকে ফিরতে হবে স্বদেশে,মালিক ছাড়া-পারমিট করবে যে স্বপ্ন দেখছে  তারায় বিপাকে। দেশে ফিরতে হলে ও জেল জরিমানার আওতায় থাকবে অবৈধ শ্রমিক। প্রবাসী বাংলাদেশী শ্রমিকদের সব স্বপ্ন অর্থহীন হয়ে পড়েছে। মুক্তির পথ খুঁজতে গিয়ে আবার সেই পুরনো পথেই ফিরে যেতে  পারে হতভাগ্য শ্রমিকদের। ১৯৯৬ সালে মালয়েশিয়া অবৈধ শ্রমিক বৈধ হয়েছে ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত। দীর্ঘ প্রতিক্কিত ১৮ বছর পর আবার সেই  অবৈধ শ্রমিক বৈধতা করার প্রক্রিয়া চালু হয়। ১লা আগষ্ট থেকে ৩১ আগষ্ট মালয়েশিয়া সরকার ঘোষিত ৬পি কর্মসূচীতে বায়োমেট্রিক সিষ্টেমে ফিংঙ্গারপ্রিন্ট রেজিষ্ট্রেশন হয়।শত শত শ্রমিকের ভাগ্য বিপর্যয় দেখা দিয়েছে। দিন দিন মালয়েশিয়ায় ওর্য়াক পারমিট পাবার স্বপ্ন তাদের উবে যাচ্ছে।
জানা গেছে, অনেকে ফিঙ্গারপ্রিন্ট করে সিরিয়াল নম্বর ও ফিংঙ্গারপ্রিন্টের কপি পাবার পরও ইমিগ্রেশনের নথিতে তাদের নাম নেই। অর্থাৎ তাদের নাম রেজিষ্টেশন হয়নি। আবার অনেকে না জেনে শুনেই অচেনা অজানা কোম্পানীর নাম লিপিবদ্ধ করায় এবং আউটসোসিং কোম্পানীর নামে প্যাকেজ পারমিট! করতে গিয়ে প্রতারিত হয়ে এখন পারমিট পাবার পথে, সে ভুল পথে বাধা হয়ে দাঁড়াচ্ছে।   পাসপোর্ট ও টাকা পয়সা দিয়ে প্রতারকের খপ্পড়ে পড়ে ওর্য়াক পারমিটের দুর্লভ সুযোগটি হাতছাড়া করেছে। ইমিগ্রেশনের জটিল হিসাব বুঝে না শ্রমিকরা! বৈধকরণ সুযোগ পেয়েও বৈধতা পাচ্ছে না বহু শ্রমিক। সেই পুরানো দৃশ্য- ফেরারী জীবন। যা কিছু করতে হবে  ১৫ ফেব্রুয়ারীর মধ্যে।  ১০ বছরের আগে এরকম সুযোগ আসবে কিনা সন্দেহ। অনেকে এখনো পর্যন্ত ঠিকই করতে পারে নাই তার কর্মস্থল কোথায় হবে। আবার অনেকের কোম্পানী কথা রাখেনি। কথা আর কাজে মিল না পেয়ে শ্রমিকরা ছুটছে আরেক কোম্পানীর খোঁজে। তবে সবচেয়ে বিপদে পড়ার সম্ভবনা যারা দালাল কে টাকা দিয়েছে পারমিট করার জন্য। ভাগ্যদোষে আজ এই শ্রমিকরা অনিশ্চয়তার মধ্যে রয়েছে। তবে শ্রমিকদের দাবী। মালয়েশিয়া সরকারের সাথে আলোচনার মাধ্যমে এরকম জটিলতা থাকা শ্রমিকদের বৈধতা পেতে উদ্যেগ নিতে পারে সংশ্লিষ্টরা।
তথ্য প্রযুক্তির ত্রুটির কারনে শত শত শ্রমিক অবৈধ হয়ে গেলে দায়ী হবে কে? নতুন ওয়ার্ক পারমিটের সুযোগ পেয়ে ও হাজার হাজার শ্রমিক অবৈধ হয়ে পরবাস, স্ববাস নয় কারা-বাস। ১৫ ফেব্রুয়ারীর মধ্যে কেউ পারমিটের আবেদন করতে ব্যর্থ হলে তাকে এদেশে অবৈধ হয়ে থাকতে হবে নতুবা জরিমানা দিয়ে স্বদেশে ফেরত যেতে হবে। মালয়েশিয়া সরকারের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয় ষ্পষ্টভাবে জানিয়ে দিয়েছে-এ সময় আর বাড়ানো হবে না। অর্থ যোগানের সহযোগী প্রবাসী শ্রমিক,তাদের পাঠানো রেমিটেন্স দিয়ে দেশের অর্থের চাকা ঘুরছে। এ ভাবে শ্রমিক ধর-পাকড়ঁ অভিজান চলতে থাকলে,৫ লাখ শ্রমিক  বনবাস,স্ববাস নয় কারা-বাস। ৫ লাখ পরিবার পথে বসবে-এবং বেকারত্ব বাড়বে, অর্থ যোগান বন্ধ হবে। ১৫ তারিখের আগেই   দেশের স্বার্থে অসহায় প্রবাসী শ্রমিকদের পাশে দাড়াঁতে, এগিয়ে আসতে হবে বাংলাদেশ সরকারের। তবে এ প্রসঙ্গে কথা হয় মালয়েশিয়া কুতারায়াস্ত বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মোঃ বাসেদ বাদল, কাজী সালাউদ্দিন, মোঃ মাহতাব খন্দকার ও জহিরুল ইসলাম জহির এর সঙ্গে তারা আমাদের কে জানান যাদের বৈধ কাগজ পএ আছে তাদের আতৎকিত হবার কিছু নেই । তবে যারা ইদানিং বিভিন্ন উপায়ে দালারের মাধ্যমে টুরিষ্ট ভিষা ও অবৈধ ভাবে মালযেশিয়া আসিয়াছেন তাদের জন্য মালয়েশিয়া ইমেগ্রেশন পুলিশ ও রেলা পুলিশ এরকম অপারেশন অব্যাহত রাখিবেন বলে জানিয়েছেন ।

মালয়েশিয়া

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে