Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শনিবার, ১৮ জানুয়ারি, ২০২০ , ৫ মাঘ ১৪২৬

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০২-০৭-২০১২

যত্রতত্র দেওয়াল লিখন ও পোস্টার লাগানো নিষিদ্ধ

যত্রতত্র দেওয়াল লিখন ও পোস্টার লাগানো নিষিদ্ধ
ঢাকা, ফেব্র“য়ারি ৭ - নির্ধারিত স্থান ছাড়া অন্য কোথাও দেওয়াল লিখন ও পোস্টার লাগানো নিষিদ্ধ করে ‘দেওয়াল লিখন ও পোস্টার লাগানো (নিয়ন্ত্রণ) বিল, ২০১২’ সংসদে পাস হয়েছে।

এ আইন লঙ্ঘনের দায়ে সর্বোচ্চ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে সর্বোচ্চ ৩০ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ডের বিধান রাখা হয়েছে। ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমেও এ অপরাধের বিচার করা যাবে।

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের পক্ষে প্রতিমন্ত্রী জাহাঙ্গীর কবির নানক মঙ্গলবার বিলটি অনুমোদনের জন্য জাতীয় সংসদে তুললে তা কণ্ঠভোটে পাস হয়। এ সময় অধিবেশনে সভাপতিত্বে ছিলেন স্পিকার আবদুল হামিদ।

বিলের উদ্দেশ্য ও কারণ সম্বলিত বিবৃতিতে মন্ত্রী বলেন, নির্বাচন কমিশন থেকে জারি করা নির্বাচনী বিধিমালায় দেয়াল লিখন ও পোস্টার লাগানোর বিষয়ে কড়াকড়ি থাকলেও বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ও বাণিজ্যিক সংস্থা এই বিধিমালার আওতায় না থাকায় পণ্য বিপণন, সেবা প্রদান এবং অন্যান্য বাণিজ্যিক কারণে যত্রতত্র পোস্টার লাগানো হচ্ছে। এটি নিয়ন্ত্রণে এবং বিভিন্ন ভবনের দেওয়াল ও যানবাহনের বাইরের অংশ পরিচ্ছন্ন রাখতে এই আইন প্রণয়নের প্রয়োজন দেখা দিয়েছে।

স্থানীয় সরকার মন্ত্রীর পক্ষে প্রতিমন্ত্রী জাহাঙ্গীর কবির নানক গত ২৮ নভেম্বর এ বিল সংসদে উত্থাপন করেন। এর আগে ১১ জুলাই বিলটির খসড়া মন্ত্রিসভায় অনুমোদন পায়।

যেখানে লাগানো যাবে

বিলের তিন নম্বর ধারায় বলা হয়েছে, নির্ধারিত স্থান ছাড়া অন্য কোথাও দেওয়াল লিখন বা পোস্টার লাগানো যাবে না।

এই ‘নির্ধারিত স্থানের’ ব্যাখ্যা দেওয়া হয়েছে চার নম্বর ধারায়। এতে বলা হয়েছে, কোনো স্থানীয় কর্তৃপক্ষ দেওয়াল লিখন বা পোস্টার লাগানোর জন্য প্রশাসনিক আদেশে স্থান নির্ধারণ করে দিতে পারবে। দেয়ালে লিখতে বা পোস্টার লাগাদে সেই নির্ধারিত স্থানই ব্যবহার করতে হবে।

তবে কর্তৃপক্ষের অনুমোদন নিয়ে নির্ধারিত স্থানের বাইরেও ‘নির্ধারিত শর্ত ও পদ্ধতিতে’ ফি দিয়ে দেওয়াল লিখন বা পোস্টার লাগানো যাবে।

বিলের ৯ নম্বর ধারায় বলা হয়েছে, নির্বাচন কমিশন পরিচালিত জাতীয় সংসদ নির্বাচনসহ কোনো স্থানীয় কর্তৃপক্ষের নির্বাচনে প্রচারণা সংক্রান্ত দেওয়াল লিখন ও পোস্টার লাগানোর ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট আইন ও বিধি-বিধান এবং এ উদ্দেশ্যে নির্বাচন কমিশন কর্তৃক জারিকৃত নির্দেশনা প্রযোজ্য হবে।

ইসি পরিচালিত অন্য নির্বাচনের ক্ষেত্রে পরিচালনাকারী কর্তৃপক্ষ ও সংশ্লিষ্ট স্থানীয় কর্তৃপক্ষের অনুমোদন নিয়ে নির্ধারিত শর্তে দেওয়াল লিখন বা পোস্টার লাগানো যাবে। তবে এক্ষেত্রে অনুমোদিত পোস্টার বা দেওয়াল লিখনও নির্বাচন শেষ হওয়ার ১৫দিনের মধ্যে মুছে ফেলতে হবে।

বিচার ও দণ্ড

পাস হওয়া বিলের ছয় নম্বর ধারায় বলা হয়েছে, এ আইনের বিধান লঙ্ঘন করে দেওয়ালে লিখলে বা পোস্টার লাগানো হলে সংশ্লিষ্ট ব্যাক্তি বা কোম্পানিকে পাঁচ থেকে দশ হাজার টাকা জরিমানা করা যাবে। জরিমানা অনাদায়ে ১৫ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রযোজ্য হবে।

কোনা সুবিধাভোগীর অনুকূলে বিধান লঙ্ঘন করে দেয়াল লিখন বা পোস্টার লাগালে ওই সুবিধাভোগীকে দশ হাজার থেকে ৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত জরিমানা করা যাবে। জরিমানা আনাদায়ে ৩০ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া যাবে।

বিলের সপ্তম দফায় বলা হয়েছে, কোনো ব্যাক্তির বিরুদ্ধে এই আইন লঙ্ঘন করার অভিযোগ পাওয়া গেলে মোবাইল কোর্ট আইন, ২০০৯ অনুযায়ী বিচার করা হবে। সুবিধাভোগীর ক্ষেত্রে অভিযোগ পাওয়া গেলে ফৌজদারি বিধি, ১৮৯৮ অনুযায়ী সংক্ষিপ্ত পদ্ধতিতে বিচার হবে।

কোনো কোম্পানি যদি ওই আইন লঙ্ঘন করে, তাহলে প্রত্যেক পরিচালক, ব্যবস্থাপক, সচিব, অংশীদার, কর্মকর্তা ও কর্মচারীই এ অপরাধ করেছে বলে ধরা হবে।

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে