Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শনিবার, ১৮ জানুয়ারি, ২০২০ , ৫ মাঘ ১৪২৬

গড় রেটিং: 2.5/5 (51 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)


আপডেট : ০৭-০৭-২০১৪

'ভুল বোঝাবুঝি', ব্যাখ্যা সাকিবের

'ভুল বোঝাবুঝি', ব্যাখ্যা সাকিবের

ঢাকা, ০৭ জুলাই- বিসিবির নির্দেশে দেশে ফিরে অনাপত্তিপত্র না নিয়ে সিপিএল খেলতে যাওয়ার ব্যাখ্যা দিয়েছেন অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। ভুল বোঝাবুঝির কারণে অনুমতি ছাড়াই তার দেশ ছাড়তে হয়েছিল বলে দাবি করেন তিনি।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) নির্দেশে দেশে ফেরেন সাকিব। অনুমতি না নিয়ে ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (সিপিএল) খেলতে যাওয়ায় বিসিবি সাকিবকে ডেকে পাঠায়। ওয়েস্ট ইন্ডিজে যাওয়ার পথে লন্ডনে ছিলেন সাকিব। সেখান থেকেই ফিরে আসেন তিনি।

রোববার দেশে ফিরে সাংবাদিকদের কাছে অনাপত্তিপত্র বা এনওসি না নিয়ে যাওয়ার ব্যাখ্যা দেন সাকিব।

“লর্ডসের দুইশ’ বছর পূর্তি উপলক্ষে ম্যাচের জন্য আমারও এনওসি নেয়া ছিল। আমার ধারণা ছিল, এটার সাথে বোধহয় সিপিএলের এনওসি বোধ হয় নেয়া ছিল। আমি এসেছিলাম বিগব্যাশের এনওসি নিতে।”

সাকিব জানান, এরপরই বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের ব্যবস্থাপক সাব্বির খান তাকে বলেন, সিপিএলের জন্য তার এনওসি নেয়া হয়নি। তিনি সাকিবকে বিসিবির ভারপ্রাপ্ত সিইও নিজাম উদ্দিন চৌধুরীর সঙ্গে বথা বলতে বলেন।

“সুজন (নিজাম উদ্দিন চৌধুরী) ভাইকে ফোন দিলাম; তিনি বোধহয় মালয়েশিয়ার ফ্লাইটে উঠছিলেন। তিনি আকরাম ভাইয়ের সঙ্গে কথা বলতে বলেন। উনার সাথে কথা বলি, তবে ঢাকায় না থাকায় তিনি সাইন করতে পারেননি।

“আকরাম বললেন, সাব্বিরকে দিয়ে তুমি চলে যাও, আমি এসে সাইন করবো। এটা শুনে আমি চলে যাই। হ্যাঁ, লিখিত নিয়ে গেলে হয়তো আরও বেশি ভালো হতো। আমি কখনো চিন্তাই করিনি এটা এ পর্যায়ে আসবে।”

লন্ডনে থাকতে এনওসি নেয়ার চেষ্টা করেছিলেন জানিয়ে সাকিব বলেন, “কোচও অমাকে ৩১ জুলাই পর্যন্ত খেলার অনুমোদন দেয়ায় ‘সরি’ বলে আবার ইমেইলে এনওসি দেয়ার অনুরোধ করি। আমাকে জানানো হলো, তোমাকে এনওসি দেয়া হচ্ছে না, জরুরি ভিত্তিতে তুমি চলে আস। পরের ফ্লাইট ধরে আজ পৌঁছালাম।”

এখন আর সিপিএলে খেলার এনওসি পাবেন কি না সে ব্যাপারে নিশ্চিত না হলেও সাবেক এই অধিনায়কের ধারণা বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসানের সঙ্গে কথা বলতে পারলে অনেক কিছুই স্বাভাবিক হয়ে যাবে।

“যদি এনওসি দেয় তাহলে খেলতে যাব, না দিলেও সমস্যা নেই, অনুশীলন করবো।”

সাকিব অনুমতি না নিয়ে সিপিএলে খেলতে যাওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছিলেন বিসিবির সভাপতি নাজমুল হাসান।

দেশে থাকার নিদের্শ পাওয়ার পরও চলে যাওয়া প্রসঙ্গে সাকিব জানান, বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের ব্যবস্থাপক সাব্বির খান যখন তাকে ফোন করেন, তখন তিনি রওয়ানা দিচ্ছিলেন। সাব্বির তাকে জানান, ইমেইলে সাকিবকে যেতে নিষেধ করা হয়েছে।

“পরে আমি সুজন ভাইকে ফোন দিলাম, তিনি হয়তো ঘুমিয়ে ছিলেন ফোন ধরতে পারেননি। আকরাম ভাইকে ফোন দিয়েছি, উনিও ধরতে পারেননি। বেশি সকাল বলে পাপন (নাজমুল হাসান) ভাইকে বিরক্ত করতে চাইনি বলে উনাকে পরে ফোন দিয়েছি।”

কোচ চন্দিকা হাথুরুসিংহের সঙ্গে কথা কাটাকাটির কথাও স্বীকার করেন সাকিব। তখন রাগের মাথায় টেস্ট ও ওয়ানডে থেকে অবসর নিতে চেয়েছিলেন তিনি।

“একটা পরিবারের ভেতরে এটা হয়েই থাকে। ও বলেছে, ঈদের পর জাতীয় দলের ক্যাম্প শুরু হলে তাতে আমাকে যোগ দিতে হবে।”

সাকিব জানান, কোচের সঙ্গে কথা বলার পর ১০ ঘণ্টা ফ্লাইটে থাকায় কথা বলতে পারেননি তিনি। পরে তিনি ‘সরি’ বললেও ততক্ষণে বিসিবিকে সাকিবের বিষয়ে মেইল করেন দলের কোচ।

ক্রিকেট

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে